ঢাকা, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, রবিবার, ১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৪ শাওয়াল ১৪৪৫ হিঃ

অনলাইন

নাভালনির অসম্পূর্ণ কাজ পূরণ করার অঙ্গীকার নিলেন তার স্ত্রী ইউলিয়া

মানবজমিন ডিজিটাল

(১ মাস আগে) ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, শুক্রবার, ২:৫৯ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ১২:০২ পূর্বাহ্ন

mzamin

ইউলিয়া নাভালনায়া  সাধারণত ক্যামেরা এড়িয়ে চলতেই পছন্দ করতেন  যখন তার স্বামী  রাশিয়ার বিরোধী নেতা আলেক্সি নাভালনি, প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সবচেয়ে বড় শত্রু হয়ে ওঠেন। কিন্তু গত সপ্তাহে কারাগারে নাভালনির মৃত্যুর পর ইউলিয়া মিউনিখের সিনিয়র রাজনীতিবিদদের জন্য সংরক্ষিত একটি মঞ্চে উঠেছিলেন এবং প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন যে পুতিন এবং তার সহযোগীদের মৃত্যুর জন্য যারা দায়ী তাদের বিচারের মুখোমুখি দাঁড় করানো  হবে। পরে তিনি দৃঢ় প্রতিজ্ঞা করে বলেন : "আমি আলেক্সি নাভালনির কাজ চালিয়ে যাব।" 

বিরোধী নেত্রী হিসাবে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের ‘পয়লা নম্বর’ শত্রু হয়ে ওঠাই যেন এখন তার লক্ষ্য।  এটি একজন নারীর একটি উচ্চাভিলাষী বিবৃতি যিনি একবার হার্পার'স বাজারের রাশিয়ান সংস্করণের সাথে একটি সাক্ষাত্কারে বলেছিলেন যে তার  মূল কাজ   সন্তান এবং বাড়ির যত্ন নেওয়া।  ইউলিয়া নাভালনায়া  রাশিয়ার বিরোধীদের ইতিহাসের সবচেয়ে অন্ধকার এবং সবচেয়ে উত্তাল সময়ের মধ্যে নেতৃত্ব দেবেন । বিরোধী দল ভেঙ্গে গেছে এবং নাভালনির মৃত্যু এটিকে একটি গুরুতর আঘাত করেছে। এখন প্রশ্ন হল নাভালনায়া কি তার স্বামীর সৈন্যদের একত্র  করতে পারবেন ?  পুতিনকে যেকোনো ধরনের চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলতে  অন্যান্য বিরোধী দলগুলোর সাথে কাজ করতে পারবেন ?  বিশেষ করে যখন  মার্চে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের পর পুতিন ক্রেমলিনে আরও ছয় বছর দায়িত্ব পালনের পথে রয়েছেন । 

পুতিন ক্রমবর্ধমানভাবে বাক স্বাধীনতার উপর ক্র্যাক ডাউন করেছেন এবং রাশিয়ার মধ্যে ভিন্নমত পোষণকারী বিরোধী ও সমালোচকদের জেলে ভরেছেন।নাভালনায় পুতিনের পাশে দাঁড়ানোর অভিজ্ঞতা আছে। তিনি এবং নাভালনি ২০ বছরেরও বেশি সময় ধরে বিবাহিত ছিলেন এবং রাশিয়ায় সবচেয়ে বড় বিক্ষোভে নেতৃত্ব দেবার সময় স্বামীর পাশে ছিলেন। তিনি পুতিনকে তার স্বামীকে হত্যা করার জন্য অভিযুক্ত করেছেন। যদিও তা উড়িয়ে দিয়েছে ক্রেমলিন।

বিজ্ঞাপন
ক্যামেরার সামনে খুব একটা আসতে চাইতেন না ইউলিয়া। প্রচারের আলো থেকে সব সময় দূরে থাকতেন। কিন্তু এবার নিজেকে বদলে ফেলছেন তিনি। পুতিনের চোখে চোখ রেখে লড়াই করার জন্যই যেন প্রস্তুত হচ্ছেন তিনি। নিরাপত্তা উদ্বেগের কারণে  ইউলিয়ার রাশিয়ায় যাওয়ার সম্ভাবনা নেই এবং এখন নির্বাসনে থেকে কীভাবে তার স্বামীর সংগঠনকে নেতৃত্ব দেওয়া যায় তা খুঁজে বের করার ক্ষেত্রে একই ধরনের সমস্যায় পড়েছেন।

শুক্রবার, নাভালনির মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়ার পরপরই, তিনি একই পরিস্থিতির শিকার বেলারুশিয়ান বিরোধী নেতার স্ত্রী  সভিয়াতলানা সিখানৌস্কায়ার সঙ্গে দেখা করেন। ২০২০ সালে বেলারুশের প্রেসিডেন্ট  নির্বাচনের দৌড়ে জেলে যাওয়ার পর সিখানৌস্কায়া তার স্বামী, বেলারুশিয়ান বিরোধী নেতা সিরহেই সিখানৌস্কির কাছ থেকে রাজনৈতিক ব্যাটন হাতে তুলে নিয়েছিলেন। তিনি একটি সফল প্রচারাভিযান চালিয়েছিলেন কিন্তু দীর্ঘদিনের প্রেসিডেন্ট আলেকজান্ডার লুকাশেঙ্কো পশ্চিমে ব্যাপকভাবে জালিয়াতি হিসাবে বিবেচিত একটি নির্বাচনে নিজেকে বিজয়ী ঘোষণা করার পরে বেলারুশ থেকে পালিয়ে যান।  ইউরোপীয় ইউনিয়নের বৈদেশিক বিষয়ক কাউন্সিলের একটি বৈঠকে প্রবেশ করে, নাভালনায়া নিজের  লক্ষ্যর কথা তুলে ধরেন। নাভালনির দুর্নীতি দমন ফাউন্ডেশন সাম্প্রতিক বছরগুলিতে পশ্চিমা এবং স্বাধীন রাশিয়ান মিডিয়াতে শিরোনাম তৈরি করেছে। কিন্তু সংস্থাটি রাশিয়ান জনসংখ্যার কাছ থেকে বৃহত্তর সমর্থন জোগাড়  করতে বা রাজনৈতিক পরিবর্তন আনতে ব্যর্থ হয়েছে। ইউলিয়া নাভালনায়া এখন সেই জনসমর্থন সংগ্রহের লক্ষ্যে কাজ চালিয়ে যেতে চান। আর তাই রাশিয়ায় এবার প্রধান বিরোধী মুখ নাভালনির স্ত্রী!

সূত্র :  ইন্ডিয়া টুডে

অনলাইন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

   

অনলাইন সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2024
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status