ঢাকা, ১৮ জুন ২০২৪, মঙ্গলবার, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১১ জিলহজ্জ ১৪৪৫ হিঃ

রকমারি

অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার দিন হঠাৎ নড়েচড়ে উঠলেন 'মৃত' নারী

মানবজমিন ডিজিটাল

(২ সপ্তাহ আগে) ৩ জুন ২০২৪, সোমবার, ৯:৩২ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ৬:২৮ অপরাহ্ন

mzamin

থাইল্যান্ডে নিজের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় যাওয়ার পথে হঠাৎ জেগে উঠলেন 'মৃত' নারী। ৪৯ বছর বয়সী চাটাপোর্ন শ্রীফোনলাকে হাসপাতাল থেকে উদন থানি প্রদেশে একটি ভ্যানে করে তার বাড়িতে নিয়ে আসা হচ্ছিলো। বান ডাং জেলায় যাওয়ার পথে, ভ্যানে উপস্থিত প্যারামেডিকরা হঠাৎ দেখেন চ্যাটাপোর্ন-এর  শ্বাসপ্রশ্বাস বন্ধ হয়ে গেছে। তারা নিশ্চিত ছিলেন চাটাপোর্ন মারা গেছেন। চাটাপোর্ন-এর বিধ্বস্ত বৃদ্ধ মা মালি আত্মীয়দের ডেকে মেয়ের মৃত্যুর কথা জানান। চাটাপোর্ন দীর্ঘদিন ধরে লিভার ক্যান্সার নিয়ে জীবন সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছিলেন।

শোকাহত পরিবার দ্রুত বৌদ্ধ ঐতিহ্য অনুসরণ করে অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার প্রস্তুতি শুরু করে দেয়। চাটাপোর্ন-এর শেষ কৃত্যের জন্য মন্দিরের কর্মীদের সাথে কথাবার্তাও বলা হয়ে যায়। চাটাপোর্নের মৃতদেহ বহনকারী ভ্যানটিকে তাদের বাড়ি থেকে ওয়াট শ্রী ফাদুং পাত্তানা মন্দিরে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল, যেখানে মৃতদেহটি রাতে রাখার বন্দোবস্ত করা হয়। উপস্থিত আত্মীয়দের অবাক করে হঠাৎ জেগে ওঠেন ৪৯ বছর বয়সী ‘মৃত’ চাটাপোর্ন। মেয়ের অলৌকিক ‘পুনরুজ্জীবন’ দেখে হতবাক হয়ে গেলেও, মালি পরিবারের সাথে এই  সুসংবাদটি ভাগ করে নিতে দেরি করেননি।

বিজ্ঞাপন
এরপর চ্যাটাপোর্নকে বান ডাং ক্রাউন প্রিন্স হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়, যেখানে তিনি  চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধানে রয়েছেন, সঙ্গে রয়েছেন মেয়ের মা। মালি বলছেন, ‘ক্যান্সারের জন্য আমার মেয়ের হাসপাতালে চিকিৎসা চলছিল, কিন্তু ডাক্তাররা আমাদের বলেছিলেন যে তার বেঁচে থাকার সম্ভাবনা খুব কম। আমি চেয়েছিলাম যে সে তার শেষ মুহূর্তগুলো পরিবারের সাথে কাটাক, তাই আমি তাকে আমাদের বাড়িতে ফিরিয়ে নেয়ার ব্যবস্থা করেছিলাম। বাড়ি ফেরার পথে মেয়ের  মৃত্যুর খবর শুনে আমাদের হৃদয় ভেঙে যায়।’ 

আত্মীয়রা বলছেন, তারা এই ঘটনাটি দেখে বিভ্রান্ত হয়েছিলো ঠিকই, কিন্তু মনে মনে বিশ্বাস করেছিল যে চ্যাটাপোর্ন তার মৃত্যুর আগে তার সন্তানদের দেখতে চেয়েছিল। চ্যাটাপোর্নের গল্পটি এই মাসের শুরুতে ইকুয়েডরের একটি ঘটনার সাথে মিলে যায়। যেখানে বছর ৭৬-এর বেলা মন্টোয়া হঠাৎ করে তার কফিনের ভিতরে জেগে উঠেছিলেন। বেলাকে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেছিলেন, কিন্তু কফিনের মধ্যে ঘুম থেকে ওঠার পর তিনি যখন তার কাস্কেটে আঁচড় দিতে শুরু করেছিলেন তখন উপস্থিত অতিথিরা হতবাক হয়ে গিয়েছিলেন। তাকে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়, কিন্তু দুঃখজনকভাবে এই ঘটনার এক সপ্তাহ পরে তিনি মারা যান।

সূত্র : ডেইলি মেইল

রকমারি থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

   

রকমারি সর্বাধিক পঠিত

মা-বাবার বিরুদ্ধে মামলা/ 'অনুমতি না নিয়েই কেন জন্ম দিয়েছ?'

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2024
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status