ঢাকা, ১৪ জুন ২০২৪, শুক্রবার, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৭ জিলহজ্জ ১৪৪৫ হিঃ

বিবিধ

ভারত-সৌদির সম্পর্ক শতাব্দীর নির্ধারক সম্পর্ক 

ডা. সুহেল আজাজ খান

(৯ মাস আগে) ১৯ আগস্ট ২০২৩, শনিবার, ১২:৪৫ পূর্বাহ্ন

ভারতের ৭৭তম স্বাধীনতা দিবসের আনন্দময় উপলক্ষে সব ভারতীয় নাগরিক, ভারতীয় বংশোদ্ভূত ব্যক্তি ও সৌদি আরবে ভারতের বন্ধুদের উষ্ণ শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। দীর্ঘকাল ধরে ভারত ও সৌদি আরবের মধ্যে ঘনিষ্ঠ ও উষ্ণ সম্পর্ক রয়েছে। এই দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক পারস্পরিক শ্রদ্ধা, বিশ্বাস ও সহযোগিতার ওপর ভিত্তি করে প্রতিষ্ঠিত। সৌদি আরবে বসবাস করা ২৪ লাখের বেশি শক্তিশালী ভারতীয় সম্প্রদায় আমাদের দুই মহান দেশের জীবন্ত সেতু। সৌদি আরবের উন্নয়ন গল্পের অবিচ্ছেদ্য অংশ এই ভারতীয় সম্প্রদায়। আমাদের এই ভারতীয় সম্প্রদায়ের সব ধরনের খোঁজ-খবর ও যত্ন নেওয়ায় আমি সৌদি নেতৃত্বকে ধন্যবাদ জানাই। পাশাপাশি আফ্রিকার দেশ সুদান থেকে ভারতীয় নাগরিকদের সরিয়ে নেওয়ার ক্ষেত্রে সহায়তা করায় জন্যও আমি সৌদি আরবকে ধন্যবাদ জানাই। অপারেশন কাবেরির মাধ্যমে সুদানে আটকা পড়া সাড়ে তিন হাজারের বেশি ভারতীয় নাগরিককে উদ্ধার করা হয়। অভিযানে ভারতীয় নৌবাহিনী ও বিমানবাহিনী মূল ভূমিকা পালন করলেও সৌদির সব কর্মকর্তা ও সরকারি সংস্থার চমৎকার সাহায্য-সহযোগিতা ছাড়া এটি সম্ভব হত না। স্বাধীনতার পর থেকে সৌদি আরবের সঙ্গে ভারতের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক ধীরে ধীরে বহুমুখী ও পারস্পরিক উপকারী কৌশলগত অংশীদারিত্বের দিকে বিকশিত হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
সাংস্কৃতিক বিনিময়, প্রতিরক্ষা ও নিরাপত্তা সহযোগিতা, বাণিজ্য ও বিনিয়োগ, স্বাস্থ্যসেবা, প্রযুক্তি, জ্বালানি নিরাপত্তা, খাদ্য নিরাপত্তাসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ খাতে দুদেশের সম্পৃক্ততা রয়েছে। ২০১৬ ও ২০১৯ সালে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সৌদি আরব সফর এবং ২০১৯ সালে সৌদি ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের ভারত সফরের মাধ্যমে এই সম্পর্ক আরও গতি পেয়েছে। ২০১৯ সালে আমরা ভারত-সৌদি আরব কৌশলগত অংশীদারী পরিষদও গঠন করেছি, যা আমাদের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের সব বিষয়ে দেখ-ভাল করে।  এই কাউন্সিল কাঠামোর আওতায় যেসব সুযোগ চিহ্নিত হয়েছে সেগুলো বাস্তবায়নে সৌদি অংশীদারদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ অব্যাহত রাখার বিষয়ে আমরা খুবই আগ্রহী। সৌদি-ভারত সম্পর্কে মানুষে-মানুষে যোগাযোগ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। সৌদি নাগরিকদের জন্য ভারত ই-ভিসা সুবিধা দিয়েছে। আর সৌদি আরব ভ্রমণে ইচ্ছুক ভারতীয় নাগরিকদের জন্য রয়েছে অনেক ভিসা অপশন। এসব সুবিধা শুধু পর্যটন ও ব্যবসায়িক ভ্রমণ বাড়াবে না, দুদেশের জনগণের মধ্যে যোগাযোগকে আরও ত্বরান্বিত করবে। সম্প্রতি বেশ কিছু ভারতীয় সাংস্কৃতিক দল ও বলিউড তারকা সৌদি আরব সফর করেছেন। ভারতীয় জাতীয় ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ সন্তোষ ট্রফির এবারের সেমিফাইনাল ও ফাইনাল ম্যাচ আয়োজন করেছে সৌদি আরব। চলতি বছরের শুরুতে সৌদি শিল্পীরা সুরজকুন্ড উৎসবে অংশ নিয়েছিলেন। বলিউডের বিভিন্ন সিনেমার শুটিংয়ের জন্য সৌদি আরবও পছন্দের গন্তব্য হয়ে উঠছে। যোগব্যায়াম ও ক্রিকেট সৌদিতে জনপ্রিয় হচ্ছে। এসব বিষয় আমাদের একসঙ্গে কাজ করার আরও সুযোগ দেবে। সাম্প্রতিক বছরে ভারত-সৌদি দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্যিক সম্পর্কেও অভূতপূর্ব গতি এসেছে। ২০২২-২৩ অর্থবছরে সৌদি আরব থেকে ভারতের আমদানি ৪২ দশমিক ০৩ বিলিয়ন ডলারে পৌঁছেছে এবং সৌদি আরবে আমাদের রপ্তানি ১০ দশমিক ৭২ বিলিয়ন ডলার। হিসাব অনুযায়ী, তা আগের বছরের তুলনায় ২২ দশমিক ৪৮ শতাংশ বেড়েছে। ইঞ্জিনিয়ারিং পণ্য, পেট্রোলিয়াম পণ্য, রাসায়নিক, সিরিয়াল ও খাদ্যপণ্যের মতো জিনিস সৌদি আরবে রপ্তানি করে আসছে ভারত। আর ভারতে সৌদির রপ্তানির মধ্যে রয়েছে জ্বালানি, সার, রাসায়নিক ও প্লাস্টিক। ভারত সৌদি আরবের দ্বিতীয় বৃহত্তম বাণিজ্য অংশীদার এবং ভারতের চতুর্থ বৃহত্তম বাণিজ্যিক অংশীদার হলো সৌদি। সৌদির ভিশন-২০৩০ এবং ভারতের ‘আত্মনির্ভর ভারত’ উদ্যোগের মাধ্যমে দুদেশের বাণিজ্যিক কর্মকাণ্ড আরও বিভিন্ন খাতে সম্প্রসারিত হয়েছে।  দুই হাজারের বেশি ভারতীয় কোম্পানি সৌদি আরবে রয়েছে। এই দেশের বিপুল অর্থনৈতিক সুযোগ থেকে তারা উপকৃত হচ্ছে। দুই দেশের নেতাদের ভিশন অনুযায়ী বিস্তৃত দ্বিপক্ষীয় অর্থনৈতিক অংশীদারিত্ব বিকাশে কাজ করছে ভারতীয় দূতাবাস। প্রচলিত শক্তিশালী জ্বালানি অংশীদারিত্ব ছাড়াও দুই দেশই নবায়নযোগ্য জ্বালানি, খনিজ অনুসন্ধান, ফিনটেক প্রকল্প, গ্রিন হাইড্রোজেন, টেকসই বিল্ডিং উপকরণ ও স্টার্ট-আপের মতো নতুন নতুন ক্ষেত্রে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক প্রসারিত করার বিষয়ে আগ্রহী। এই বছর ভারত ও সৌদির প্রতিরক্ষা সহযোগিত আরও সুসংহত হয়েছে। এবার দুই দেশ সর্বকালের সবচেয়ে বেশি উচ্চপর্যায়ের সম্পৃক্ততা দেখেছে, যা আমাদের  দুই মহান দেশের শক্তিশালী বন্ধন ও পারস্পরিক আস্থার প্রতীক। গত মে মাসে দ্বিতীয় ‘আল-মোহেদ আল-হিন্দি’ নৌমহড়া করেছে ভারত ও সৌদি আরব। এই বছর ভারতীয় নৌবাহিনীর ১০টি জাহাজ সৌদির বিভিন্ন বন্দর পরিদর্শন করেছে। বছরের শুরুতে প্রথমবারের মতো ভারতীয় যুদ্ধবিমান সৌদি আরবে গেছে। দুদেশের প্রতিরক্ষাবিষয়ক শিল্প প্রতিষ্ঠানও সহযোগিতার জন্য বিভিন্ন ক্ষেত্রের সন্ধান অব্যাহত রেখেছে। এ ছাড়া এই বছর জি-২০ নিয়ে দুদেশের সম্পৃক্তা আরও বেড়েছে। ভারত চলতি বছর এই সংস্থাটির সভাপতির দায়িত্ব পালন করছে। ফলে বিভিন্ন সভায় যোগ দিতে সৌদির বিভিন্ন মন্ত্রী ও সরকারি কর্মকর্তা ভারত সফর করেছেন। আগামী সেপ্টেম্বরে জি-২০-এর শীর্ষ সম্মেলন সৌদির যোগদানের অপেক্ষায় আছি আমরা। সৌদি আরবে নিযুক্ত ভারতের রাষ্ট্রদূত হিসেবে এই অংশীদারিত্বকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যেতে পেরে আমি নিজেকে অত্যন্ত সৌভাগ্যবান মনে করছি। আমার দৃঢ় বিশ্বাস, ভারত-সৌদি আরবের দ্বিপক্ষীয় সহযোগিতার সম্পর্ক এই শতাব্দীর নির্ধারক সম্পর্ক হবে। লেখক:  সৌদি আরবে নিযুক্ত ভারতের রাষ্ট্রদূত।

বিবিধ থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

   

বিবিধ সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2024
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status