ঢাকা, ২০ এপ্রিল ২০২৪, শনিবার, ৭ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১০ শাওয়াল ১৪৪৫ হিঃ

রকমারি

ভৌতিক ট্রেন: চালক ছাড়াই ৬২ মাইল বেগে পাড়ি দিলো ৭০ কিলোমিটার পথ

মানবজমিন ডিজিটাল

(১ মাস আগে) ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, বুধবার, ১১:৪৪ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ১২:০৮ পূর্বাহ্ন

mzamin

ভারতে একটি পণ্যবাহী ট্রেন চালক ছাড়া প্রায় ১০০ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা গতিতে অতিক্রম করলো ৭০ কিলোমিটারেরও বেশি পথ। এরপরেই তদন্ত শুরু করেছে রেল কর্তৃপক্ষ। একজন দর্শকের তোলা সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে যে মালবাহী ট্রেনটি একটি স্টেশনের পাশ দিয়ে দ্রুত গতিতে অতিক্রম করছে।  রেলওয়ে বিষয়টি জানার পর  ট্রেনটিকে  থামানো হয়, যদিও  কেউ আহত হয়নি। ভিডিওটি দেখে অনেকেই ভারতীয় রেলের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। ট্রেনটি জম্মু ও কাশ্মীরের কাঠুয়া থেকে পাঞ্জাবের হোশিয়ারপুর জেলা পর্যন্ত চালক ছাড়াই চলছিলো । এটি ছিল একটি ৫৩-ওয়াগন ট্রেন যা চিপ পাথর বহন করছিলো । 

প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে যে কর্মকর্তারা এর সামনের  ট্র্যাকে কাঠের ব্লক স্থাপন করার পরে  সংকট এড়ানো যায় এবং ট্রেনের গতিকে  ধীর করা সম্ভব হয়। ঘটনাটি সামনে আসার পর কর্মকর্তারা এর পথে থাকা সমস্ত রেল ক্রসিংও বন্ধ করে দেন ।

প্রেস ট্রাস্ট অফ ইন্ডিয়া (পিটিআই) প্রকাশ করেছে, ঘটনাটি ঘটেছে স্থানীয় সময় সকাল ৭টা ২৫ থেকে ৯টার মধ্যে। যদিও উচি বাসিতে থামানোর আগে উচ্চগতির ট্রেনটির পাঁচটি স্টেশন অতিক্রম করা হয়ে গেছে। কর্মকর্তারা ব্যাখ্যা করেছেন যে, চালক পাঠানকোট স্টেশনে ট্রেন থামিয়েছিলেন, যেখানে ক্রু পরিবর্তন হওয়ার কথা ছিল।

যখন চালক এবং তার সহকারী ট্রেনটি ছেড়ে চলে যায়, তখন হ্যান্ডব্রেক প্রয়োগ করা হয়নি যার অর্থ এটি ঢালু ট্র্যাক থেকে নীচে নামতে শুরু করে।

বিজ্ঞাপন
এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে যে, কর্মকর্তারা এই ধরণের ত্রুটি এড়াতে সুরক্ষা ব্যবস্থা খতিয়ে দেখছেন। যদিও 'ঘটনার সঠিক কারণ এখনো জানা যায়নি'। 

এই ভৌতিক ট্রেনের ভিডিও ইতিমধ্যেই  এক্সে  ১০০,০০০ এরও বেশি ভিউ সংগ্রহ করেছে। ২০১৮, অনুরূপ একটি ঘটনা ঘটেছিল। যখন ভারতে অন্য একটি  ট্রেন  প্রায় ১০০০ আতঙ্কিত যাত্রীকে নিয়ে  ছয় মাইলেরও বেশি সময় ধরে ফ্রি-হুইলিং শুরু করেছিল। ২২ বগির ট্রেনটিকে  পূর্ব ভারতের ওড়িশা রাজ্যের বালাঙ্গির জেলার তিতলাগড় শহরের একটি স্টেশনের মধ্য দিয়ে দ্রুত গতিতে যেতে দেখা যায়।

স্থানীয় মিডিয়া অনুসারে, সাহসী রেল কর্মীরা ট্র্যাকটি ব্লক করার জন্য পাথর ব্যবহার করার পর এর গতি রুদ্ধ হয়। মর্মান্তিক এই ঘটনায় যদিও সেদিন  কেউ হতাহত হয়নি। দুই দশকের মধ্যে গত বছরই  বিশ্বের সবচেয়ে মারাত্মক ট্রেন বিপর্যয়ের সাক্ষী থেকেছে দেশের মানুষ। ২০২৩ সালের জুন মাসে পূর্ব ভারতের ওড়িশার বালাসোরে দুটি যাত্রীবাহী ট্রেনের সংঘর্ষ হয়, যাতে  ২৮৮ জন মারা গিয়েছিল এবং ৯০০ জন আহত হয়েছিল।  

সূত্র : dailymail.co.uk

রকমারি থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

   

রকমারি সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2024
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status