ঢাকা, ২৫ জুন ২০২২, শনিবার, ১১ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৪ জিলক্বদ ১৪৪৩ হিঃ

দেশ বিদেশ

মহাসড়কে মোটরসাইকেল চলাচল নিষিদ্ধের সুপারিশ

স্টাফ রিপোর্টার
২২ জুন ২০২২, বুধবার

ঈদুল আজহায় মহাসড়কে দুর্ঘটনা এড়াতে মোটরসাইকেল চলাচল নিষিদ্ধের সুপারিশ করেছে বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি (বিআরটিএ)।  রোববার বিআরটিএ’র প্রধান কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে ‘সড়ক নিরাপত্তা বিষয়ক’- এক কর্মশালায় এই সুপারিশ জানায় সংস্থাটি। বিআরটিএ’র সুপারিশগুলো হলো- জাতীয় মহাসড়কে মোটরসাইকেল চলাচল নিষিদ্ধ করা। তবে জাতীয় মহাসড়ক সার্ভিস রোড থাকলে উক্ত সার্ভিস রোডে মোটরসাইকেল চলাচল করতে পারবে; দ্রুত ও বেপরোয়া গতিতে চলাচল করা মোটরযান এবং অনুমোদিত ওভারটেকিং করা মোটরযানের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা; জাতীয় মহাসড়কে হিউম্যান হলার, থ্রি হুইলারসহ নসিমন, করিমন, ইজিবাইক ইত্যাদি চলাচল বন্ধ করা; ফুটওভার ব্রিজ অথবা জেব্রা ক্রসিং ব্যবহারসহ রাস্তায় চলাচল ও পারাপারের নিয়ম-কানুন সম্পর্কে পথচারী এবং স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের মাঝে সচেতনতা সৃষ্টি করা; পেশাদার গাড়ি চালকদের ট্রাফিক সাইন, ট্রাফিক আইন এবং দায়িত্ববোধ সম্পর্কে সচেতনমূলক স্বল্প মেয়াদি প্রশিক্ষণ প্রদান অব্যাহত রাখা; খেলাপি এবং যথাযথ কাগজপত্র বিহীন মোটরযানের বিরুদ্ধে অভিযান জোরদার করা এবং জাতীয় মহাসড়ক দুর্ঘটনাপ্রবণ স্থানে সিসি ক্যামেরা স্থাপন করা। কর্মশালায় বিআরটিএ জানায়, গত ঈদযাত্রার ৬ দিনে জাতীয় মহাসড়কে ২৭টি সড়ক দুর্ঘটনা সংঘটিত হয়। এসব দুর্ঘটনায় ৩৮ জন নিহত ও ৯২ জন আহত হন। ঈদুল ফিতরের সময় মহাসড়কে দুর্ঘটনা ও প্রাণহানি বেড়ে যাওয়ার বড় কারণ মোটরসাইকেলে যাত্রী বহন। কেননা দেশে কয়েক বছর ধরে মোটরসাইকেলের সংখ্যা বাড়ছে। পাল্লা দিয়ে বাড়ছে দুর্ঘটনাও। বাংলাদেশ রোড সেফটি ফাউন্ডেশনের তথ্য অনুযায়ী, ২০২১ সালে দেশে মোট ২ হাজার ৭৮টি মোটরসাইকেল দুর্ঘটনা ঘটে।

বিজ্ঞাপন
এতে মারা যান ২ হাজার ২১৪ জন, যা ওই বছর সড়ক দুর্ঘটনায় মোট মৃত্যুর ৩৫ শতাংশ। ২০২১ সালে দেশে আগের বছরের চেয়ে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনা ৫০ শতাংশ ও মৃত্যু ৫১ শতাংশ বেড়েছে।
 

দেশ বিদেশ থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

দেশ বিদেশ থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com