ঢাকা, ২৮ মে ২০২২, শনিবার, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৬ শাওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

রকমারি

কর্মী ধরে রাখতে জীবনসঙ্গী খুঁজে দিচ্ছে কোম্পানি!

মানবজমিন ডিজিটাল

(৩ সপ্তাহ আগে) ৫ মে ২০২২, বৃহস্পতিবার, ৫:৩৪ অপরাহ্ন

কোম্পানি মাস শেষে বেতন দেবে। কাজের দক্ষতার বিচার-বিশ্লেষণ করবে। কর্মীর হয়তো ব্যক্তিগত সুবিধা-অসুবিধার খোঁজখবরও নেবে কোম্পানি। তাই বলে কর্মীর বিয়ের দায়িত্বও যদি কোনো কোম্পানি নেয় তবে তা শুনতে একটু অবাকই লাগে। 
আর এমনটাই করছে একটি আইটি কোম্পানি।  সংবাদ প্রতিদিনের এক রিপোর্ট থেকে জানা গেছে-

মাদুরাইয়ের  তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থায় কর্মী ধরে রাখা মুশকিল হয়ে যাচ্ছিল দিনকে দিন।  কোনোভাবেই সমাধান মিলছিল না। অনেক ভাবনা চিন্তা করে তারা একটি উপায় বের করে। শুরু করে অবিবাহিত কর্মীদের জন্য ঘটকালী। সে সঙ্গে কর্মীরা যদি বিয়ে করে তবে বাড়িয়ে দেয়া হচ্ছে বেতন-বোনাসও। 
কোম্পানিটির নাম শ্রী মুকামবিকা ইনফো-সলিউশনস। 
২০০৩ সালে তামিলনাড়ুর  শিবকাশিতে পথ চলা শুরু। কিন্তু নানান কারণে ২০১০ সালে মাদুরাইয়ে উঠে আসে কোম্পানিটি।

বিজ্ঞাপন
এর পরেই ঝামেলায় পড়ে প্রতিষ্ঠানটি।  কর্মী ধরে রাখা দায় হচ্ছিল তাদের। 
মূল কারণ মাদুরাইয়ের মতো ছোট শহর। এই শহরে থাকতে চান না কর্মীরা। ছেড়ে দিতে চান চাকরি। একাকীত্বের ব্যাপারতো আছেই। ফলে কর্মী সঙ্কটে কোম্পানির লভ্যাংশ কমতে থাকে দ্রুত। 
অদক্ষ কর্মীদের শিখিয়ে পড়িয়ে  কাজ চালাতে হয়। তখন কর্মী সংখ্যা ছিল দুশোরও কম। যা প্রয়োজনের তুলনায়  নগণ্য।
এই সময়েই দক্ষ কর্মী ধরে রাখতে ও নতুন ভালো পেশাদার নিয়োগ করতে একাধিক উদ্যোগ নেয় কোম্পানিটি। যার অন্যতম ছিল বছর বছর  বেতন বাড়ানো। এমনকি প্রতি ছয় মাসেও শ্রী মুকামবিকা ইনফোসলিউশনস কর্মীদের বেতন বাড়িয়েছে। আর সব শেষে কর্তৃপক্ষ যে সিদ্ধান্তে পৌঁছেছে তা বিরলই বলা যায়। বাড়ি থেকে দূরের ছোট শহরে এসে একলা বোধ করা কর্মীদের বিয়ে দিতে উদ্যোগী হয়েছে সংস্থাটি।
যদিও কর্মীর এই বিষয়ে ইচ্ছে থাকলে তবেই।  পাত্রপাত্রী দেখারও ব্যবস্থা করে দিচ্ছে কোম্পানিটি।

সংস্থাটিতে কর্মী সংখ্যা এখন ৭৫০ জনে দাঁড়িয়েছে।  এদের ৪০ শতাংশ কর্মী শ্রী মুকামবিকা ইনফোসলিউশনে কাজ করছেন পাঁচ বছরের বেশি সময় ধরে। কোম্পানির সিইও সলভাগণেশ বলেন, “কর্মীদের সঙ্গে আমার সম্পর্ক দাদা-ভাইয়ের। অনেকেই গ্রাম থেকে আসা যুবক। উপযুক্ত জীবনসঙ্গী খুঁজে দিতে কোম্পানি সাহায্য করছে। বিয়েতে দারুণ হইচই করছি সকলে মিলে।”

অর্থাৎ বলাই যায়- কোম্পানির ঘটকালীতে বেশ ভালো ফল মিলেছে। কর্মীও থাকছে, কাজও চলছে লাভের মুখও দেখছে।

রকমারি থেকে আরও পড়ুন

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com