ঢাকা, ২৫ মে ২০২৪, শনিবার, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৬ জিলক্বদ ১৪৪৫ হিঃ

দেশ বিদেশ

ময়মনসিংহে শিশু মীমকে ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তার ২

স্টাফ রিপোর্টার, ময়মনসিংহ থেকে
২২ মার্চ ২০২৩, বুধবার

ময়মনসিংহের  ধোবাউড়ায় ১১ বছর বয়সী শিশু মীমকে ধর্ষণের পর হত্যা করে লাশ নদীতে ফেলে দেয়ার মামলায় জড়িত  ইউসুফ আলী (২০)  ও  এক (অপ্রাপ্ত) শিশুসহ ২ জনকে গ্রেপ্তার করেছে ময়মনসিংহ জেলা গোয়েন্দা পুলিশ।  গত ২০শে মার্চ ধোবাউড়া থানা এলাকা থেকে ২ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃত ইউসুফ কলসিন্দুরের (মাইমলপাড়া) গ্রামের ইস্রাফিল আলীর পুত্র। গতকাল সকালে ময়মনসিংহ জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে পুলিশ সুপার মাছুম আহাম্মেদ ভুইয়া এক প্রেস ব্রিফিয়ে এ তথ্য জানান। তিনি আরও জানান,  ময়মনসিংহ ধোবাউড়া থানার কলসিন্দুর গ্রামের খোকন মিয়ার মেয়ে নুসরাত জাহান মীম (১১) গত ১৮ই মার্চ সন্ধ্যায়  বাড়ি থেকে  বের হয়ে রাতে বাড়ি ফিরে না আসায় পরিবার ও আত্মীয়স্বজনরা চারদিকে তাকে খোঁজাখুঁজি করতে থাকে। অনেক খোঁজাখুঁজির পর রাত  ৮টায় দিকে বাড়ির পার্শ্ববর্তী নেতাই নদীতে নুসরাত জাহান মীম (১১) এর লাশ ভাসমান অবস্থায় পাওয়া যায়। খবর পেয়ে ধোবাউড়া থানা পুলিশ লাশের সুরতহাল প্রস্তুত করে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ মর্গে প্রেরণ করে। সুরতহালকালে নুসরাত জাহান মীম (১১) এর যৌনাঙ্গ ও শরীরের স্পর্শকাতর অন্যান্য অঙ্গে  ক্ষতবিক্ষত রক্তাক্ত জখম ও গণধর্ষণের চিহ্ন পায়। মীমের লাশের গায়ে অন্যান্য চিহ্ন ও আলামতের উপস্থিতি দেখে প্রাথমিকভাবে ঘটনাটি গণধর্ষণের ফলে হত্যা বলে প্রতীয়মান হয়।  নুসরাত জাহান মীম (১১) সোহাগীপাড়া নুরানী মাদ্রাসায় ৩  শ্রেণির ছাত্রী ছিল।

বিজ্ঞাপন
ঘটনাটি অত্যন্ত জঘন্যতম, ঘৃণ্য ও নৃশংস হওয়ায়  দ্রুততম সময়ের মধ্যে ধর্ষক ও হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে জেলা গোয়েন্দা শাখার একাধিক টিম নিযুক্ত করা হলে ইউসুফ (২০) ও তার সহচরকে আটক করে। আটককৃত ইউসুফকে জিজ্ঞাসাবাদে সে জানায়, বয়সের ব্যবধান থাকলেও আটককৃত শিশু তার ঘনিষ্ঠ সহচর। যৌন কাম-বাসনা চরিতার্থ করার জন্য ইউসুফ ও আটককৃত শিশু পরিকল্পিতভাবে ১৮ই মার্চ  সন্ধ্যা  ৬টার পূর্বে নুসরাত জাহান মীম (১১)’র বাড়ির পার্শ্ববর্তী স্থানে অন্ধকারে অপেক্ষায় থাকে। মীম বাড়ি হতে বের হয়ে আসলে ইউসুফ ও আইনগত কারণে নাম প্রকাশ না করা শিশুটি নুসরাত জাহান মীম (১১)কে মুখ চেপে ধরে জোরপূর্বক বাড়ির পার্শ্ববর্তী কলা বাগানে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। ধর্ষণ শেষে রাত পৌনে ৮টার দিকে নুসরাত জাহান মীম (১১)কে শ্বাসরোধে হত্যা করে নদীতে লাশটি ভাসিয়ে দেয়। গ্রেপ্তারকৃত আসামি ইউসুফ ও শিশুটি ঘটনার বিষয়ে স্বীকারোক্তিসহ বিস্তারিত তথ্য প্রদান করেছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত গ্রেপ্তারকৃত শিশুটিকে শিশু আইন-২০১৩ এর বিধিবিধান মেনে আটক ও জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। আইনগত কারণে শিশুটির নাম পরিচয় প্রকাশ করা হলো না ।

দেশ বিদেশ থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

   

দেশ বিদেশ সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2024
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status