ঢাকা, ১৯ আগস্ট ২০২২, শুক্রবার, ৪ ভাদ্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২০ মহরম ১৪৪৪ হিঃ

অনলাইন

পদ্মা সেতু: এখন ছুটির দিন মানেই বাড়ি ফেরা

হায়দার আলী, শিবচর (মাদারীপুর) থেকে

(১ মাস আগে) ২ জুলাই ২০২২, শনিবার, ১:২১ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ৪:৩৪ অপরাহ্ন

দক্ষিণাঞ্চলের করিডোর খ্যাত বাংলাবাজার-শিমুলিয়া নৌরুটে গত ১০ দিন আগেও ছুটির দিনে অর্থাৎ শুক্র ও শনিবারকে সামনে রেখে গ্রামের বাড়িতে ফেরার চাপ দেখা গেছে সাধারণ মানুষের। পরিবারের সাথে একটু সময় কাটিয়ে প্রফুল্ল মনে আবার কর্মস্থলে যোগ দেয়া। 

তবে নৌরুটের ভোগান্তির চিন্তা মাথায় রেখে অনেকেই বাড়ি ফিরতে নানা চিন্তা-ভাবনা করতো। মাসে একবারের জায়গায় একাধিক বার বাড়ি ফেরার কথা ভাবতো না। 

পদ্মা সেতু চালু হওয়ার পর প্রথম শুক্রবার ১লা জুলাই। এই ছুটির দিনে দক্ষিণাঞ্চলের মাদারীপুরে অসংখ্য কর্মজীবীদের নিজ বাড়িতে দেখা গেছে। তাদের সাথে আলাপ করে জানা গেছে, ‘এখন বাড়ি ফিরতে কোন বাধা নেই। আমাদের মতো দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন জেলার মানুষের ঘরে ফেরার ভিড় দেখা গেছে পরিবহনে। সকলেই বাড়ির উদ্দেশ্যে যাচ্ছে। শনিবার বিকেল বা রোববার খুব ভোরে ঢাকা পৌঁছে অফিস করবেন তারা।’

এদিকে শুক্রবার সকাল থেকেই ভাঙ্গা-যাত্রাবাড়ী এক্সপ্রেসওয়েতে যানবাহনের বেশ চাপ দেখা গেছে। মহাসড়কের টোলপ্লাজার নিকট দীর্ঘ যানজটেরও সৃষ্টি হয়। ঢাকা থেকে মাদারীপুরগামী একাধিক পরিবহনের চালকেরা জানান, 'শুক্রবার বাড়ির উদ্দেশ্যে যাওয়া যাত্রীদের সংখ্যা বেশি।

বিজ্ঞাপন
বিশেষ করে যারা ঢাকায় চাকরি করেন, তারা ছুটি কাটাতে বাড়ি যাচ্ছেন। পদ্মা সেতু না থাকলে শুধু শুক্রবারের ছুটি কাটাতে বাড়ি ফেরা মানুষের তেমন চাপ ছিল না। পদ্মা সেতু বাড়ির সাথে দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের যোগাযোগ সহজ করে দিয়েছে।

মো. আজিজুল মুন্সী নামের শিবচরের এক ব্যক্তি বলেন, শুক্রবার ছাড়া তেমন ছুটি পাই না। আগে শুক্রবারের দিন ঢাকায় নিজের রুমে নিরানন্দ কাটাতো। পদ্মা সেতু চালুর পরেই আজকের শুক্রবার নিয়ে অনেক আগ্রহে ছিলাম। বাড়ি ফিরতে হবে। আগে ঢাকা টু বাড়ি ৪/৫ ঘন্টার দূরত্ব ছিল। একই সাথে যাত্রা পথের নানান ধকল তো আছেই। কিন্তু আজ যেন নিমেষেই বাড়ি চলে এলাম!
তিনি আরও বলেন, ভোরে ঢাকা থেকে রওনা দিয়ে বাড়িতে এসে সবার সাথে সকালের নাস্তা করা যায়। এখন মন চাইলেই বাড়ি আসতে পারবো।

আবির হাসান নামের ভাঙ্গার এক ব্যক্তি বলেন, 'ঢাকা থেকে আমার বাড়ি এখন এক সড়কের পথ। গাড়ি থেকে নেমেই বাড়ির পথ। কোন ভোগান্তি নেই। পদ্মা পার হবার টেনশন নেই। রাত হয়ে যাওয়ার উৎকণ্ঠা নেই। এখন ছুটির দিন মানেই বাড়ি চলে আসা।
মো. শাহজাহান বলেন, 'বাড়ি ফেরার আনন্দই আলাদা। এখন আর ভোগান্তি নিয়ে বাড়ি ফিরতে হবে না। ঢাকা থেকে এক বাসেই বাড়িতে পৌছাতে পারছি।

মো. সোহাগ হাওলাদার নামের এক ব্যবসায়ী বলেন, 'আমার প্রতি সপ্তাহেই ঢাকা যেতে হয় ব্যবসার কাজে। ঢাকা থেকে সন্ধ্যার আগেই ঘাটে এসে পৌছানোর যেন চিন্তা থাকতো এখন তা আর নেই। কাজ সেড়ে রাতেও রওনা দিয়ে বাড়ি ফিরা যায় এখন।'
গত ২৫ জুন উদ্বোধন হয়েছে স্বপ্নের পদ্মা সেতু। উদ্বোধনের পর শুক্রবার (১ জুলাই) প্রথম সরকারি ছুটি। ঢাকায় চাকরিজীবী অসংখ্য মানুষ ছুটির দিনে বাড়ি ফিরে আসছেন পরিবারের সাথে সময় কাটাতে।  

 

পাঠকের মতামত

@Kazi পদ্মা সেতু নিয়েতো কেও নেতিবাচক বক্তব্য দিয়েছে শুনুনাই !! তবে হ্যা পদ্মা সেতুতে দুর্নিতি নিয়ে অনেকেই নেতিবাচক বক্তব্য দিয়েছে। খুব লেগেছে বুঝি তাতে ?? আহা ফ্রি স্টাইলে দুর্নিতি করবেন অথচ কেও কোন টু শব্দটিও যেন না করে, তাইনা ?? পদ্মা সেতু কারো ব্যাক্তিগত টাকা বা বাবার টাকায় হয়নি। আমার মত কোটি কোটী জনগনের রক্ত পানি করা টাকা থেকে ভ্যাট ট্যাক্স নিয়ে এবং চিন থেকে লোন নিয়ে(যেটাও কিনা শোধ করবে এই আমাদের থেকে নেয়া ভ্যাট, ট্যাক্স আর টোলের টাকা দিয়ে) করা হয়েছে এই পদ্মা সেতু। বিদেশে বসে অন্যকে ধোলাই দিতে খুব মজা লাগে তাইনা ??

ক্ষুদিরাম
২ জুলাই ২০২২, শনিবার, ৭:২৭ পূর্বাহ্ন

Ji Ha. Etai shotto. ami o family niye shukrobar dhaka theke khulna elam. proti mashe ekbar ashar plan ache. agee 1/2 bar ashtam bochore. Padma shetue je ki shob matra jog koreche south and national level e, 6 mashei tar shorashori provab count kora jabe.

M. Rahman
২ জুলাই ২০২২, শনিবার, ১:২১ পূর্বাহ্ন

পদ্মা সেতু নিয়ে এখন ও যারা নেতিবাচক বক্তব্য দেওয়ার চেষ্টা করে, জনগণের উচিত এদের ধোলাই দেওয়া ।

Kazi
২ জুলাই ২০২২, শনিবার, ১২:৪২ পূর্বাহ্ন

Alhamdulillah. শুনে খুবই আনন্দিত । এই অঞ্চলের মানুষ ঢাকা থেকে এক ঘণ্টার দূরত্বে গ্রামের বাড়ি হওয়া সত্ত্বেও এতদিন ফেরির ভোগান্তির জন্য ৪/৫ ঘন্টা লাগত । তাদের মুখে আজ শাস্তির বাণী । এটি পদ্মাসেতুর সাফল্য । শেখ হাসিনার উপহার । কিন্তু এখন ও দেশের কিছু শত্রু এর বিরুদ্ধে গান গায়। আমার ভয় এরা সেতুর অনিষ্ট করার ষড়যন্ত্র করছে কি না ?

Kazi
২ জুলাই ২০২২, শনিবার, ১২:৪০ পূর্বাহ্ন

অনলাইন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

অনলাইন থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status