ঢাকা, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, মঙ্গলবার, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ১৬ শাবান ১৪৪৫ হিঃ

বিশ্বজমিন

পাকিস্তানের নির্বাচন

হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে এগিয়ে ইমরানের প্রার্থীরা

মানবজমিন ডেস্ক

(২ সপ্তাহ আগে) ৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, শুক্রবার, ৩:০৬ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ১২:০০ পূর্বাহ্ন

mzamin

পাকিস্তানের ১৬তম সাধারণ নির্বাচনের ফলাফলে চমক দেখিয়েছেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান সমর্থিত প্রার্থীরা। সকল পূর্বাভাস ভুল প্রমাণ করে প্রধান দুই দল পিএমএল-এন ও পিপিপি’র থেকে এগিয়ে আছেন তারা। এখনও গত বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত এই নির্বাচনের চূড়ান্ত ফলাফল ঘোষিত হয়নি। এই রিপোর্ট লেখার সময় ভোট গণনা অব্যাহত রয়েছে। তাতে পিটিআই সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থীদের সঙ্গে সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফের দলের হাড্ডাহাড্ডি লড়াই দেখা গেছে।

এই রিপোর্ট লেখার সময় পর্যন্ত ১৮৪ আসনের ফল পাওয়া গেছে। এতে ৯১ আসনে জিতেছেন পিটিআই সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থীরা। এরপরেই ৬৩ আসনে জিতে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে নওয়াজ শরিফের নেতৃত্বাধীন পিএমএল-এন। বিলওয়াল ভুট্টো জারদারির দল পিপিপি পেয়েছে ৪৮ আসন। অন্যান্যদের মধ্যে এমকিউএম-পি দল পেয়েছে ১১ আসন, আইপিপি ২ আসন, পিএমএল ২ আসন ও জেইউআই ২ আসন পেয়েছে।

পাকিস্তানে জাতীয় পরিষদে ২৬৬ আসনে সরাসরি ভোট হয়। নির্বাচনের আগে দুর্বৃত্তের গুলিতে এক প্রার্থী নিহত হওয়ায় একটি আসনে ভোট স্থগিত করা হয়েছিল আগেই।

বিজ্ঞাপন
তাই গতকাল ভোট হয়েছে ২৬৫ আসনে।

ডনের খবরে বলা হয়েছে, কোনো দল এককভাবে সরকার গঠন করতে চাইলে এবার ১৩৪টি আসনে জিততে হবে। তবে বিশ্লেষকেরা বলছেন, পাকিস্তানে এবার কোনো দল নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা নাও পেতে পারে।

হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের কারণে শেষ পর্যন্ত চূড়ান্ত বিজয়ী কে হবেন, তা নিয়ে বিশ্লেষকেরা এখনো স্পষ্ট করে আভাস দিতে পারছেন না। এমনকি এতটা বিলম্বে নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার নজির পাকিস্তানে বিরল। সামগ্রিক পরিস্থিতি নিয়ে বেশ অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। এর জেরে করাচি স্টক এক্সচেঞ্জের সূচক ও পাকিস্তানের সার্বভৌম বন্ডের দাম পড়েছে।

বিলম্বে ফলাফল ঘোষণার বিষয়ে পাকিস্তান নির্বাচন কমিশনের (ইসিপি) বিশেষ সচিব জাফর ইকবাল রয়টার্সকে বলেন, ইন্টারনেট ইস্যুতে ফলাফল ঘোষণায় বিলম্ব হয়েছে, তবে বিস্তারিত কোনো ব্যাখ্যা দেননি তিনি।
এর আগে গতকাল ভোট গ্রহণের দিনে পাকিস্তানজুড়ে বন্ধ রাখা হয়েছিল মুঠোফোন সেবা। দেশটির অনেক অঞ্চলে ইন্টারনেট বন্ধ থাকা কিংবা গতি কম থাকার খবরও জানা গিয়েছিল। নিরাপত্তার স্বার্থে এ উদ্যোগ নেয় দেশটির সরকার। তবে আজ পাকিস্তানে মুঠোফোন সেবা চালু রয়েছে।

বিশ্লেষকদের অনেকেই বলছেন, নতুন প্রধানমন্ত্রী হওয়ার দৌড়ে থাকা নওয়াজকে সমর্থন দিচ্ছে পাকিস্তানে ক্ষমতাধর হিসেবে পরিচিত সামরিক বাহিনী। পারমাণবিক শক্তিধর পাকিস্তানের ইতিহাসে বেশির ভাগ সময় প্রত্যক্ষ-পরোক্ষভাবে সেনা-সমর্থিত সরকার দেশ শাসন করেছে।

 

পাঠকের মতামত

তেহরিকে ইনসাফ দলকে অভিনন্দন। এগিয়ে যাও

Mizan Bangla
৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, শুক্রবার, ৮:০৯ পূর্বাহ্ন

বাংলাদেশের নির্বাচন কমিশনের পরামর্শ নেওয়ার দরকার ছিল পাকিস্তান নির্বাচন কমিশনের। ফলে নির্বাচন কিভাবে করতে হয় তা অনুসরণ করতে পারতো।

শওকত আলী
৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, শুক্রবার, ৮:০১ পূর্বাহ্ন

বাংলাদেশের তথাকথিত নির্বাচন কমিশনের অধীনে ২০১৮ সালে বিএনপি নির্বাচনে গিয়েছিল । পাকিস্তানের নির্বাচন কমিশন শত বাধার মুখেও মেরুদন্ড সোজা রাখার চেষ্টা করছে । আর আমাদের নির্বাচন কমিশন আগে থেকেই অবৈধ সরকারের জন্য সবকিছু প্রস্তুত করে রাখে ।

N Islam
৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, শুক্রবার, ৫:৫৩ পূর্বাহ্ন

বিএনপির জন্য পাকিস্তান নির্বাচন থেকে শিক্ষা নেওয়া উচিত। সব কিছু ইমরানের বিপক্ষে তবু ও হাল ছাড়েন নাই। সত্য হলো বিএনপি নির্বাচনকে ভয় পায়, পাবলিক সমর্থন তাদের নাই। ব্যর্থ আনদোলনের পরও নেতাদের পজিশনের পরিবর্তন হয় নাই।

মেহেরজান
৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, শুক্রবার, ৫:২৩ পূর্বাহ্ন

বিশ্বজমিন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

   

বিশ্বজমিন সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2023
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status