ঢাকা, ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, মঙ্গলবার, ২৪ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৫ রজব ১৪৪৪ হিঃ

দেশ বিদেশ

শেষ মুহূর্তে রিটার্ন জমা দিতে উপচে পড়া ভিড়

অর্থনৈতিক রিপোর্টার
২৮ নভেম্বর ২০২২, সোমবার

আয়কর রিটার্ন জমা দেয়ার সময় শেষ হচ্ছে চলতি মাসেই। সেই হিসেবে চলমান করাঞ্চলে সেবা মাসও শেষ সপ্তাহে গড়িয়েছে। গত সপ্তাহ পর্যন্ত রিটার্ন জমা দিতে করাঞ্চলে আসা করদাতাদের অংশগ্রহণ অনেকটাই ঢিলেঢালা ছিল। তবে গতকাল থেকে করদাতাদের ভিড় বাড়ছে। তাদের অধিকাংশ নিয়মিত ও তরুণ করদাতা। গতকাল রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ১, ৫, ৭, ৮, ১০ ও ১১ নম্বর কর অঞ্চল ঘুরে দেখা গেছে, সকাল থেকেই করাঞ্চলের বুথগুলোয় রিটার্ন জমা দিতে ভিড় করেন করদাতারা। তাদের মধ্যে ছিলেন তরুণ, বয়স্ক, নারী, পুরুষ নির্বিশেষে বিভিন্ন পেশার মানুষ। যদিও সরকারি চাকরিজীবীদের সংখ্যা ছিল অনেক। জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) তথ্যানুযায়ী, বর্তমানে দেশে প্রায় ৮০ লাখ টিআইএনধারী আছেন। গত মঙ্গলবার পর্যন্ত প্রায় সোয়া ৯ লাখ করদাতা রিটার্ন জমা দিয়েছেন।

বিজ্ঞাপন
  নারায়ণগঞ্জ থেকে গতকাল সকালে আয়কর রিটার্ন জমা দিতে সেগুনবাগিচায় আসেন মমতাজ বেগম। এই প্রথমবার রিটার্ন জমা দিতে আসা মমতাজ বেগম বলেন, সঞ্চয়পত্রের জন্য টিআইএন খুলতে হয়েছিল। যেহেতু টিআইএন থাকলে রিটার্ন জমা দিতে হয়, সে জন্যই এসেছি।  সরকারের সাবেক যুগ্ম সচিব জহির উদ্দিন ক্র্যাচে ভর দিয়ে আসেন আয়কর রিটার্ন জমা দিতে। দেড় দশক ধরে নিয়মিত রিটার্ন জমা দিচ্ছেন তিনি। শুরুতে দুই বছর এক আইনজীবীর মাধ্যমে রিটার্ন জমা দিয়েছিলেন। তবে সেটা জটিল মনে হওয়ায় এরপর থেকে নিজেই জমা দিতে আসেন। জহির উদ্দিন বলেন, আমার কাছে মনে হয়, নিজে রিটার্ন জমা দিতে আসা ভালো। এতে কোনো ভুল হলে সরাসরি জানা যায়। ঠিকও করা যায়। পরে এটা নিয়ে জটিলতা হয় না। জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ১০ নম্বর কর অঞ্চলে ২৩ হাজার ৯৮১ জনের রিটার্ন জমা হয়েছে। এর মাধ্যমে আয়কর আদায় হয়েছে ৩২ কোটি ১৫ লাখ টাকা। শুধু গত বৃহস্পতিবারে রিটার্ন জমা হয়েছে ২ হাজার ৬৬৫ জনের। কর অঞ্চল-১০ এর পরিদর্শক আমির হোসেন জানান, রিটার্ন জমাকারীর সংখ্যা আগের চেয়ে অনেক বেড়েছে। গত বৃহস্পতিবারের তুলনায় গতকাল দুপুর পর্যন্ত ৫০ শতাংশ বেশি রিটার্ন জমা পড়েছে। তিনি বলেন, আমাদের এখানে রিটার্ন ফরম আছে, চালানের কাগজ আছে। এ ছাড়া তথ্যকেন্দ্র থেকে সার্বক্ষণিক সহায়তা করা হচ্ছে করদাতাদের। আর সব কাগজ ঠিক থাকলে দুই মিনিটেই কাজ শেষ হয়ে যাচ্ছে। জমাকারীদের অনেকেই আবার অন্যের হয়ে রিটার্ন জমা দিতে এসেছেন। বড় বোনের আয়কর রিটার্ন জমা দিতে এসেছেন স্নাতকের শিক্ষার্থী আফরোজা খানম। তিনি বললেন, বড় বোন কর্মস্থলে থাকায় নিজে আসতে পারেননি। তবে তিনি সব কাগজ পূরণ করে দিয়েছেন। এখানে আসার পর পাঁচ মিনিটে রিটার্ন জমা দিতে পেরেছি। প্রসঙ্গত, গত নভেম্বর দেশের প্রতিটি কর অঞ্চলে করদাতাদের জন্য সেবাকেন্দ্র চালু করা হয়। সেখানে রিটার্ন জমার পাশাপাশি রিটার্ন ফরম পূরণে সহায়তা দেয়া হচ্ছে। রিটার্ন জমার সঙ্গে সঙ্গে তাৎক্ষণিকভাবে রিটার্ন জমার প্রাপ্তিস্বীকারপত্রও পাচ্ছেন করদাতারা। এ ছাড়া ই-রিটার্ন জমা দিতে আগ্রহী করদাতাদের জন্য আছে আলাদা বুথ।

দেশ বিদেশ থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

দেশ বিদেশ সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status