ঢাকা, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, মঙ্গলবার, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ১৬ শাবান ১৪৪৫ হিঃ

রকমারি

৩ কোটি টাকায় চেহারা পরিবর্তন করে কোরিয়ান হতে চেয়েছিলেন বৃটিশ যুবক

মানবজমিন ডিজিটাল

(১১ মাস আগে) ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, সোমবার, ১২:২০ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ১২:২৪ পূর্বাহ্ন

mzamin

দুই বছর আগে, একজন বৃটিশ বংশোদ্ভূত প্রভাবশালী ব্যক্তি বিখ্যাত কোরিয়ান পপ ব্যান্ড বিটিএসের এক সদস্যের মতো চেহারা বানাতে গিয়ে ১৮টি কসমেটিক সার্জারির মধ্য দিয়ে গিয়েছিলেন। তার সেই কীর্তি আন্তর্জাতিক শিরোনামে জায়গা করে নিয়েছিলো। ওলি লন্ডন জানাচ্ছেন নিজের লিঙ্গ নিয়ে তাঁকে অনেকবার বিদ্রূপের মুখে পড়তে হয়েছিলো। এরপরই তিনি ব্যাপক অস্ত্রোপচারের সিদ্ধান্ত নেন এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় সমালোচিত হয়েছিলেন। তা সত্ত্বেও কোরিয়ান ব্যান্ডের সদস্য পার্ক জিমিনের মতো হতে চেয়েছিলেন তিনি। তাই ছুরি-কাঁচির হাত থেকে তাঁকে কেউ বাঁচাতে পারেনি। যদিও অনেক সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারীরা তার সিদ্ধান্তগুলিকে সমর্থন করেছিলেন, কিন্তু কেউ কেউ কসমেটিক সার্জারির বিপজ্জনক দিকটি নিয়ে সচেতনও করেছিলেন। লন্ডনের রূপান্তরটি ২০২২ সালের শুরুর দিকে সম্পন্ন হয়েছিল। রিপোর্ট অনুযায়ী, লিঙ্গ-নিশ্চিত করতে অস্ত্রোপচারের জন্য ৩ লক্ষ ডলার খরচ করেছিলেন লন্ডন। কিন্তু ২০২২ সালের শেষের দিকে, ওলি সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন যে তিনি একজন পুরুষ হিসাবেই  বাঁচতে চান।

বিজ্ঞাপন
কয়েক মাস আগে, ওলি মিডিয়াকে বলেছিলেন যে কোরিয়ান হতে চাওয়া তাঁর একটি 'বড় ভুল' ছিল এবং তিনি ইউ-টার্ন নিয়ে আবার একজন বৃটিশ ব্যক্তি হবার সিদ্ধান্ত নেন। 

প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছিল যে লন্ডন গত আট বছরে অস্ত্রোপচারের জন্য ২ লক্ষ ৭১ হাজার ডলার খরচ করেছেন। এখন সেই অঙ্কটি ৩ লক্ষ ডলারে গিয়ে দাঁড়িয়েছে। ৩২ বছর বয়সী লন্ডন এখন তাঁর নাক এবং চিবুক নিয়ে মোট ৩২টি অস্ত্রোপচার করেছেন। ওলি বলেন “আমি হঠাৎ বুঝতে পেরেছি, যত বেশি অস্ত্রোপচার করা হয়েছে আমি ততই অসুখী ছিলাম। আমি গির্জায় ঘন্টার পর ঘন্টা কাটিয়ে দিতাম প্রার্থনা করে এবং তারপর আমি বুঝতে পারি যে আমি ভুল করেছি,”। কেন তিনি কোরিয়ান হতে চেয়েছিলেন সে সম্পর্কে কথা বলতে গিয়ে ওলি বলেছেন: "যখন আমি কিশোর ছিলাম তখন আমার চেহারার জন্য আমাকে উত্ত্যক্ত করা হতো। আমার গালে ব্রণ ছিল এবং নাকটা বড় ছিল। মেয়েরা কেউই আমার সাথে ডেট করতে চাইতো না, তারা বলেছিল আমাকে মেয়েদের মতো দেখতে। এসব শুনে আমার শরীর খারাপ হতে শুরু করে এবং শেষ পর্যন্ত আমি হতাশ হয়ে পড়ি।'' ওলি স্বীকার করেছেন যে বিষণ্নতাই তাকে কোরিয়ান সংস্কৃতির প্রতি আচ্ছন্ন করে তুলেছিলো। অবশেষে ওলি বুঝতে পেরেছিলেন যে তার মানসিক স্বাস্থ্য সংকটের ফলে তিনি আত্মহননের দিকে যাচ্ছেন এবং নিজের ভুল শুধরে নেবার চেষ্টা করেন।

সূত্র : টাইমস নাও
 

রকমারি থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

   

রকমারি সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2023
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status