ঢাকা, ২৮ নভেম্বর ২০২২, সোমবার, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিঃ

অনলাইন

টুকুর বক্তব্য অশালীন: জামায়াত

স্টাফ রিপোর্টার

(২ মাস আগে) ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, মঙ্গলবার, ৭:২৪ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ১২:০৬ পূর্বাহ্ন

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু বলেছেন, আওয়ামী লীগের সঙ্গে জামায়াতের ‘পরকীয়া প্রেম চলছে’। তবে বিএনপি নেতার এমন বক্তব্যকে ‘অশালীন’ বলেছে জামায়াতে ইসলামী। মঙ্গলবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল আবদুল হালিম বলেন, ‘২৬ সেপ্টেম্বর বিএনপির এক সমাবেশে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু জামায়াতে ইসলামী সম্পর্কে রাজনৈতিক শিষ্টাচারবহির্ভূত যে অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য প্রদান করেছেন, তা দেশবাসীকে বিস্মিত করেছে। এটি কোনো রাজনীতিবিদের ভাষা হতে পারে না। তার এ বক্তব্য স্বৈরাচারী শাসনকে প্রলম্বিত করার ক্ষেত্র তৈরি করবে।

এরআগে গত সোমবার এক সমাবেশে ইকবাল হাসান মাহমুদ বলেছেন, ‘আওয়ামী লীগের মুখে প্রায়ই শুনি, যেটা বুলি হয়ে গেছে। তারা প্রায়ই বলে, বিএনপি-জামায়াত, বিএনপি-জামায়াত। আমি বলছি, এখন সময় এসেছে আওয়ামী-জামায়াত, আওয়ামী-জামায়াত বলার। জামায়াতও উর্দু, আওয়ামী লীগও উর্দু দুটো একসঙ্গে মিলবে ভালো। কেননা, ওনারা (আওয়ামী লীগ) জামায়াতের নিবন্ধন বাতিল করে, কিন্তু বেআইনি ঘোষণা করে না। তাহলে কি আমি বলব, ওনাদের পরকীয়া প্রেম চলছে!’

ইকবাল হাসান মাহমুদের বক্তব্যের নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল আবদুল হালিম বলেন, জামায়াতের নিবন্ধন বাতিল ও বেআইনি ঘোষণাসংক্রান্ত বিষয়ে টুকুর কথা ও মর্মবেদানায় জনগণের মধ্যে প্রশ্নের সৃষ্টি হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
কার স্বার্থে এবং কাকে সন্তুষ্ট করার জন্য তিনি এ বক্তব্য দিয়েছেন। তিনি বলেন, জামায়াতে ইসলামী কখনো কোনো আপস, গোপন ও ষড়যন্ত্রের রাজনীতিতে বিশ্বাস করে না এবং করার প্রশ্নই আসে না।

পাঠকের মতামত

We are seen 1986 & 1996 jamat & bal friendship.

Shahab
২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, মঙ্গলবার, ৮:২৯ পূর্বাহ্ন

'জামায়াত' একটি আরবি শব্দ। কুরআনুল কারিমের অনেক জায়গায় 'জামায়াত' শব্দটি উল্লেখ করা হয়েছে। ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকুর জ্ঞানের বহর দেখে বিস্মিত হলাম। বিএনপিতে এজাতীয় লোক আছে বিধায় আজকের এই দশা। যে মুহূর্তে সকল গনতান্ত্রিক দল যুগপৎ আন্দোলনের কর্মসূচি ঘোষণার পরিকল্পনা করার কাজে ব্যস্ত ঠিক তখন টুকু সাহেবের অর্বাচীন বক্তব্য বিরোধী শিবিরে অনৈক্য সৃষ্টি করবে। বিএনপির মহাসচিবের হস্তক্ষেপ জরুরি হয়ে পড়েছে। কিছুদিন আগে জামায়াতে ইসলামীর আমীর ডাক্তার শফিকুর রহমানের বক্তব্যে জানা গেলো জোট যেহেতু প্রায় অকার্যকর তাই জামায়াতে ইসলামী জোটের মধ্যে থাকার চেয়ে যুগপৎ আন্দোলনকেই যুক্তিযুক্ত মনে করেন। তার কয়েকদিন পরেই বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাহেবকে সাংবাদিকরা এবিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বিষয়টি সম্পূর্ণ এড়িয়ে যান। জামায়াত বিএনপির সম্পর্ক বর্তমানে স্পর্শকাতর অবস্থায় দাঁড়িয়ে আছে। জামায়াতে ইসলামী ১৯৯৬ সালের নির্বাচনে বিএনপিকে সহায়তা করেনি এবং ২০০১ সালের নির্বাচনে বিএনপি ও জামায়াত জোটবদ্ধ নির্বাচন করেছে। এদুটো নির্বাচনের ফলাফলে প্রথমটায় বিএনপির বিপর্যয় আর দ্বিতীয়টায় একক সংখ্যা গরিষ্ঠ ভূমিধস বিজয় সকলের জানা আছে। ২০০৮ সালের নির্বাচনে দেশী-বিদেশী কলাকুশলীদের গভীর ও সুক্ষ্ম ম্যাকানিজম এবং মিডিয়া ক্যু সফল না হলে জামায়াত বিএনপির বিজয় ছিনিয়ে নেয়া সহজ ছিলোনা। সেজন্যই জামায়াত বিএনপির ঐক্য ধূলিসাৎ করার নিরন্তর আয়োজন চলছে। ঐক্যে ফাটল ধরানো সম্ভব নয় বুঝতে পেরে প্রথমে জামায়াত নির্মূলের কাজ শুরু করা হয় ; এরপর বিএনপিকে ধরা হয়। বাংলাদেশের জনগণের মনস্তত্ত্বকে বিশ্লেষণ করলে দেখা যায়, জনগণ ধার্মিক এবং জাতীয়তাবাদে বিশ্বাসী। বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদ বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান প্রবর্তন করেন। আর জামায়াতে ইসলামীর রাজনীতি হচ্ছে ধর্মবিশ্বাসের ওপর ভিত্তি করে। সেইজন্য যখনই জামায়াতে ইসলামী এবং বিএনপির মধ্যে ঐক্য প্রতিষ্ঠিত হয়েছে জনগণের নিরঙ্কুশ সমর্থন নিয়ে বিজয় সুনিশ্চিত হয়েছে। আর, এজন্যই দেখা যায় জাতীয়তাবাদ এবং ইসলামী শক্তির ঐক্য ভাঙ্গার জন্য বিশাল বিশাল প্রকল্প নিয়ে দেশী-বিদেশী কলাকুশলীদের রাত দিনের ঘুম হারাম হয়ে যায়। যারা জাতীয়তাবাদ এবং সরাসরি ইসলামী আদর্শ ধারণ করেনা নির্বাচনে দেশী-বিদেশী চক্রান্ত ও হস্তক্ষেপ দরকার পড়ে। বিএনপি এখন একটি কঠিন সন্ধিক্ষণে। এখন তাঁদের বাঁচা মরার প্রশ্ন। গতকাল প্রথম আলোর সঙ্গে একটি সাক্ষাতকারে বিএনপির মহাসচিবও বিষয়টা বলেছেন বিএনপি বাঁচা মরার লড়াই করছে। আর জামায়াতে ইসলামী একটি ক্যাডার ভিত্তিক দল। সামরিক শাসক আইয়ুব খান দুই বার এবং স্বাধীনের পরে জামায়াতে ইসলামীকে নিষিদ্ধ করেছিলো। বহু চড়াইউৎড়াই পেরিয়ে জামায়াতে ইসলামী আজকে জনগণের কাছের দলে পরিণত হয়েছে। জামায়াতের আজকের যে বিপর্যয় তা বিএনপির জন্যই হয়েছে। বিএনপির সাথে ঐক্য গড়ে জামায়াতে ইসলামী বিএনপিকে ক্ষমতায় বসিয়েছে। '৯১ তে জামায়াত সমর্থন না দিলে ইহজন্মে বিএনপি ক্ষমতার মুখ দেখতোনা। বহুদিন থেকে জনমুখে কথা চালু আছে বিএনপির ভেতর আওয়ামী লীগের ঘর আছে। ওই ঘর থেকে আওয়ামী লীগের পক্ষে কাজ করা হয়। যে মুহূর্তে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম সকল বিরোধী দলেকে যুগপৎ আন্দোলনের আহ্বান করছেন সে মুহূর্তে ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকুর বিরোধী শক্তির ঐক্য ভাঙ্গার প্রকল্প প্রমাণ করে তিনি বিএনপির রাজপ্রাসাদে আওয়ামী কুঁড়েঘর তৈরি করে বসে আছেন। বিরোধী রাজনীতিকরা নিশ্চয়ই তাঁর কথার নিন্দা করবেন।

আবুল কাসেম
২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, মঙ্গলবার, ৮:১২ পূর্বাহ্ন

বাংলাদেশ জামাতে ইসলামী - আওয়ামীলীগের সাথে জোট করার সাথে সাথে যুদ্ধ অপরাধী থাকবে না, দলের নিবন্ধন ফিরে পাবে।

Shah Alam
২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, মঙ্গলবার, ৮:০০ পূর্বাহ্ন

সরকারের এজেন্ডা বাস্তবায়নের জন্য এইসব বলতেছেন টুকু

Abdul Kader
২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, মঙ্গলবার, ৮:০০ পূর্বাহ্ন

টুকু সাহেব ঠিক বলেছেন জামাতে ইসলাম দলটা মুনাফেক নাহলে আওয়ামীলীগের সাথে কি বাবে আতাত করে তারা

সালমান তালোকদার
২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, মঙ্গলবার, ৭:৫৮ পূর্বাহ্ন

টুকু সাহেবের আওয়ামী লীগের পরিবারের সাথে সম্পর্ক আছে, এনার মতো লোক কি বিএনপির এত বড় পদ পদবী পায় বুজা মুশকিল,

আনারুল ইসলাম নয়ন
২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, মঙ্গলবার, ৭:৫১ পূর্বাহ্ন

তাহলে বিএনপি'তেও একজন হাসান মাহমুদ আছে।

Siddiq
২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, মঙ্গলবার, ৭:৪৭ পূর্বাহ্ন

বসন্তের কোকিল হাসান মাহমুদ টুকুরা রাজনীতির মধু মাসে ফুলের মধু ভক্ষণে ফুলে ফুলে উড়ে বেড়ায়। বিগত এক যুগের বেশি সময় ধরে সরকারের নিপীড়ন নির্যাতন নিষ্পেষণে বিরোধি দল সমূহের দুর্যোগ প্রতিরোধি সরকার পতন আন্দোলন সংগ্রামে ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকুদের মাঠে ময়দানে সভা সমাবেশ মঞ্চে খুব একটা দেখা মেলেনি। সরকার বিরোধি আন্দোলনের শেষ বিকেলে এসে তাদের উৎপাত লক্ষ্য করা যাচ্ছে। বন্ধুপ্রতিম ভ্রাতৃপ্রতিম সঙ্গীপ্রতিম সংগঠন জামায়াতকে নিয়ে টুকুর তোলপাড় করা অশালীন অশুভ কুরুচিপূর্ণ উদ্ভট কাল্পনিক বিদ্বেষায়ীত বক্তব্যের বিস্ফোরণ কিসের ইঙ্গিত? খোড়া বিএনপির কোমড় ভেঙ্গে চিরপঙ্গুত্ব করে দেওয়ার অশুভ ইঙ্গিতের পদধ্বণী কিনা এই বিষোদগার। সরকার পতনে যেখানে ডান বাম ছোট বড়র ব্যবধান ঘুচিয়ে সবাইকে এক প্লাটফর্মে সিসাঢালা ঐক্য দরকার সেখানে টুকুরা এমন বেপরোয়া বেসামাল উম্মাদ কেন? দেশ জনতার কাছে প্রশ্ন? নাকি তীরে এসে নৌকা ডুবানোর কোন ষড়যন্ত্র?

তাঁরকাটা
২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, মঙ্গলবার, ৭:২৭ পূর্বাহ্ন

রাজনিতিবিদদের কথাবার্তা সংযত ভাবে বলা প্রয়োজন।

A R Sarkar
২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, মঙ্গলবার, ৬:৪৫ পূর্বাহ্ন

অনলাইন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

অনলাইন থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status