ঢাকা, ২৭ জুন ২০২২, সোমবার, ১৩ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৬ জিলক্বদ ১৪৪৩ হিঃ

অনলাইন

চাঁদপুরের সেই ডিসিকে আচমকা বদলি

অনলাইন ডেস্ক

(১ মাস আগে) ১৯ মে ২০২২, বৃহস্পতিবার, ৭:৪৫ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ১২:৪৩ অপরাহ্ন

চাঁদপুরের জেলা প্রশাসকসহ (ডিসি) চার জেলায় ডিসি পরিবর্তন করা হয়েছে। এর মধ্যে চাঁদপুরের বহুল আলোচিত জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিসকে নেত্রকোনার জেলা প্রশাসক হিসাবে বদলি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের প্রজ্ঞাপনে এ সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়।

১৪ মাসের মাথায় ওই বদলী নিয়ে প্রশাসনের অন্দরমহলে অন্তহীন কানাঘুষা চলছে। চাঁদপুরে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির ভাইসহ আওয়ামী লীগের একাধিক নেতাকর্মীর জমি দখলের বিরুদ্ধে অবস্থানের জন্য আলোচিত ছিলেন ডিসি অঞ্জনা খান মজলিস। দীপু মনির ভাই জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি জাওয়াদুর রহিম ওয়াদুদ ওরফে টিপুসহ বেশ কয়েকজন নেতা-কর্মী ভুয়া দলিলের মাধ্যমে ৪৮ একরের বেশি জমির দখল নেন।

জেলার হাইমচরের নীলকমল ইউনিয়নের বাহেরচরে আছে এসব জমি। তারা পরে সেখানে মাছের ঘের, গবাদিপশুর খামার ও সবজিবাগান গড়ে তোলেন। ওই এলাকার নাম বদলে নিজের নামে ‘টিপুনগর’ নামকরণ করেন। বিষয়টি তুমুল সমালোচনার সৃষ্টি করে। এ দখলের ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে গত ২৮ এপ্রিল চাঁদপুরের হাইমচর উপজেলার টিপুনগরের খাসজমি উদ্ধারে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে আদালতে মামলা করা হয়। মামলায় জাওয়াদুর রহিম ওয়াদুদসহ ২৫ জনকে আসামি করা হয়।

বিজ্ঞাপন
৩১ মে মামলার শুনানির তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে। জাওয়াদুর রহিম সরকারি যে জায়গা কবজায় নিয়ে ঘের-খামার করেছেন, সেটি হাইমচর উপজেলার ৪ নম্বর নীলকমল ইউনিয়নের বাহেরচরে পড়েছে। এর আগে চাঁদপুরে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের জন্য ভূমি অধিগ্রহণের নামে প্রভাবশালী একটি মহল সরকারের কাছ থেকে ৩৫৯ কোটি টাকার বেশি কারসাজি করে। জমির অস্বাভাবিক মূল্য দেখে জেলা প্রশাসন ভূমি অধিগ্রহণের জন্য ১৩ সদস্যের কমিটি করে দেয়। সেই কমিটির প্রতিবেদনে কারসাজির ঘটনা ধরা পড়ে। জেলা প্রশাসক গত ১৬ নভেম্বর এ অনিয়মের বিষয়টি ভূমি মন্ত্রণালয়ের সচিবকে লিখিতভাবে জানান। 
অঞ্জনা খান মজলিস গত বছরের ১লা মার্চ চাঁদপুরের ডিসি হিসেবে যোগ দেন। এর ১৪ মাসের মাথায় তাঁকে সেখান থেকে বদলি করা হলো। বৃহস্পতিবার সরকারি এক প্রজ্ঞাপনে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর একান্ত সচিব কামরুল হাসানকে চাঁদপুরের ডিসি করা হয়েছে। এ ছাড়া জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের উপসচিব সাহেলা আক্তারকে শেরপুরের ডিসি, কক্সবাজার জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (উপসচিব) শ্রাবন্তী রায়কে জামালপুরের ডিসি করা হয়েছে।

পাঠকের মতামত

জনাব মতিউর রহমান নিজামী যেদিন কৃষি মন্ত্রনালয়ের দায়িত্ব নিয়েছিলেন সেদিন থেকে শেষ পর্যন্ত ঐ মন্ত্রণালয়ে আয়-ব্যায়ের পরিমান কত হয়েছিল সেটা আমাদের মনে কাছাকাছি একটি ধারণা আছে। এমন কিভাবে সম্ভব? জামায়াত যেদিন সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে সেদিন পিটানোর প্রয়োজন হবে না ব্যাক্তিত্বের প্রভাবের ফলে ৬৪ জন সৎ ডিসি জাতী উপহার পাবে ইনশাল্লাহ।

Polash
২১ মে ২০২২, শনিবার, ৪:৫৭ অপরাহ্ন

উনি একজন সম্ভ্রান্ত পরিবারের সন্তান । ওনাকে যেখানেই পদায়ন করা হোক সততাই হবে ওনার সবচেয়ে বড় হাতিয়ার । এবার নেত্রকোনার অসৎ-রা সাবধান ।

MMIP
২১ মে ২০২২, শনিবার, ৫:৪৩ পূর্বাহ্ন

স্যালুট,ডিসি, স্যার কে, আশা রইলো এখানেও কোনো এক দুর্নীতিবাজ রাঘব বোয়ালকে ধরে দেশ ও জন গণের সামনে তার কু কীর্তি প্রকাশ করে সততার দৃষ্টান্ত স্থাপন করবেন, 64জেলায় যদি এমন 64জন ডিসি স্যার থাকতো ,তাইলে বঙ্গ বন্ধুর সোনার বাংলা আরো আগেই তৈরি হয়ে যেতো, দোয়া করি ডিসি স্যারকে আল্লাহ সুস্থ সুন্দর,ও হেফাজতে রাখুন,এবং দেশ ও মানবতার কল্যাণে কাজ করার তওফিক দান করুক,,,আমিন,,,

MD mobinul islam
২১ মে ২০২২, শনিবার, ২:৫৫ পূর্বাহ্ন

আমরা নিতি বান।

Arshad
২১ মে ২০২২, শনিবার, ১২:১৯ পূর্বাহ্ন

কি হচ্ছে এই দেশে ? গুটি কয়েক লোকের কাছে সারা দেশের মানুষ আজ জিম্মি হয়ে আছে । যাকে যেখানে দায়িত্ব দেয়া হচ্ছে সে সেখানে লুটেপুটে খাচ্ছে । দেখার কেউ নেই । হাতে গোনা কিছু ভালো মানুষ আছেন যারা নিজের সামর্থ্য অনুযায়ী মাঝে মাঝে চেষ্টা করছেন যদি দেশটাকে খাদকদের হাত থেকে বাঁচানো যায় । কিন্তু সেটা হচ্ছে কই । দেশ খাদকদের কাছে যাওয়ার আগেই হয় বদলি হতে হচ্ছে,নয়তো বরখাস্ত হতে হচ্ছে আবার কখনও কখনও বিভিন্ন ভাবে হয়রানি করা হচ্ছে । এমন চলতে থাকলে খুব তারাতারি দেশ শ্রীলঙ্কার মতো দেউলিয়া হবে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না । লুটতরাজরা যেন ভুলে না যায় যে জনগণের মার কেওরা তলা পার । সে দিন আর বেশি দূরে নয় ।

Ramjan Ali
২০ মে ২০২২, শুক্রবার, ১১:৩৯ অপরাহ্ন

রেলের টিটি আর চাদপুরের ডিসি একই, ক্ষমতার নগ্ন প্রকাশ।

নুর মোহাম্মদ
২০ মে ২০২২, শুক্রবার, ৭:১১ অপরাহ্ন

valo kage korle bnp jamat r rajaker. r kharaf kage korele..... ha ha ha.

SHAJU
২০ মে ২০২২, শুক্রবার, ৬:২০ পূর্বাহ্ন

এটাই কি হওয়া উচিত ছিল? তাহলে আর ডিসির দরকার কি?

বি নাথ
২০ মে ২০২২, শুক্রবার, ৪:১৪ পূর্বাহ্ন

নীতিবানের খাওয়া নাই।সময় খারাপ হলে সাদা কাপরেও রং ওঠে।

Uttom kumar
২০ মে ২০২২, শুক্রবার, ২:১১ পূর্বাহ্ন

Sad news. ভালো থাকুক খারাপ লোকগুলো

Mehedi Hasan
২০ মে ২০২২, শুক্রবার, ২:০২ পূর্বাহ্ন

ইচ্ছাকৃত বদলী করালেও যুক্তি একটাই প্রশাসনিক সুবিধার জন্য বদলি।

srkhan
১৯ মে ২০২২, বৃহস্পতিবার, ১০:১৩ অপরাহ্ন

সাধু সাবধান!এই দিন নিয়ে যাবে সেইদিনের সাথে।

srkhan
১৯ মে ২০২২, বৃহস্পতিবার, ১০:০৭ অপরাহ্ন

Valo kajer Kono dam nei

Unknown
১৯ মে ২০২২, বৃহস্পতিবার, ৯:৪৩ অপরাহ্ন

দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে নয়। ভালো কাজের মূল্য নেই সততার দাম নেই । খুব দুঃখ লাগল। তারপরেও দেখি কি হয়।

মোঃ ইফতে খারুল আলম
১৯ মে ২০২২, বৃহস্পতিবার, ৮:৫২ অপরাহ্ন

বাঘ যেখানে থাকে তাকে বাঘ নামেই ডাকা হয়। আপনকে সন্মান করি।

মোঃ মোসলেহ উদ্দিন
১৯ মে ২০২২, বৃহস্পতিবার, ৮:২৯ অপরাহ্ন

This DC Perfect for Bangladesh.

Bablu
১৯ মে ২০২২, বৃহস্পতিবার, ৬:৪৭ অপরাহ্ন

"Honesty is the best policy " going to the museum?

No name
১৯ মে ২০২২, বৃহস্পতিবার, ৮:২৭ পূর্বাহ্ন

চারদিকে লুটেরাদের জয়ধ্বনি আর সৎ মানুষেরা কোনঠাসা ?

Md ripon nabuat
১৯ মে ২০২২, বৃহস্পতিবার, ৭:৩৪ পূর্বাহ্ন

She must be a BNP-Jamaat supporter and a razakar!

Hasan Kader
১৯ মে ২০২২, বৃহস্পতিবার, ৭:২০ পূর্বাহ্ন

Time has come to see more episodes.

Anisur rahman , Otta
১৯ মে ২০২২, বৃহস্পতিবার, ৭:১৬ পূর্বাহ্ন

We all know the reasons for her transfer.

Nam Nai
১৯ মে ২০২২, বৃহস্পতিবার, ৭:০৮ পূর্বাহ্ন

দেশটা তাদের। সুতরাং অন্যরা হুশিয়ার। সারোয়ার, মিলনদের থেমে দেয়া হয়েছে। শরিফুলকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে। ব্যাস, লুটেরাদের স্বর্গ। জিনিসপত্রের দাম বাড়িয়ে আমার পকেটের টাকা কেটে আমাকে ধার-দেনা বিব্রত করে পদ্মা সেতু একটা করে অনেক আনন্দ! অনেককে পদ্মা নদীতে চুবিয়ে দেয়ার হুমকি।

তৌহিদ
১৯ মে ২০২২, বৃহস্পতিবার, ৭:০২ পূর্বাহ্ন

অনলাইন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

অনলাইন থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com