ঢাকা, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, শুক্রবার, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ১২ শাবান ১৪৪৫ হিঃ

দেশ বিদেশ

মৌলভীবাজারে ওরসের নামে অশ্লীল উন্মাদনা, ক্ষোভ

স্টাফ রিপোর্টার, মৌলভীবাজার থেকে
১২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, সোমবার
mzamin

ওরসের নামে নারী শিল্পীদের দিয়ে রাতভর রমরমা গান। আর সেই গানের তালে নারী, পুরুষ ও যুবক-যুবতীদের উন্মাতাল নৃত্য ও উন্মাদনা। পবিত্র ওরসের নামে এমন অশ্লীলতায় স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে ক্ষোভ প্রকাশ করছেন পুরো উপজেলার মানুষ। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ওই ওরসের এমন উন্মাতাল গান ও নাচের ভিডিও এখন ভাইরাল। এমন দৃশ্যে স্থানীয় বাসিন্দাদের মাঝে বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। আগামীতে এরকম অশ্লীলতা বন্ধে তারা তৎপর হচ্ছেন।  জানা যায়, মৌলভীবাজার সদর উপজেলার উত্তর আটঘর গ্রামে গত শুক্রবার রাতে আতর আলী পীর সাহেবের মাজার শরিফে ৫১তম ওরস উপলক্ষে এ আয়োজন করা হয়। ওরসে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আসা ৬ জন নারী শিল্পী গানের সাথে অশ্লীলভাবে অঙ্গভঙ্গিও প্রদর্শন করেন। এ সময় ওখানকার মাইক ও সাউন্ড বক্সের উচ্চ ও বিকট শব্দে এলাকার শিশু, বৃদ্ধ অসুস্থ লোকজনসহ এবারের এসএসসি পরীক্ষার্থীরা চরম দুর্ভোগ পোহান। স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, সন্ধ্যার পর থেকে ওখানে গানের আসর শুরু হয়।

বিজ্ঞাপন
আসরের কাফেলাগুলোতে উপজেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে প্রায় ২ হাজারেরও অধিক যুবক, যুবতী, নারী ও পুরুষ দর্শক উপস্থিত ছিলেন। সারারাত নারী শিল্পীরা নানা অশ্লীল অঙ্গ ভঙ্গিমায় গান পরিবেশন করে আসর জমিয়ে রাখেন। 

তাদের এমন উন্মাতাল আচরণে অতিষ্ঠ হয়ে একপর্যায়ে স্থানীয় বাসিন্দারা মাইকের উচ্চ শব্দ বন্ধ করার অনুরোধ করলেও আয়োজকরা তা গুরুত্বই দেননি। গানের পাশাপাশি গাজা ও নেশাদ্রব্য সেবন করেন যুবকরা।  আয়োজকদের মধ্যে ছিলেন শাহ আতর আলীর ছোট ছেলে শাহ ফরজান আলী। সহযোগিতাকারী হিসেবে ব্যানারে নাম উল্লেখ ছিল ফখরুল মিয়া, আখলু মিয়া, সৈয়দ মিয়া, তুহিন মিয়া, কামাল, হামিদ মিয়া ও শাহেন এর। পুরো অনুষ্ঠান সামনের সারিতে বসে উপভোগ করে দুইজন ইউপি সদস্য।  এ বিষয়ে জানতে চাইলে নাজিরাবাদ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আশরাফ উদ্দিন আহমদ মানবজমিনকে বলেন, ওই মাজারে আগে ওরস হলেও এরকম অশ্লীলতা কখনো হয়নি। আমি অসুস্থ ছিলাম তাই ঘটনাস্থলে না গেলেও পরে জেনেছি। স্থানীয়রা প্রতিবাদ করলে একপর্যায়ে তারা মাইক বন্ধ করে সাউন্ড বক্সের মাধ্যমে অনুষ্ঠান চালায়। আগামীতে যাতে এরকম না হয় এ বিষয়ে সংশ্লিষ্টরা কমিটমেন্ট দিয়েছেন। আমরা পবিত্রতার নামে কখনো অশ্লীলতা ও বেহায়াপনা প্রশ্রয় দিতে পারি না। এ ব্যাপারে এলাকাবাসী সোচ্চার রয়েছেন।

দেশ বিদেশ থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2023
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status