ঢাকা, ১০ ডিসেম্বর ২০২২, শনিবার, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিঃ

অর্থ-বাণিজ্য

মান্দায় শিক্ষক দম্পতিকে পেটালেন ইউপি চেয়ারম্যান

নওগাঁ প্রতিনিধি
১৭ নভেম্বর ২০২২, বৃহস্পতিবার

নওগাঁর মান্দায় শিক্ষক দম্পতিকে মারধর করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে ভালাইন ইউনিয়নের চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফার বিরুদ্ধে। বুধবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার বানডুবি এলাকায় মারধরের এ ঘটনা ঘটে। 
মারধরের শিকার শিক্ষক দম্পতিরা হলেন, আবুল কাসেম শাহিন (৩০) ও তাঁর স্ত্রী লিপি পারভীন (২৫)। তারা ভালাইন ইউনিয়নের বানডুবি গ্রামের বাসিন্দা।  আহত শিক্ষক দম্পতি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন বলে জানা গেছে।
স্থানীয়রা জানান, পূর্ব বিরোধের জের ধরে আজ বুধবার সকালে বানডুবি বাজারে মদনচক গ্রামের মিরাজ উদ্দিন মণ্ডলকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা। এ সময় সেখানে উপস্থিত আলমগীর হোসেন নামে এক যুবক এর প্রতিবাদ করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা প্রতিবাদী যুবক আলমগীর হোসেনকে মারধর করেন। 
এ ঘটনায় বাজারের লোকজন একজোট হয়ে চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফাকে গণপিটুনি দেন। এতে চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা ও স্থানীয় বাসিন্দা শ্যামল চন্দ্র প্রামাণিক আহত হন।
পরবর্তীতে চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা মোবাইলফোনে গ্রামপুলিশ, ইউপি সদস্য ও তার লোকজনকে ডেকে নেন। এ সময় কর্মস্থলে যাওয়ার পথে মিরাজ উদ্দিনের ছেলে বানডুবি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক আবুল কাসেম শাহীন ও পুত্রবধূ লিপি পারভীনের পথরোধ করে মারধর করেন চেয়ারম্যানসহ তার লোকজন।
এ প্রসঙ্গে ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা বলেন, ব্যক্তিগত কাজে বানডুবি বাজারে গেলে মিরাজ উদ্দিন ও তাদের লোকজন আমাকে মারধর করেন। পরে আমিও পাল্টা জবাব দিয়েছি।
মান্দা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মেহেদী মাসুদ বলেন, সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত কেউ অভিযোগ দেননি।

বিজ্ঞাপন
অভিযোগ পেলে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বলেন, চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা মোবাইলফোনে বিষয়টি আমাকে অবহিত করেন। এ বিষয়ে উভয়কে আইনি পদক্ষেপ নেয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

 

পাঠকের মতামত

Our society having leader those involve in the criminal activities by vote rigging election that's the reason they don't care respect what is the rules of law. Suppose to be people learn from them rules of law fare treatment,they have no right to beat torcher the people even police has no authority there is court to give the judgement. The local leaders only can mediate problem between the people to people contact ...

Nannu chowhan
১৮ নভেম্বর ২০২২, শুক্রবার, ৭:০৮ অপরাহ্ন

অর্থ-বাণিজ্য থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

অর্থ-বাণিজ্য সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status