ঢাকা, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, শুক্রবার, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ১২ শাবান ১৪৪৫ হিঃ

রকমারি

আট মাস হেফাজতে থাকার পর বন্দিদশা থেকে মুক্তি পেল চীনের ‘গুপ্তচর’ পায়রা!

মানবজমিন ডিজিটাল

(৩ সপ্তাহ আগে) ১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, বৃহস্পতিবার, ৫:৫৮ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ৩:০৭ অপরাহ্ন

mzamin

একটি পায়রা, যাকে একসময় 'চীনা গুপ্তচর' বলে সন্দেহ করা হয়েছিল, ভারতের মুম্বাইয়ের পশু চিকিৎসা কর্তৃপক্ষের সতর্ক দৃষ্টিতে আট মাস কাটানোর পরে অবশেষে মুক্ত করা হলো। গত বছর মে মাসে মুম্বইয়ের রাষ্ট্রীয় কেমিক্যালস অ্যান্ড ফার্টিলাইজারস থানা এলাকার আকাশে একটি পায়রাকে ঘিরে সেখানকার মানুষের মধ্যে শোরগোল পড়ে যায়। দেখা যায় পায়রার দু’পায়ে দুটো মেটাল প্লেট বসানো আছে। তাতে চীনা বা মান্দারিন ভাষায় কিছু লেখা। শুরু হয় তদন্ত। মুম্বই পুলিশের পক্ষ থেকে ভারতের বিভিন্ন গোয়েন্দা এজেন্সির সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। 

অনুমান করা হয়, এটা আসলে ‘চাইনিজ স্পাই’। অতীতে যেরকম পায়রার পায়ে চিঠি বেঁধে খবর আদান প্রদান করা হত তেমনই চীনের পায়রার পায়ে লাগানো ওই মেটাল প্লেটের মাধ্যমে কিছু সিনগ্যাল, ছবি রিসিভ করার ব্যবস্থা রয়েছে বলে অনুমান করা হয়। এরপরই থানায় এফআইআর দায়ের করে তদন্ত শুরু করে পুলিশ। আদালতের নির্দেশে চীনের 'গুপ্তচর'কে পাঠানো হয় স্থানীয় পশু হাসপাতালে। সেখানে গোয়েন্দাদের নজরদারিতে খাওয়া দাওয়া সারছিল পায়রাটি।

বিজ্ঞাপন
এরপরে তদন্তে জানা যায়, তাইওয়ানে পায়রা ওড়ার প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছিল পায়রাটি। পথ ভুলে দেশের বাইরে মুম্বাইয়ের পির পাও জেটিতে চলে আসে পায়রাটি। 

তদন্তের শেষে পায়রার বিরুদ্ধে চরবৃত্তির অভিযোগ খারিজ করে পুলিশের অনুমতিতে ছেড়ে দেওয়া হয় পায়রাটিকে। রাষ্ট্রীয় কেমিক্যালস অ্যান্ড ফার্টিলাইজারের আধিকারিক জানিয়েছেন, পারেলের পশু হাসপাতালে এতদিন ছিল পায়রাটি। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের আবেদনে ও পুলিশের অনুমোদনে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে পায়রাটিকে ।

সূত্র : wionews

রকমারি থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

   

রকমারি সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2023
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status