ঢাকা, ২২ মে ২০২৪, বুধবার, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৩ জিলক্বদ ১৪৪৫ হিঃ

বিশ্বজমিন

আশ্রয়প্রার্থী অভিবাসীদের রুয়ান্ডা পাঠাবে বৃটেন পার্লামেন্টে বিল পাস

মানবজমিন ডেস্ক
২৪ এপ্রিল ২০২৪, বুধবার

বৃটেনে স্থায়ী হতে অভিবাসনপ্রত্যাশীদের আবেদনের মধ্যেই তাদের আফ্রিকার দেশ রুয়ান্ডায় পাঠানোর বিল পাস করেছে দেশটির পার্লামেন্ট। এই বিলের পক্ষে-বিপক্ষে সমালোচনার মুখেই এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করার দৃঢ়প্রত্যয় ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক। মঙ্গলবার এ খবর দিয়ে অনলাইন এনডিটিভি জানিয়েছে, পার্লামেন্টে ‘রুয়ান্ডা বিল’ পাসের পর ঋষি সুনাকের দল কনজারভেটিভ পার্টিতে বড় ধরনের মতানৈক্য দেখা দিয়েছে। তবে এ ক্ষেত্রে  সকল বাধা এবং রাজনৈতিক চাপ মোকাবিলা করে এ বিল বাস্তবায়নের ঘোষণা দিয়েছেন তিনি।
ঋষি সুনাক এক বিবৃতিতে বলেছেন, অবৈধ পথে যাওয়া অভিবাসন ঠেকাতে এই ঐতিহাসিক বিল বাস্তবায়ন শুধুমাত্র সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়া নয় বরং এটি অবৈধ অভিবাসন রোধে বড় ধরনের মৌলিক পরিবর্তনের একটি। 

বৃটেনের পার্লামেন্টে এই বিল পাস হওয়ার পরপরই বিলটি সংশোধন করার আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘ। এই বিল বাস্তবায়িত হলে বৈশ্বিকভাবে আইনের শাসন ব্যাহত হবে বলে মনে করছে মানবাধিকার এই সংস্থাটি। ফলে অবৈধ অভিবাসন ঠেকাতে যুক্তরাজ্যকে এই নীতি পরিবর্তনের আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘ। এর আগে ২০২২ সালে সংসদে এই বিলের প্রস্তাব উত্থাপন করেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। কিন্তু এখনো পর্যন্ত কোনো অভিবাসনপ্রত্যাশীকে রুয়ান্ডায় পাঠায়নি প্রশাসন। গত বছরের নভেম্বরে যুক্তরাজ্যের সুপ্রিম কোর্ট এই নীতিকে বেআইনি বলে ঘোষণা করে। তবে ঋষি সুনাক মনে করেন, দেশটির নতুন এই নীতি বৈধ এবং এর মাধ্যমে ইংলিশ চ্যানেল দিয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যাওয়া অবৈধ অভিবাসনপ্রত্যাশীদের যাতায়াত ঠেকানো সম্ভব হবে।

বিজ্ঞাপন
এক কোটি ৩০ লাখ মানুষের দেশ রুয়ান্ডা।  দেশটি প্রশাসনিকভাবে নিজেদের স্থিতিশীল দেশ হিসেবে দাবি করে। তবে রুয়ান্ডার ডানপন্থি প্রেসিডেন্ট পল কাগামের বিরুদ্ধে দমন-পীড়নসহ নাগরিকদের বাকস্বাধীনতা খর্বের অভিযোগ রয়েছে। যদিও এখন পর্যন্ত কোনো অভিবাসনপ্রত্যাশীকে রুয়ান্ডাতে পাঠানো হয়নি, তবে  রুয়ান্ডাকে এরইমধ্যে ২৪ কোটি পাউন্ড পরিশোধ করেছে বৃটেন। এ ছাড়া রুয়ান্ডায় কয়েকশ’ অভিবাসীকে ঠাঁই দেয়ার সক্ষমতা থাকলেও সেখানে হাজার হাজার অভিবাসীর বাসস্থানের পরিকল্পনা করেছে বৃটেন সরকার। 

উল্লেখ্য, অবৈধ মানব পাচার ঠেকাতে এর আগে ২০২২ সালে প্রথম বরিস জনসন যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী থাকাকালীন এই বিলটি সংসদে উত্থাপন করেন। তারই ধারাবাহিকতায় সম্প্রতি এই বিলটি পাস করে দেশটির পার্লামেন্ট।              

 

পাঠকের মতামত

Why not Gujrat , India

Nam Nai
২৫ এপ্রিল ২০২৪, বৃহস্পতিবার, ৪:১৪ অপরাহ্ন

This law and bill is not applicable for Indian they are welcome to UK

Sami
২৫ এপ্রিল ২০২৪, বৃহস্পতিবার, ৭:১৪ পূর্বাহ্ন

রুয়ান্ডা আর ব্রিটেন কি এক হল, ব্রিটেন যেতে চায় মানুষ উন্নত জীবনের লক্ষ্যে বা নিরাপত্তার জন্য, শিক্ষা দীক্ষা আর আধুনিক জ্ঞানের অধিকারী হতে রুয়ান্ডা গিয়ে জজ্ঞল চাপ করার চেয়ে মালয়শিয়া জঙ্গল পরিষ্কার করা ভাল। আসল কথা রিশিশুনাক ইন্ডিয়ান সে চায় শুধু কোষলে ইন্ডিয়ানদের ব্রিটেনে অভিবাসী করতে,এটা হল এক মস্ত বড় দান্দা, যেমন আমেরিকায় এখন ৫০% ইন্ডিয়ান নাসায় কাজ করে। তাই এই বিল বাতিল চাই আমারও।

Faiz Ahmed
২৪ এপ্রিল ২০২৪, বুধবার, ১১:৩৯ পূর্বাহ্ন

ভালে সিদ্ধান্ত।

মিলন আজাদ
২৪ এপ্রিল ২০২৪, বুধবার, ৪:০২ পূর্বাহ্ন

বিশ্বজমিন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

   

বিশ্বজমিন সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2024
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status