ঢাকা, ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, বুধবার, ২৫ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৬ রজব ১৪৪৪ হিঃ

বিশ্বজমিন

‘শি জিনপিং পদত্যাগ করুন’, চীনে বড় মাত্রার অসন্তোষ

মানবজমিন ডেস্ক

(২ মাস আগে) ২৮ নভেম্বর ২০২২, সোমবার, ১০:১৬ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ১২:১৩ অপরাহ্ন

mzamin

চীনে সরকারের বিরুদ্ধে নজিরবিহীন বিক্ষোভ দেখা গেছে। প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংসহ দেশটির কমিউনিস্ট পার্টির নেতাদের বিরুদ্ধেও প্রকাশ্যে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন শত শত বিক্ষোভকারী। রাজধানী বেইজিং, সাংহাই এবং নানজিং শহরে বড় বিক্ষোভ দেখা গেছে। বিক্ষোভ থেকে মানুষদের গণগ্রেপ্তার চালানো হয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

বৃটিশ গণমাধ্যমটির খবরে বলা হয়, সাংহাইতে অন্তত কয়েক হাজার মানুষ রাস্তায় নেমে এসেছিলেন। অপরদিকে বেইজিং ও নানজিং-এর বিক্ষোভ ছিল মূলত ছাত্রদের। এছাড়া উরুমচি শহরে একটি ভবনে আগুন লেগে ১০ জনের মৃত্যু হলে সেখানেও সরকারবিরোধী বিক্ষোভ শুরু হয়। সেখানকার স্থানীয়দের দাবি, সরকারের কঠোর লকডাউন নীতির কারণেই এই মানুষদের মরতে হয়েছে। এদিকে ওই ঘটনার জন্য স্থানীয়দের কাছে ক্ষমা চেয়েছে চীনা কর্তৃপক্ষ। এমন ক্ষমা চাওয়ার নিদর্শন বেশ বিরল চীনে। 
এদিকে চীনের বৃহত্তম শহর এবং বিশ্ব অর্থনীতির একটি প্রধান কেন্দ্র সাংহাইয়ের বিক্ষোভে লোকজনকে প্রকাশ্যে ‘শি জিনপিং, পদত্যাগ করুন’ এবং ‘কমিউনিস্ট পার্টি পদত্যাগ করো’ এরকম স্লোগান দিতে শোনা গেছে। প্রতিবাদকারীদের কেউ কেউ সাথে সাদা ব্যানার নিয়ে গিয়েছিলেন।

বিজ্ঞাপন
অন্যরা মোমবাতি জ্বালিয়ে, ফুল দিয়ে উরুমচিতে নিহতদের স্মরণ করেন। এধরনের বিক্ষোভ চীনে এক অস্বাভাবিক দৃশ্য। সেখানে সরকার কিংবা প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে সরাসরি কোন সমালোচনার জন্য কঠোর শাস্তি হতে পারে।

তবে বিশ্লেষকরা বলছেন, জিরো-কোভিড নীতির প্রতি ক্রমবর্ধমান অসন্তোষকে সরকার খুবই কম গুরুত্ব দিচ্ছে বলে দৃশ্যত মনে হচ্ছে। শি জিনপিং সম্প্রতি বলেছেন যে, সরকার এই জিরো-কোভিড নীতি থেকে বিচ্যুত হবে না। তবে সাংহাইয়ের একজন বিক্ষোভকারী বিবিসিকে বলেছেন, রাস্তায় বিক্ষোভ দেখে তিনি ‘চমকে গেছেন এবং কিছুটা উত্তেজিত’ বোধ করেছেন। চীনে এত বড় মাপের ভিন্নমতের প্রকাশ তিনি এই প্রথম দেখেছেন বলে মন্তব্য করেন।

একজন নারী বিক্ষোভকারী জানান, তিনি পুলিশ অফিসারদের জিজ্ঞাসা করেছিলেন যে তারা এই বিক্ষোভ সম্পর্কে কী মনে করেন! জবাবে ঐ পুলিশ কর্মকর্তার মন্তব্য ছিল, আপনার মতোই। অন্য প্রতিবাদকারীরা বিক্ষোভের সময় সহিংসতার বিবরণ দেন। একজন প্রতিবাদকারী বার্তা সংস্থা অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসকে জানান যে ঘটনাস্থলে থাকা তার এক বন্ধুকে পুলিশ মারধর করেছে, অন্য দু’জনের চোখে গোলমরিচের গুঁড়ো ছড়িয়ে দিয়েছে।

দেশের অন্যত্র উরুমচি অগ্নিকাণ্ডের শিকারদের জন্য ছাত্ররা স্মরণ-সভার আয়োজন করে এবং বেইজিং ও নানজিং-এর বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে বিক্ষোভের ছবি এবং ভিডিও অনলাইনে পোস্ট করা হয়। বেইজিংয়ের সিংহুয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে এরকম একটি বিক্ষোভে শত শত মানুষ অংশ নেয় বলে সেখানকার ছাত্র বার্তা সংস্থা এএফপিকে জানিয়েছেন।
 

বিশ্বজমিন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

বিশ্বজমিন সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status