ঢাকা, ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, বুধবার, ২৫ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৬ রজব ১৪৪৪ হিঃ

প্রথম পাতা

ইকুয়েডরের বিশ্বকাপ হিরো ভ্যালেন্সিয়াকে মাঠেই গ্রেপ্তার করতে চেয়েছিল পুলিশ

কাতার থেকে প্রতিনিধি
২২ নভেম্বর ২০২২, মঙ্গলবারmzamin

ইকুয়েডরের বিশ্বকাপ হিরো ভ্যালেন্সিয়া একবার মাঠেই গ্রেপ্তার হতে যাচ্ছিলেন। ২০১৬ সালের অক্টোবরে একটি আন্তর্জাতিক ম্যাচে মাঠ ছাড়তে হয়েছিল তাকে। কাতার বিশ্বকাপে স্বাগতিকদের ২-০ গোলে হারায় ইকুয়েডর। আর দুটি গোলই করেন ভ্যালেন্সিয়া। ভিএআর-এ চেক না করলে হয়তো তিনি হ্যাট্রিকই করে ফেলতেন। তার গ্রেপ্তারি পরোয়ানার গল্পটা অনেকটা পাগলামির। চিলির বিপক্ষে খেলার সময় ৮২ মিনিটে ইনজুরির নাটকটি তিনি মঞ্চস্থ করেছিলেন। তাকে একটা প্যারামেডিক গাড়িতে করে মাঠের বাইরে নিয়ে যাওয়া হয়। হঠাৎ দেখা যায় বেশ কিছু লোক তার গাড়ির পেছনে দৌড়াচ্ছে। স্টেডিয়াম থেকে বেরোনোর জন্য দ্রুতগতিতে ড্রাইভ করছে।

বিজ্ঞাপন
তাকে অনুসরণকারী হলো পুলিশ। তারা গ্রেপ্তারি পরোয়ানা কার্যকর করতে চায়। কারণ ভ্যালেন্সিয়া তার ৫ বছর বয়সী কন্যা বেইরার জন্য রক্ষণাবেক্ষণের  অর্থ বকেয়া রেখেছিলেন। ভ্যালেন্সিয়া এখন চার সন্তানের জনক। তিনি নিজে যখন শিশু ছিলেন তখন তার পরিবারে অর্থকষ্ট ছিল। খাবার কেনার টাকা থাকতো না। দুধ বিক্রি আর গাভী দোহন করে অতিরিক্ত আয় করছিলেন। ২০০৮ সালে তিনি শীর্ষ ক্লাব এমেলেকে চলে যান। সেখানেও তাকে লড়াই করতে হয়েছে। টাকা বাঁচাতে প্রায়ই সকালের নাস্তা বাদ দিতেন। তার নিজের থাকার ব্যবস্থাও ছিল না। তাই তিনি প্রায়ই স্টেডিয়ামে ঘুমাতেন। যেখানে তরুণদের জন্য কয়েকটি কক্ষ ছিল। এর ছয় বছর পরেই তার ভাগ্য খুলে যায়। জায়গা করে নেন ইংল্যান্ডের অন্যতম ক্লাব ওয়েস্টহ্যাম ইউনাইটেডে। এরপর থেকে দারিদ্র্য আর তাকে স্পর্শ করতে পারেনি। ২০২০ সালে যখন তিনি মেক্সিকো ক্লাব টাইগ্রেস থেকে তার বর্তমান ক্লাব ফেনারবাহেসে যাচ্ছিলেন তখন আটজন লোক তার বোনকে অপহরণ করেছিল। আসলে তারা তার শ্যালককে অপহরণ করতে চেয়েছিল। কিন্তু সে পাশের নদীতে ঝাঁপ দিয়ে নিজেকে বাঁচাতে সক্ষম হয়। অপহরণকারীরা তার বোনকে জঙ্গলে লুকিয়ে রেখে মোটা অংকের টাকা দাবি করেছিল। দশদিন পর বিশেষ পুলিশ তাকে অক্ষত অবস্থায় মুক্ত করে। ভ্যালেন্সিয়ার জীবন বেশ  ঘটনাবহুল। এখন তিনি বিশ্বকাপে ইকুয়েডরের সব গোলের নায়ক। সবাই তাকে নিয়ে নতুন স্বপ্ন দেখছে।
 

 

 

প্রথম পাতা থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

প্রথম পাতা সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status