ঢাকা, ১৩ জুলাই ২০২৪, শনিবার, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৬ মহরম ১৪৪৬ হিঃ

রকমারি

পার্কে সাপের 'সানবাথ'

মানবজমিন ডিজিটাল

(১ বছর আগে) ১৮ জুন ২০২৩, রবিবার, ১:২২ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ৯:২৬ পূর্বাহ্ন

mzamin

পার্কে সাধারণত মানুষ হাঁটতে যায়। প্রিয় পোষ্যকে সঙ্গে নিয়ে  জগিং করতে যায় বা বাচ্চারা খেলতে যায়।  কিন্তু কখনো শুনেছেন পাবলিক পার্কে সানবাথ করাতে  সাপকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে ?  এরকমই একটি ঘটনা  অনলাইন বিতর্কের জন্ম দিয়েছে যে সাপের মতো একটি প্রাণীকে  পাবলিক স্পেসে খোলা অবস্থায় ছেড়ে দেয়া কতটা গ্রহণযোগ্য । দ্য ফ্রেন্ডস অফ বার'শ পার্ক গ্রুপ বলেছে যে তারা এমন কিছু অভিযোগ পেয়েছেন যা থেকে জানা যাচ্ছে এক ব্যক্তি প্রায় ২০ টি সাপকে পেসলে পার্কে নিয়ে যাচ্ছেন ।   কেউ সাপগুলো দেখলে পুলিশকে ফোন করার আহ্বান জানানো হয়েছে ।

  যদিও স্থানীয় কিছু মানুষ মনে করেন সাপ গুলি সূর্যস্নান করে বাসায় ফিরে যাচ্ছে , কারুর কোনো ক্ষতি করছে না তাহলে সমস্যা কোথায় ?  পার্কের রাস্তার পাশে বসবাসকারী মার্গারেট উইন্টার্স বলেছেন,  সাপগুলোকে সূর্যের আলোয় শুয়ে থাকতে দেখে অনেকে খুশি হয়েছেন। তিনি বলছিলেন: "প্রথমবার যখন আমি সাপগুলি দেখেছিলাম, তারা আক্ষরিক অর্থে আমার পায়ের উপর দিয়ে যাচ্ছিলো । আমি কিছুটা ভয় পেয়েছিলাম, কিন্তু তারা সত্যিই সুন্দর ছিল। আমি সাপকে ভয় পাই না তাই তাদের পার্কে দেখে বেশ ভালো লাগছে। '' আসলে পার্কে যেখানে চারপাশে পোষ্য কুকুর বিড়ালকে ঘোরাফেরা করতে দেখা যায় সেখানে পোষ্য সাপকে দেখা যাবে সেটা অনেকেই আতঙ্কে মেনে নিতে পারছেন না।  

 ফ্রেন্ডস গ্রুপটিও  বিষয়টি নিয়ে আপত্তি তুলেছে।

বিজ্ঞাপন
 তার ফেসবুক পেজে   স্থানীয় কাউন্সিলের একটি বিবৃতি দিয়ে বলেছে  "বারশা পার্কে সাপ আনার অনুমতি কারো নেই । '' এমনকি পার্কে কেউ সাপ আনলে ১০১ নম্বরে পুলিশকে কল করে তৎক্ষণাৎ জানানোর আবেদন করা হয়েছে। পার্কে বাচ্চাদের ঘোরাতে নিয়ে গিয়ে  সাপের মালিকের সাথে কথা বলার পর স্থানীয় এক নারী জানাচ্ছেন - " তিনি সত্যিই ভদ্র লোক, সাপ সম্পর্কে আমাদের ১০০১ টি প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন। সাপগুলি তাঁর নিয়ন্ত্রণে ছিল এবং সানবাথ জমিয়ে উপভোগ করছিল। কুকুর সম্পর্কে আমরা যখন উদ্বেগ দেখাই  না তখন সাপ সম্পর্কে এতো উদ্বেগের কি আছে ? '  যদিও সাপগুলির জন্য সমর্থন সর্বজনীন ছিল না, একজন সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারী সংক্ষিপ্তভাবে সাপকে পার্কে নিয়ে যাওয়ার বিরুদ্ধে যুক্তি তুলে ধরে তাদের পার্কে আনা  নিষিদ্ধ  করার ওপর জোর দেন। 

বারশোতে নিয়মিত পরিদর্শক জেমি কিনলোচন, বিবিসি স্কটল্যান্ডের ড্রাইভটাইম প্রোগ্রামে এসে  বলেছেন যে বেশিরভাগ লোকের সাথে তিনি কথা বলে দেখেছেন  তারা তাদের সবুজ পার্কটিকে  সাপের সাথে ভাগ করে নিতে পেরে খুশি বলে মনে হয়েছিল - যতক্ষণ না সাপগুলি কারুর ক্ষতি করছে । যদিও রেনফ্রুশায়ার কাউন্সিলের একজন মুখপাত্র নিশ্চিত করেছেন: "আমাদের পার্কে সাপের মতো অ-গৃহপালিত পোষা প্রাণী আনা উচিত নয় এবং এটি করার জন্য সম্মতি দেওয়া হয়নি।"

সূত্র: বিবিসি

রকমারি থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

   

রকমারি সর্বাধিক পঠিত

মা-বাবার বিরুদ্ধে মামলা/ 'অনুমতি না নিয়েই কেন জন্ম দিয়েছ?'

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2024
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status