ঢাকা, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, বুধবার, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৭ শাওয়াল ১৪৪৫ হিঃ

রাজনীতি

পুলিশি বাধায় ১২ দলীয় জোটের ভারতবিরোধী সমাবেশ পণ্ড

স্টাফ রিপোর্টার

(১ মাস আগে) ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, শনিবার, ১২:৪৬ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ৫:২১ অপরাহ্ন

mzamin

পুলিশি বাধা উপেক্ষা করে হ্যাশট্যাগ ইন্ডিয়া আউট ইন্ডিয়া বয়কট মিছিল করে ১২ দলীয় জোট। আজ সকাল ১১ ঘটিকায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে থেকে মিছিলের প্রস্তুতি নেয়ার পূর্বেই পুলিশি বাধার মুখে পড়ে ১২ দলীয় জোট এর মিছিলটি। পুলিশের মারমুখী আচরণে মিছিলটি বন্ধ হয়ে যায়। পুলিশ জোটের ব্যানার ও ফেস্টুন কেড়ে নেয়। ব্যানার ছাড়াই ১২ দলীয় জোট নেতৃবৃন্দ মিছিল শুরু করেন এবং পল্টন মোড়ে গিয়ে মিছিলটি শেষ হয়। সেখানে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে ১২ দলীয় জোটের মুখপাত্র ও বাংলাদেশ এলডিপির মহাসচিব শাহাদাত হোসেন  ভারতীয় আগ্রাসন ও বাংলাদেশের রাজনীতিতে ভারতের নগ্ন হস্তক্ষেপের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। সেলিম জনগণকে ভারতীয় পণ্য বয়কটের আহ্বান জানান। তিনি বলেন, দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমরা রাজপথে থাকবো।

আজ শনিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) সকালে রাজধানীর  তোপখানা রোডে বিএমএ ভবনের সামনে ১২ দলীয় জোটের এক বিক্ষোভ মিছিল পরবর্তী সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে এসব কথা বলেন সেলিম। এর আগে পুলিশি বাধায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে পূর্বঘোষিত  বিক্ষোভ মিছিলপূর্ব সমাবেশ করতে পারেননি জোট নেতারা। দায়িত্বরত পুলিশ কর্মকর্তারা তখন বলেন, আপনারা  দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি নিয়ে  কর্মসূচি করতে পারেন।

বিজ্ঞাপন
এখানে আমাদের তরফ থেকে কোনো বাধা নেই। কিন্তু কোনো রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে কর্মসূচি করতে দিতে পারি না। 

সরেজমিন দেখা যায়, সকাল ১১টার দিকে ১২ দলীয় জোটের নেতাকর্মীরা সমাবেশের জন্য জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনের ফুটপাতে জড়ো হতে থাকেন। এ সময় তারা স্লোগানও দিতে থাকেন।  এক পর্যায়ে পুলিশ এসে তাদের ব্যানার ছিনিয়ে নেয় এবং জোট নেতাদের সাথে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন। পরে নেতারা পুলিশি বাধায় সমাবেশ না করে বিক্ষোভ মিছিল শুরু করেন।

বিক্ষোভ মিছিল শেষে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে 
বারো দলীয় জোটের সমন্বয়ক বাংলাদেশ জাতীয় দলের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট সৈয়দ এহেসানুল হুদা বলেন, বয়কট ইন্ডিয়া আন্দোলন চলমান আছে এবং এই আন্দোলন চলবে । তিনি বলেন, পৃথিবীর যেকোনো রাষ্ট্রে আমরা দেখেছি আগ্রাসনের বিরুদ্ধে দেশপ্রেমিক জনগণ প্রতিবাদে সোচ্চার থাকে কিন্তু আমাদের দেশে দিল্লির তাবেদার সরকার মানুষের কথা বলার অধিকার কেড়ে নিয়েছে। তিনি দেশের আপামর জনগণকে ভারতীয় পণ্য বর্জনের আহবান জানান। জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টির (জাগপা) সিনিয়র সহ-সভাপতি রাশেদ প্রধান বলেন, ১২ দলীয় জোটের আন্দোলন চলছে। সরকারের পতন না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন অব্যাহত থাকবে।

বিক্ষোভ মিছিলে আরো উপস্থিত ছিলেন লেবার পার্টির চেয়ারম্যান লায়ন ফারুক রহমান, ইসলামী ঐক্যজোটের মহাসচিব মাওলানা আব্দুল করিম,  মাওলানা শওকত আমিন, বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির একাংশের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান শামসুদ্দিন পারভেজ, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের সাংগঠনিক সম্পাদক মুফতি জাকির হোসেন। 

কর্মসূচির শুরুতে ১২ দলীয় জোটের প্রধান ও  জাতীয় পার্টির (কাজী জাফর) চেয়ারম্যান মোস্তফা জামাল হায়দার, মহাসচিব আহসান হাবীব লিংকন উপস্থিত ছিলেন।

পাঠকের মতামত

Boycott India, Boycott Indian products.

AA
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, শনিবার, ৮:৩৯ অপরাহ্ন

সবাই ভারতীয় পণ্য বয়কট করুন।

Azad
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, শনিবার, ৯:১৬ পূর্বাহ্ন

"দেশ আমার, তুমি কে?" আওয়ামী লীগ ক্ষমতার ভারতের গোলামী করে কিন্তু ভারতও তার গোলামে মনেপ্রাণে বিশ্বাস করে তাহা নয়। তাই "র" এবং ভরতের মদদপুষ্ট ইস্কন সহ কয়েকটি হিন্দুবাদী সংগঠনকে স্বরব রেখেছে, এরাই মুলত প্রশাসনকে নিয়ন্ত্রন করে। যেমন সচিবালয়ে এবং দপ্তর অধিদপ্তরের উচ্চপর্যায়ে হিঁন্দু সম্প্রদায় এরা মুলত "র" এর নিয়োগ প্রাপ্ত। পুলিশের এসপি চক্রবর্তী হয় সেখানে আব্দুল্লাহ নামক দেশপ্রেমিক ওসির কাম নাই। কাম করতে চাইলেও স্থানীয়ভাবে গোলাম সরকারের এমপি রয়েছে, অবাধ্য হলে হয়ত চাকরি যাবে নয়ত দূর্গম জঙ্গলে বদলি। এই হচ্ছে স্বাধীন বাংলাদেশের বর্তমান হালত।

শাজিদ
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, শনিবার, ৭:০৭ পূর্বাহ্ন

"বাংলার জন্য হয়নি স্বাধীন মুক্তিযুদ্ধের বাংলাদেশ, সার্বভৌমত্ব রক্ষা করবো নব্য রাজাকার হবে শেষ।"

শাহ আলম
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, শনিবার, ৬:১২ পূর্বাহ্ন

ইন্ডিয়ান আগ্রাসন প্রতিহত করার জন্য India Boycott/ইন্ডিয়ান পণ্য বর্জন আন্দোলনকে সফল করতেই হবে। আসুন আমরা সবাই মিলে ইন্ডিয়া খেদাই ইন্ডিয়ান খেদাই ইন্ডিয়ান দালাল খেদাই ইন্ডিয়ান পণ্য বর্জন করি ইন্ডিয়ান পণ্যের ব্যবসায়ীদের বর্জন করি ইন্ডিয়ায় যাবোনা ইন্ডিয়ান TV দেখবোনা

বোদাই
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, শনিবার, ৪:৫৬ পূর্বাহ্ন

সরকার বিরোধী রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মী এবং তাদের আত্মীয় স্বজনরাই যদি ভারতীয় পণ্য বয়কট করে তাহলে ভারতের এই সাম্রাজ্যবাদী আগ্রাসন এই মাটি থেকে বিদায় হতে বাধ্য।

রাজিকুল ইসলাম
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, শনিবার, ৪:৪৩ পূর্বাহ্ন

স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব রক্ষার এই লড়াই, একটি লুটপাট মডেলের সরকার কে ক্ষমতায় টিকিয়ে রাখার লক্ষ্যে লক্ষ শহীদের রক্তের বিনিময়ে অর্জিত হইনি এই দেশ । যতদিন পর্যন্ত প্রকৃত স্বাধীনতা অর্জন হইনি ততদিন পর্যন্ত আন্দোলন চলবে চলবে!

বন্ধু খান
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, শনিবার, ৩:০৭ পূর্বাহ্ন

ভারতের অঙ্গরাজ্যে বসবাস করে ভারতের বিরুদ্ধে মিটিং মিছিল করবেন তা কিভাবে সম্ভব? বাংলাদেশ এখন ভারতের অঙ্গরাজ্য। পুলিশের ভাষ্যমতে দ্রর্ব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি নিয়ে কথা বলতে কোনো অসুবিধা নেই তবে ভারতের বিরুদ্ধে মিটিং মিছিল করা যাবে না। এই হলো দেশের বর্তমান অবস্থা।

শওকত আলী
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, শনিবার, ১২:৫৮ পূর্বাহ্ন

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

   

রাজনীতি সর্বাধিক পঠিত

পিটার হাসকে ওবায়দুল কাদেরের প্রশ্ন/ যুক্তরাষ্ট্র গণতন্ত্রে কত ধাপ পিছিয়েছে

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2024
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status