ঢাকা, ৪ মার্চ ২০২৪, সোমবার, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ২২ শাবান ১৪৪৫ হিঃ

অর্থ-বাণিজ্য

সেই ৩৫ কোম্পানির ফ্লোরপ্রাইস তুলে নেয়া হলো

অর্থনৈতিক রিপোর্টার

(১ মাস আগে) ২২ জানুয়ারি ২০২৪, সোমবার, ৯:৩৮ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ৪:১৬ অপরাহ্ন

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর মধ্যে আরও ২৩টির শেয়ারের উপর থেকে ফ্লোরপ্রাইস (শেয়ার মূল্যের নিম্নসীমা) তুলে নেয়া হয়েছে। মঙ্গলবার থেকে আর এসব কোম্পানির শেয়ারে ফ্লোরপ্রাইস থাকবে না।

পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) সোমবার আলোচিত কোম্পানিগুলোর উপর থেকে ফ্লোরপ্রাইস তুলে নেয়ার নির্দেশনা জারি করেছে।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার তালিকাভুক্ত ৩৯২ কোম্পানির মধ্য থেকে ৩৫৭টির শেয়ারের উপর থেকে ফ্লোরপ্রাইস তুলে নেয়া হয়। আর বহাল রাখা হয় বাকী ৩৫টির ফ্লোরপ্রাইস। নতুন করে ২৩ কোম্পানির শেয়ারের উপর থেকে ফ্লোরপ্রাইস তুলে নেওয়ায় এ ব্যবস্থার অধীন রয়েছে আর মাত্র ১২টি কোম্পানি।

সোমবার যেসব কোম্পানির উপর থেকে ফ্লোরপ্রাইস তুলে নেয়া হয়েছে সেগুলো হচ্ছে- বারাকা পাওয়ার, বিএসসিসিএল, বিএসআরএম স্টিল, কনফিডেন্স সিমেন্ট, ডিবিএইচ, ডোরিন পাওয়ার, এনভয় টেক্সটাইল, এইচআর টেক্সটাইল, আইডিএলসি, ইনডেক্স অ্যাগ্রো, কেডিএস লিমিটেড, কট্টালি টেক্সটাইল, মালেক স্পিনিং, ন্যাশনাল হাউজিং ফাইন্যান্স, ন্যাশনাল পলিমার, পদ্মা অয়েল, সায়হাম কটন, শাশা ডেনিমস, সোনালী পেপার, সোনারবাংলা ইন্স্যুরেন্স, শাইনপুকুর সিরামিকস, সামিট পাওয়ার ও ইউনাইটেড পাওয়ার।

বিধি অনুসারে, এসব কোম্পানির শেয়ার লেনদেনের ক্ষেত্রে সার্কিটব্রেকার তথা একদিনে মূল্য পরিবর্তনের সর্বোচ্চ সীমা কার্যকর হবে।

ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ এবং শ্রীলংকার দেউলিয়া ঘোষণাজনিত আতঙ্কের প্রেক্ষিতে দেশের পুঁজিবাজারে বড় দর পতনের আশংকার প্রেক্ষিতে ২০২২ সালের ২৮ জুলাই দ্বিতীয়বারের মতো ফ্লোর প্রাইস আরোপ করে বিএসইসি। তার আগে কোভিড-১৯ এর প্রকোপ শুরু হওয়ার পর একবার ফ্লোরপ্রাইস আরোপ করা হয়েছিল।
ফ্লোরপ্রাইসের কারণে বাজারে শেয়ার কেনাবেচা একেবারে কমে যায়। দীর্ঘদিন ধরে ফ্লোরপ্রাইস বহাল থাকায় বিনিয়োগকারীদের পাশাপাশি ব্রোকারহাউজ, মার্চেন্ট ব্যাংক ও অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানিগুলোও সঙ্কটে পড়ে। এর প্রেক্ষিতে বিএসইসি পর্যায়ক্রমে ফ্লোরপ্রাইস প্রত্যাহার করে নেওয়ার কথা জানায়।

গত বৃহস্পতিবার প্রথম দফায় ৩৫টি ছাড়া বাকি সব কোম্পানির শেয়ারের উপর থেকে ফ্লোরপ্রাইস তুলে নেয়া হয়। ফ্লোরপ্রাইস তুলে নেয়ার পর প্রথম কর্মদিবসে ২১শে জানুয়ারি বাজারে বড় দরপতন হলেও দ্বিতীয় দিনে তা সামলে উঠে। সোমবার দেশের দুই স্টক এক্সচেঞ্জেই লেনদেন শেষ হয় সব সূচকের উর্ধমুখী ধারায়। অনেক দিন পর ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে লেনদেনের পরিমাণ ১ হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়ে যায়।

বিজ্ঞাপন
ফ্লোরপ্রাইস প্রত্যাহারজনিত আতঙ্ক কেটে যাওয়ার আভাস দেখে আরও ২৩ কোম্পানির শেয়ারের উপর থেকে ফ্লোরপ্রাইস প্রত্যাহার করে নেয়া হয়।
 

অর্থ-বাণিজ্য থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

   

অর্থ-বাণিজ্য সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2023
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status