ঢাকা, ২২ জুন ২০২৪, শনিবার, ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৫ জিলহজ্জ ১৪৪৫ হিঃ

রকমারি

দুটি ভোল মাছ বিক্রি হলো ১৮ লাখ ৫০ হাজার টাকায়

স্টাফ রিপোর্টার, খুলনা থেকে

(১ বছর আগে) ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, রবিবার, ১০:৪০ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ৫:৪৭ অপরাহ্ন

mzamin

বঙ্গোপসাগরের দুবলার চর এলাকায় এক জেলের জালে ধরা পড়ে বড় আকারের দু’টি ভোল মাছ। ১৮ লাখ ৫০ হাজার টাকায় মাছ দুটি বিক্রি হয়েছে। এর মধ্যে একটির ওজন ৩৬ কেজি ৫০০ গ্রাম, আরেকটির ওজন ২৭ কেজি।

দুবলার চর থেকে মাছ দু’টি কিনে শনিবার বিকেলে মোংলা মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রে নিয়ে আসেন ‘মেসার্স জয়মনি ফিস’ আড়তের মালিক আল আমিন। এ সময় মাছ দু’টি দেখতে ভিড় জমান উৎসুক লোকজন। এর আগে গত বৃহস্পতিবার রাতে জেলে ফারুক হোসেনের জালে মাছ দু’টি ধরা পড়েছিল।

জেলে ফারুক হোসেন জানিয়েছেন, গত অক্টোবরের প্রথম দিকে দুবলার চরসহ পাঁচটি চরাঞ্চলে শুঁটকির তৈরির মাছ আহরণে যান মোংলার জয়মনির ঘোল এলাকার জেলে ফারুক হোসেন। শুঁটকির মওসুম এখন শেষপর্যায়ে। এতদিন ফারুকের জালে তেমন বড় মাছ ধরা না পড়লেও বৃহস্পতিবার দু’টি বড় ভোল মাছ ধরা পড়ে। ওই দিন শেষরাতে জাল উঠিয়ে মাছ দু’টি দুবলার চরের মৎস্য আড়তে নিলামে তোলা হয়। নিলামে ২০-২৫ জন অংশ নেন। সর্বোচ্চ দরদাতা হিসেবে মোংলা বাজারের মাছ ব্যবসায়ী আল আমিন ১৮ লাখ ৫০ হাজার টাকায় মাছ দু’টি পান।

বিজ্ঞাপন
এর মধ্যে বড় মাছটির ওজন ৩৬ কেজি ৫০০ গ্রাম, দাম পড়েছে ১১ লাখ। ছোট মাছটির ওজন ২৭ কেজি, দাম পড়েছে সাত লাখ ৫০ হাজার টাকা। প্রতি কেজি মাছের দাম পড়েছে ২৯ হাজার ১৩৩ টাকা। 

ব্যবসায়ী আল আমিন জানিয়েছেন, মাছ দু’টি সঠিক পদ্ধতিতে প্রসেসিং ও প্যাকেটজাত করে চট্টগ্রামের মাছের আড়তে পাঠানো হয়েছে। মোংলা মৎস্য সমবায় সমিতির সভাপতি মো. আফজাল ফারাজী বলেন, ‘ভোল মাছ এই অঞ্চলে খুব কম পাওয়া যায়। পশুর নদী বা সুন্দরবন সংলগ্ন নদীতে আগে পাওয়া গেলেও এখন দুর্বৃত্তরা বিষ দিয়ে মাছ ধরায় পাওয়া যায় না। এ জন্য আমাদের আড়তেও আসে না। দুবলার চরে পাওয়া মাছ দুটি আড়তে এসেছে। সেগুলো চট্টগ্রামে পাঠানো হয়েছে। সেখানে আরও বেশি দাম পাওয়া যাবে।’ তিনি বলেন, ‘ভোল মাছের ফুলকি ও পটকার দাম প্রচুর। এই মাছের পটকা ও বালিশ রফতানি হয়। শুনেছি এসব দিয়ে মেডিসিন তৈরি করা হয়।’

সামুদ্রিক ভোল মাছ খুবই দামি উল্লেখ করে মোংলা উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম বলেন, ‘এই মাছের বায়ুথলি দিয়ে এক ধরনের সুতা তৈরি করা হয়। এই সুতা বিদেশে ওপেন হার্ট সার্জারির কাজে লাগে। এছাড়া বিয়ার তৈরির কাজেও ব্যবহৃত হয়।
 

রকমারি থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

   

রকমারি সর্বাধিক পঠিত

মা-বাবার বিরুদ্ধে মামলা/ 'অনুমতি না নিয়েই কেন জন্ম দিয়েছ?'

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2024
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status