ঢাকা, ১২ আগস্ট ২০২২, শুক্রবার, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৩ মহরম ১৪৪৪ হিঃ

খেলা

সাদিও মানের জন্য বার্সা ছাড়েন মেসি!

স্পোর্টস ডেস্ক

(১ মাস আগে) ২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ১২:৫৭ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ৯:০০ অপরাহ্ন

লিওনেল মেসি মানেই বার্সেলোনা। সমর্থকদের এমন চিন্তায় ভাটা পড়ে গত ট্রান্সফার উইন্ডোয়। নু-ক্যাম্প ছেড়ে প্যারিস সেইন্ট জার্মেইয়ে (পিএসজি) পাড়ি জমান আর্জেন্টাইন সুপারস্টার। এতদিন শোনা গেছে, লা লিগার বেতন কাঠামোজনিত জটিলতায় মেসি-বার্সার চুক্তি নবায়ন হয়নি। এবার ভিন্ন তথ্য দিলেন সাদিও মানের এজেন্ট বাকারি সিসে। সেনেগালিজ তারকাকে ভেড়ানোর শর্তেই নাকি চুক্তি নবায়নে রাজি হয়েছিলেন মেসি।
বার্সার সঙ্গে ২১ বছরের সম্পর্ক ছিন্ন করে গত মৌসুমে পিএসজিতে যোগ দেন মেসি। বার্সা কর্তৃপক্ষের দাবি স্প্যানিশ লা লিগার বেতন কাঠামোর বেড়াজালে বিশ্বসেরা তারকাকে দলে রাখতে পারেনি তারা। যদিও অর্ধেক বেতনেও বার্সায় থাকতে রাজি ছিলেন মেসি। কিন্তু সিসের দাবি, মেসি বার্সার সঙ্গে চুক্তি নবায়ন করবেন কি না, সেটা নির্ভর করছিল মানের স্পেনে যাওয়ার ওপর। সম্প্রতি আরএমসি স্পোর্তকে দেয়া সাক্ষাৎকারে সিসে বলেন, ‘গত বছর বার্সেলোনায় যাওয়ার সুযোগ ছিল মানের সামনে।

বিজ্ঞাপন
মেসি নিজেই চেয়েছিলেন, বার্সেলোনা যেন মানেকে দলে ভেড়ায়। বার্সা যখন মেসির সঙ্গে চুক্তি নবায়ন করার চেষ্টা করছিল, তখন মেসিই শর্ত হিসেবে জানান, দলে মানে ও আরেকজন আর্জেন্টাইন সেন্ট্রাল ডিফেন্ডার লাগবে। তবেই সে চুক্তিতে সই করবে।’ যে আর্জেন্টাইন ডিফেন্ডারের কথা সিসে বলেছেন, তিনি হলেন ক্রিস্টিয়ান রোমেরো। আর্জেন্টিনা জাতীয় দলের রক্ষণভাগের ভরসা হয়ে ওঠা এই তারকা গত মৌসুমে জুভেন্টাস থেকে টটেনহ্যাম হটস্পারে যোগ দেন। শেষমেশ সাদিও মানের বার্সেলোনায় আসা হয়নি এবং মেসিরও ন্যু-ক্যাম্পে থাকা হয়নি। 
সম্প্রতি লিভারপুলের পাঠ চুকিয়ে বায়ার্ন মিউনিখে যোগ দিয়েছেন সেনেগালিজ তারকা। তিন বছর বাভারিয়ানদের লাল জার্সিতে দেখা যাবে তাকে।
 

খেলা থেকে আরও পড়ুন

খেলা থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status