ঢাকা, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, বুধবার, ১৩ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিঃ

অর্থ-বাণিজ্য

ডিম ব্যবসায়ীদের আটকে জেরা করলেন ভোক্তার মহাপরিচালক

অর্থনৈতিক রিপোর্টার
২২ আগস্ট ২০২২, সোমবার

 দেশের বাজারে ডিমের মূল্যবৃদ্ধি নিয়ে ব্যবসায়ীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভার আয়োজন করেছিল জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। বৈঠকে তেজগাঁও ডিম ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আমানত উল্লাহসহ ৪ জনকে ব্যবসার বৈধ কাগজপত্র দেখাতে বলা হয়। তারা কাগজ দেখাতে না পারায় অধিদপ্তরে দীর্ঘক্ষণ আটকে রাখা হয়। পরবর্তী সময়ে কাগজপত্র দেখানোর প্রতিশ্রুতিতে ডিম ব্যবসায়ীদের ছেড়ে দেন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) এ এইচ এম সফিকুজ্জামান।  গতকাল অধিদপ্তরের সম্মেলন কক্ষে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সমবায় অধিদপ্তর থেকে নিবন্ধন নিয়ে ব্যবসা পরিচালনা করায় তাদের কাছে বৈধ কাগজ চাওয়া হয়। সফিকুজ্জামান বলেন, সমবায় সমিতির লাইসেন্স নিয়ে ব্যবসা করা যাবে না। ওনাদের কাগজপত্র নিয়ে আসতে বলা হয়েছে, সেগুলো আনলে আমরা বসবো। তারা কীভাবে ডিমের দাম নির্ধারণ করেন সে বিষয়ে তদন্ত করবো। মহাপরিচালক বলেন, তারা বৈধ কাগজপত্রের প্রমাণ দেবে এবং এ বিষয়টি এখন এনএসআইকে দেখার জন্য নির্দেশ দিয়েছি।

বিজ্ঞাপন
সেখানে কোনো সমস্যা পেলে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করবো। বৈধ কাগজপত্রের জন্য যাদের বসিয়ে রাখা হয় তারা হলেন- তেজগাঁও ডিম ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আমানত উল্লাহ ও সেক্রেটারি হানিফ মিয়া, কাজী ফার্মসের ডিলারের একজন প্রতিনিধি এবং ডিমে অর্গানিক সিল মারার বিষয়ে অভিযুক্ত একজন। সভা চলাকালে ভোক্তার মহাপরিচালক সফিকুজ্জামান তেজগাঁও ডিম ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আমানত উল্লাহকে প্রশ্ন করেন, তাদের ব্যবসায়ী সংগঠনের অনুমতি কোথা থেকে নেয়া। তিনি জানান, সমবায় সমিতির কাছ থেকে নিয়েছেন। তখন সব কাগজপত্র চাইলে তিনি দেখাতে ব্যর্থ হন। পরে তাকে থাকতে বলে অন্য কাউকে দিয়ে কাগজপত্র নিয়ে আসতে বলা হয়। সেইসঙ্গে সেক্রেটারিকেও থাকতে বলা হয়। এছাড়া কাজী ফার্মসের ডিলারের প্রতিনিধিকে দাম নির্ধারণের কাগজপত্র দেখানোর জন্য থাকতে বলা হয়। সিল মেরে অর্গানিক ডিম হিসেবে বিক্রি করার অভিযোগে একজনকে অর্গানিক ডিমের প্রমাণপত্র দেখানোর জন্য থাকতে বলা হয়। সংস্থাটির মহাপরিচালক এ এইচ এম সফিকুজ্জামান বলেন, তেলের দাম বাড়ার পর পোল্ট্রি ফিডের দাম বাড়েনি। তবে ঢাকায় প্রতি পিস ডিম আনার খরচ বেড়েছে ৩ থেকে ৪ পয়সা। কিন্তু ব্যবসায়ী সমিতি দাম বাড়িয়েছে ২ টাকা ৭০ পয়সা। সভায় কাজী ফার্মসের ডিলারের প্রতিনিধি ছাড়া ডাকা হয়নি বড় খামার ও কোম্পানির প্রতিনিধিদের। তবে ভোক্তা অধিকারের মহাপরিচালক এ এইচ এম সফিকুজ্জামানের জেরার মুখে পড়েন খুচরা ও পাইকারি ব্যবসায়ীরা।  সভায় উপস্থিত এফবিসিসিআই’র সিনিয়র সহ-সভাপতি মোস্তফা আজাদ চৌধুরী বাবু বলেন, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলতে চাই, সমবায় মন্ত্রণালয় থেকে লাইসেন্স নিয়ে ব্যবসা করা যায় কিনা? সমবায় সমিতি ব্যবসা করতে পারে কিনা আমি জানি না। বিষয়টি বাণিজ্য মন্ত্রণালয় আশা করি দেখবে। এ ধরনের সমবায় সমিতি, আড়তদাররা কিন্তু মধ্যস্বত্বভোগী। এরাই কিন্তু দেশকে অস্থিতিশীল করছে। তারা ইচ্ছামতো দাম কমায়-বাড়ায়। সরকারের উচিত তাদের আইনের আওতায় আনা।

 

পাঠকের মতামত

পুলিশ মিলিটারি দিয়ে বিরোধী দলকে দমন করা যায়,ব্যবসা করানো যায় না।আপনারা একবারে পেট্রল ডিজেলের দাম ৪০/৫০ টাকা বাড়ালে কোন ভোক্তা অধিকার আপনাদের কলার চেপে ধরতে পারে? মোবাইল কোর্ট নামের জঙলী বাহিনী এর মানুষের রান্না ঘরে হানা দেবে " কেন ভোজ্য তেলের এই উচ্চ মূল্যের সময় তরকারিতে এত বেশী তেল দেয়া হয়েছে। রান্নায় বেশি তেল ব্যবহার করার কারনে সাংবাদিক ও বুদ্ধিজীবীরা "সিংহাসন" এ মাখানোর জন্য তেল সঙ্কটে ভুগছে।

Nasym
৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, বৃহস্পতিবার, ১:০১ অপরাহ্ন

অর্থ-বাণিজ্য থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

অর্থ-বাণিজ্য থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং স্কাইব্রীজ প্রিন্টিং এন্ড প্যাকেজিং লিমিটেড, ৭/এ/১ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status