ঢাকা, ৩১ জানুয়ারি ২০২৩, মঙ্গলবার, ১৭ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৮ রজব ১৪৪৪ হিঃ

রাজনীতি

৪ঠা ফেব্রুয়ারি বিক্ষোভ সমাবেশের ঘোষণা গণতন্ত্র মঞ্চের

স্টাফ রিপোর্টার

(৫ দিন আগে) ২৫ জানুয়ারি ২০২৩, বুধবার, ৫:৪৪ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ৬:১০ অপরাহ্ন

mzamin

গ্যাস, তেল, বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদসহ সকল রাজবন্দির মুক্তির দাবিতে ৪ঠা ফেব্রুয়ারি রাজধানীসহ সারাদেশে বিক্ষোভ কর্মসূচির ঘোষণা দিয়েছে গণতন্ত্র মঞ্চ। বুধবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে গণতন্ত্র মঞ্চ আয়োজিত সমাবেশে জোটের অন্যতম নেতা ও নাগরিক ঐক্যের সভাপতি মাহমুদুর রহমান মান্না এই ঘোষণা দেন। ১৪ দফা কর্মসূচির ভিত্তিতে যুগপৎ আন্দোলনের অংশ হিসেবে গণতন্ত্র ও ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠার দাবিতে এই সমাবেশের আয়োজন করা হয়। 
সমাবেশে মান্না বলেন, আমাদের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বাঘে ধান খাওয়ার মতো স্বীকার করেছেন, র‌্যাব মানুষ মেরেছে। এসময় তিনি পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বরাত দিয়ে বলেন, ‘মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে কথাবার্তা বলেছি, অবস্থা ঠিকঠাক হয়ে গেছে। এখন থেকে নিষেধাজ্ঞা উঠে যাবে।’ মান্না বলেন, অথচ যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস বিবৃতি দিয়েছে, এমন কোনো কথা তাদের সাথে হয়নি। যে সরকারের টাকা নেই, সেই সরকার আবার কীসের সরকার প্রশ্ন করে তিনি বলেন, এই সরকার এখন ভিক্ষা করার জন্য একবার আইএমএফের কাছে যায়, একবার ওয়ার্ল্ড ব্যাংকের কাছে যায়, একবার এডিবির কাছে যায়। অন্যের কাছে ভিক্ষা করা ছাড়া এই সরকারের এখন বাঁচার কোনো উপায় নেই।
সরকার আগামী শীত পর্যন্ত টিকবে না মন্তব্য করে তিনি বলেন, এই সরকার পুরো বছর টিকে কি না কে জানে। বয়োবৃদ্ধদের সম্পর্কে মানুষ যেমন বলে, এই শীত টিকে কি টিকে না। তেমনি এই সরকারের অবস্থা হচ্ছে, এই শীতে টিকে কি না টিকে। ২০২৩ সাল শেখ হাসিনার পতনকাল।
সমাবেশে সাইফুল হক বলেন, ১৯৭৫ সালের এই দিনে বাকশাল গঠনের মাধ্যমে আওয়ামী লীগের প্রথম রাজনৈতিক পরাজয় ঘটে।

বিজ্ঞাপন
২০১৮ সালের ৩০শে ডিসেম্বর দিনের ভোট রাতে করার মধ্য দিয়ে আওয়ামী লীগের দ্বিতীয় রাজনৈতিক মৃত্যু ঘটে। আওয়ামী লীগ গণতান্ত্রিক ধারার রাজনৈতিক দল থেকে আজ জঙ্গিবাদী মতাদর্শের দ্বারা পরিচালিত মন্তব্য করে তিনি বলেন, জঙ্গিরা যেমন মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকারে বিশ্বাস করে না, মুক্ত গণমাধ্যমে বিশ্বাস করে না, মানুষের বাক স্বাধীনতায় বিশ্বাস করে না, তেমনি আওয়ামী লীগ দমন-পীড়ন করে একটা অনিশ্চয়তার দিকে দেশকে ঠেলে দিয়েছে। এভাবে আওয়ামী লীগ চার বছর ধরে তৃতীয় রাজনৈতিক মৃত্যুর জমিন তৈরি করেছে।
সমাবেশে গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি বলেন, নব্বইয়ের দশক থেকে বিভিন্ন দেশে কর্তৃত্ববাদের চর্চা করা হয়েছে। যেখানে নির্বাচন মোড়ক আকারে থাকবে। নির্বাচন নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা থাকবে, প্রার্থী বাছাই হবে এমন কি টেলিভিশনে তা নিয়ে বিতর্কও হবে। কিন্তু ভোটের দিন মানুষ নির্ধারণ করবে না যে কে নির্বাচিত হবেন। বরং যারা ক্ষমতায় আছেন তারা নির্ধারণ করবে যে কারা ক্ষমতা পাবে। যা আওয়ামী লীগ ’১৮ সালে করেছে এবং এখন বাজারে কথা শুনতে পাই যে, তারা বলেছে আসেন আপনারা আমরা সিট ভাগাভাগি করি। এটা হচ্ছে কর্তৃত্ববাদের মডেল। 
গণঅধিকার পরিষদের সদস্য সচিব নুরুলহক নুর বলেন, যারা দেশ ও দেশের মানুষের জন্য নিজের জীবনকে উৎসর্গ করে জীবন দিয়েছেন তারাও এ রকম একটা রাষ্ট্র দেখতে চায়নি। আজকে মুক্তিযুদ্ধের কথা বলে আওয়ামী লীগ যে প্রীতি নিতে চাচ্ছে সেটা তারা নিজেরাই ধ্বংস করছে। আওয়ামী লীগের উন্নয়নের বালিশ ফুটো হয়ে গেছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, আজকে আওয়ামী লীগ পাঠ্যপুস্তকের মধ্যে ভুল তথ্য ছড়ানোর চেষ্টা করছে। কমলমতী শিশু-কিশোরদেরকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছে। আমাদের এ ব্যাপারে পুরোপুরি সতর্ক থাকতে হবে।
সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন ভাসানী অনুসারী পরিষদের আহবায়ক রফিকুল ইসলাম বাবলু, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জেএসডির সাধারণ সম্পাদক শহীদউদ্দিন মাহমুদ স্বপন প্রমুখ।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

রাজনীতি সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status