ঢাকা, ১৯ আগস্ট ২০২২, শুক্রবার, ৪ ভাদ্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২০ মহরম ১৪৪৪ হিঃ

দেশ বিদেশ

মীরসরাই ট্র্যাজেডি

আরও ১ জনের মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম থেকে
৬ আগস্ট ২০২২, শনিবার

চট্টগ্রামের মীরসরাইয়ে পর্যটকবাহী মাইক্রোবাসে ট্রেনের ধাক্কার ঘটনায় আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আয়াত হোসেন (১৬)  নামে  এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে এই দুর্ঘটনায় এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা  ১২ জনে দাঁড়িয়েছে। গতকাল দুপুরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। চট্টগ্রাম মেডিকেল হাসপাতালের আইসিইউ বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. এস এম নোমান খালেদ চৌধুরী  বলেন, শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় হাসপাতালের ভর্তির পরের দিনই তাকে আইসিইউতে স্থানান্তর করা হয়েছিল। তার অক্সিজেন স্যাচুরেশন ৮০’র নিচে নেমে গিয়েছিল। এছাড়া দুর্ঘটনার সময় তার মাথায় ও ঘাড়ে গুরুতর আঘাত পায়। দিন দিন শারীরিক অবস্থার অবনতির কারণে তার জ্ঞান ফেরেনি। আমাদের পক্ষ থেকে চেষ্টার কোনো ত্রুটি ছিল না। তবে তাকে বাঁচানো সম্ভব হয়নি। নিহত আয়াত হোসেন এই বছরের এসএসসি পরীক্ষার্থী ছিলেন।

বিজ্ঞাপন
তিনি হাটহাজারী উপজেলার চিকনদণ্ডি ইউনিয়নের খন্দকিয়া গ্রামের  দিনমজুর আব্দুস শুক্কুরের ছেলে। জানা যায়, দুর্ঘটনার পর আয়াতের বাবা-মাসহ সবাই চলে আসেন চমেক হাসপাতালে। এরপর থেকে তারা সেখানেই আছেন।এই সুযোগে তার বাসায় হানা দেয় চোরের দল। চোরেরা বাসা থেকে ফ্যান লাইট থেকে শুরু করে আয়াতের শখের সাইকেল পর্যন্ত চুরি করে নিয়ে যায়। উল্লেখ্য, গত ২৯শে জুলাই  দুপুরে মিরসরাই উপজেলার বড়তাকিয়া রেলক্রসিংয়ে রেললাইনে উঠে পড়া একটি মাইক্রোবাসকে ঢাকা থেকে চট্টগ্রামমুখী মহানগর প্রভাতী এক্সপ্রেস ট্রেন ধাক্কা দেয়। এতে ১১ জন ঘটনাস্থলেই মারা যান। আহত ৬ জনকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। এরমধ্যে পারভেজ নামে একজনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে পরদিন হাসপাতাল থেকে ছাড় দেয়া হয়। বর্তমানে চমেক হাসপাতালে আরও ৪ জন চিকিৎসাধীন আছেন। এরমধ্যে দুইজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

পাঠকের মতামত

এত বড় একটা মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে গেল মিরস্বরাই এ । জাতীয় শোক দিবস পালনের চেয়ে কম কিছু নয় বলে মনে করি। ড্রাইভার সাহেব কি মৃত নাকি জীবিত আছেন, জানার ইচ্ছে ছিল। কিন্তু সীমিত পত্রিকা পড়ার থেকে তা জানতে পারলাম না। উনি জীবিত থাকলে তাকে দিয়ে ৩য় দফায় নিরাপদ সড়ক আন্দোলনের কাজ শুরু করার প্রস্তাব করছি। ইলিয়াস কাঞ্চন, নিরাপদ সড়ক আন্দোলনে নেতৃত্ব দানকারী ছাত্রবৃন্দ এবং মিরেশ্বরাই এ ১৩/১৪ টি মূল্যবান জীবন চলে যাওয়ার জন্যে দায়ী মাইকোবাস চালক -এর যোথ নেতৃত্বে বাংলা দেশে আবার নিরাপদ সড়ক আন্দোলন শুরু হোক। এতে সফল হলেই এই মাইক্রোবাস চালকের প্রায়শ্চিত্ত। আজীবন সে তার ভুলের কথা অন্যদের (গাড়িচালকদের) শোনাবে এবং আইন মেনে গাড়ি চালানোর উপদেশ দেবে। এটাই তার শাস্তি। ওকে ফাঁসি-টাসি দিয়ে কোন লাভ হবে বলে মনে হয় না।

Md. Abdul Matin
৬ আগস্ট ২০২২, শনিবার, ১:০৫ পূর্বাহ্ন

দেশ বিদেশ থেকে আরও পড়ুন

দেশ বিদেশ থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status