ঢাকা, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, শুক্রবার, ১৫ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিঃ

বিনোদন

‘হাওয়া’র পরিচালকের বিরুদ্ধে মামলা

স্টাফ রিপোর্টার

(১ মাস আগে) ১৮ আগস্ট ২০২২, বৃহস্পতিবার, ১১:০৩ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ৬:০৭ অপরাহ্ন

বন্যপ্রাণী (সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা) আইন-২০১২ লঙ্ঘনের অভিযোগে ২০ কোটি টাকার ক্ষতিপূরণ চেয়ে আলোচিত চলচ্চিত্র ‘হাওয়া’র পরিচালক মেজবাউর রহমান সুমনের নামে মামলা করেছে বন বিভাগের বন্যপ্রাণী অপরাধ দমন ইউনিট।
‘হাওয়া’ সিনেমায় বন্যপ্রাণী শালিক পাখি খাঁচায় আটক দেখানো ও তাকে হত্যা করে খাওয়ার দৃশ্য থাকায় বুধবার (১৭ আগস্ট) ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতে মামলাটি করেন বন্যপ্রাণী পরিদর্শক নারগিস সুলতানা। মামলায় তদন্ত কমিটিতে কাজ করা তিন সদস্য আব্দুল্লাহ আস সাদিক, অসীম মল্লিক ও রথিন্দ্র কুমার বিশ্বাসকে সাক্ষী করা হয়েছে। আদালত সূত্রে জানা গেছে, বন্যপ্রাণী (সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা) আইন-২০১২ এর ধারা ৩৮ (১-২), ৪১ ও ৪৬ লঙ্ঘনের অভিযোগে মামলাটি করেছে বন্যপ্রাণী অপরাধ দমন ইউনিট। গত মাসের ২৯ তারিখে মুক্তি পাওয়া ‘হাওয়া’ চলচ্চিত্রে ট্রলারে থাকা একটি খাঁচায় শালিক পাখি বন্দি অবস্থায় দেখা যায়। এক পর্যায়ে সেটিকে হত্যা করে খাওয়ার দৃশ্য দেখানো হয়। এমন দৃশ্য এ ধরনের প্রাণী শিকারে উৎসাহিত করতে পারে দাবি করে উদ্বেগ প্রকাশ করে পরিবেশবাদী ৩৩টি সংগঠন। চলচ্চিত্রের ওই দৃশ্যটি সংশোধন করে ক্ষমা চাওয়ার জন্য তারা পরিচালক ও অভিনয় শিল্পীর প্রতি আহ্বান জানায়। তবে ছবিটির পরিচালক বলছেন, ‘ফিকশন’ হিসেবে ওই দৃশ্য দেখানো হলেও কোনো বন্যপ্রাণী হত্যা করা হয়নি। পরিবেশবাদী সংগঠনগুলোর একটি জোট, বাংলাদেশ প্রকৃতি সংরক্ষণ জোট দাবি করছে, চলচ্চিত্রে বেশ কয়েকটি দৃশ্য রয়েছে যা বন্যপ্রাণী (সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা) আইন, ২০১২-এর সুস্পষ্ট লঙ্ঘন। বন্যপ্রাণী সংক্রান্ত এ ধরনের অপরাধের ফলে সাধারণ মানুষ পাখি শিকার, খাঁচায় পোষা ও হত্যা করে খাওয়ায় উৎসাহিত হবে।

বিজ্ঞাপন
এর ফলে বন্যপ্রাণীর জন্য ঝুঁকি তৈরি হচ্ছে বলে তারা মনে করে। এমন অবস্থার মধ্যে সিনেমাটির বিরুদ্ধে মামলা করে বন বিভাগ। বাংলাদেশে বন্য প্রাণী আটকে রাখা, হত্যা করার মতো অপরাধ দমনে সোচ্চার রয়েছে বন বিভাগের বন্য প্রাণী অপরাধ দমন ইউনিট। এর আগে একটি টিভি নাটকে খাঁচাবন্দি টিয়া দেখানোর দৃশ্য থাকায় নাটকের পরিচালকের বিরুদ্ধে গত এপ্রিল ১৫ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে মামলা করেছে এই ইউনিট, যেটি এখনও বিচারাধীন।
 

পাঠকের মতামত

উনাদেরকে কেউ চিনেনা, কেউ জিগায়না, তাই মিডিয়ায় আসার জন্য এসব করছে

খাজা কামরুল ইসলাম
১৮ আগস্ট ২০২২, বৃহস্পতিবার, ১:৫২ অপরাহ্ন

পরশ্রীকাতর বাঙালি জাতি। ভালো কিছুই সহ্য হয় না। এমন একটা আইন আছে জীবনে প্রথম শুনলাম। আবার বিশ কোটি টাকার ক্ষতিপূরণ মামলা। মগের মুলুক আরকি। সফট টার্গেটে নিজের ক্ষমতা দেখানোর পায়তারা। হাজার কোটি টাকা মেরে দেয়া রাঘব বোয়ালদের ব্যাপারে কবি নিরব।

Shahbaz
১৮ আগস্ট ২০২২, বৃহস্পতিবার, ১০:২৬ পূর্বাহ্ন

এগুলো সব পাকা চোর অতিশয়। ৫ লক্ষ কোটি টাকা পাচার হয়ে গেলো, তখন তোদের আইন কোথায় ছিল রে বদের দল?

Shahriar Tarafder
১৮ আগস্ট ২০২২, বৃহস্পতিবার, ৯:৩৪ পূর্বাহ্ন

দেশের ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে একটু চাঙ্গা হচ্ছিলো , এখন অন্য সব সেক্টরের মতো এটাকেও এগুতে না দেবার পাঁয়তারা । পুকুরচোর সমুদ্র চোর, লুটেরাদের বিরুদ্ধে আইন প্রয়োগ করার ক্ষমতাতো দেখিনা । যত্তসব তস্করের দল ।

ANIKET
১৮ আগস্ট ২০২২, বৃহস্পতিবার, ৪:০৫ পূর্বাহ্ন

মনে হয় সুইস ব্যাংকের মাসিক হপ্তার টাকা কম পরেছে!! উনার ব্যাংক হিসাব তলব করা হোক।

Pipilika
১৮ আগস্ট ২০২২, বৃহস্পতিবার, ১২:২৬ পূর্বাহ্ন

বন বিভাগ দুনিয়ার...আকাম করে কিচ্ছু হয় আর....এতটুকুতেই ১৫ কোটি?!!! আপনাদের ব্যাংক ব্যালেন্সে আকামের টাকা কতো???

MONIRUZZAMAN MONZU
১৭ আগস্ট ২০২২, বুধবার, ১১:৫০ অপরাহ্ন

Billions of dollars are stolen from the banks, and the Day of Judgement is near because of this mad director Sumon. Send him to Aynaghor!

shiblik
১৭ আগস্ট ২০২২, বুধবার, ১০:১১ অপরাহ্ন

বিনোদন থেকে আরও পড়ুন

বিনোদন থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং স্কাইব্রীজ প্রিন্টিং এন্ড প্যাকেজিং লিমিটেড, ৭/এ/১ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status