ঢাকা, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, বুধবার, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৭ শাওয়াল ১৪৪৫ হিঃ

বিনোদন

দর্শক খরায় নতুন সিনেমা

ফয়সাল রাব্বিকীন
২০ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, মঙ্গলবার
mzamin

চলতি বছর যে ক’টি সিনেমা এখন পর্যন্ত মুক্তি পেয়েছে তার কোনোটিই ব্যবসা করতে পারেনি। এমনকি দু-একটি ছবি দু’দিন চালিয়েই অনেক হল নামিয়ে ফেলতে বাধ্য হয়েছে। তার বদলে চালানো হচ্ছে পুরনো সিনেমা। ঈদ ছাড়া যে সিনেমা চলে না তার আরও একটি উদাহরণ গত দেড় মাসে মুক্তি পাওয়া সিনেমাগুলো। জানুয়ারিতে চারটি ছবি মুক্তি পেয়েছে। এরমধ্যে ছিল মোশাররফ করিমের ‘হুব্বা’, সাইমন সাদিকের ‘শেষ বাজি’, ডি এ তায়েব-পরীমনির ‘কাগজের বউ’, এবং আরজু-তানহার ‘রুখে দাঁড়াও’। শেষ দুটি ছবি খুব একটা আলোচনায়ও ছিল না। বেশির ভাগ হলেই এক সপ্তাহের বেশি চলেনি। অন্যদিকে মোশাররফ করিম অভিনীত কলকাতা থেকে আমদানিকৃত ‘হুব্বা’ নিয়ে অনেক প্রত্যাশা থাকলেও তার সিকিভাগও পূরণ হয়নি। সাইমন সাদিক নিজেই ‘শেষ বাজি’র প্রচার নিয়ে অসন্তুষ্ট ছিলেন।

বিজ্ঞাপন
এমনকি ছবি সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে দ্বন্দ্বও তৈরি হয় তার সঙ্গে। সবমিলিয়ে প্রচারণার অভাবসহ নানা কারণে ‘শেষ বাজি’ টিকতে পারেনি হলে। জানুয়ারির চাইতেও খারাপ অবস্থা চলতি ফেব্রুয়ারিতে এসে। এ মাসের প্রথম ভাগে মুক্তি পায় অপু বিশ্বাস-জয় চৌধুরীর ‘ট্র্যাপ’। ছবিটি মুক্তির পরই মুখ থুবড়ে পড়ে। অন্যদিকে একই সময়ে মুক্তি পাওয়া জয়া আহসানের ‘পেয়ারার সুবাস’ প্রশংসিত হলেও ব্যবসায়িকভাবে হয়েছে ব্যর্থ।

 সর্বশেষ গত শুক্রবার মুক্তি পাওয় অপু বিশ্বাস ও নিরব অভিনীত ‘ছায়াবৃক্ষ’ এবং দীঘি অভিনীত ‘শ্রাবণ জোছনায়’ ছবি দু’টিও ধোপে টিকেনি। ‘শ্রাবণ জোছনায়’ অনেক হলেই দু’দিন চালিয়ে নামিয়ে ফেলা হয়েছে। কাছাকাছি অবস্থা ‘ছায়াবৃক্ষ’রও। সবমিলিয়ে দারুণ দর্শক খরায় ভুগছে সিনেমা হলগুলো। কোনো সিনেমাই চলছে না। এমন অবস্থায় হলগুলোর টিকে থাকা দুঃসাধ্য হয়ে দাঁড়িয়েছে। এ বিষয়ে মধুমিতা সিনেমা হলের কর্ণধার ইফতেখার উদ্দিন নওশাদ বলেন, এখন পর্যন্ত এ বছরের অবস্থা খুবই নাজুক। কোনো সিনেমাই চলছে না। আসলে ভালো ও বড় ছবিগুলো ঈদের জন্য রেখে দেয়া হয়। এ কারণে ঈদে ভালো ছবির সংখ্যা বাড়ে। অন্য সময়ে ছোট বাজেটের ছবি মুক্তি পাচ্ছে। কাস্টিংও তুলনামূলক দুর্বল। আর দর্শকও ঈদেই সিনেমা দেখতে বেশি অভ্যস্ত। সবমিলিয়ে দেশের সিনেমা হয়ে দাঁড়িয়েছে ঈদনির্ভর। এখান থেকে বের হতে না পারলে সিনেমা হলগুলোর টিকে থাকা মুশকিল হয়ে যাবে। এদিকে মার্চেও মুক্তির তালিকায় আছে কয়েকটি ছবি। অন্যদিকে মার্চের মাঝামাঝি শুরু হবে রমজান। সে সময়ে কোনো সিনেমা মুক্তি দেয়া হয় না। সবমিলিয়ে ঈদের আগে দেশের সিনেমায় তেমন কোনো সুখবর পাওয়ার আভাস নেই, এমনটাই মনে করছেন চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টরা।

পাঠকের মতামত

সিনেমা বাংলাদেশে এখন তেমন চলবে না। কাকতালীয়ভাবে কিছু সিনেমা হয়তো কালেভদ্রে চলবে বলে মনে হয়। এটা বুঝতে পেরে আমাদের দেশের অধিকাংশ নায়ক-নায়িকারা রাজনীতিতে উঠেপড়ে লেগেছে। এমনকি সংসদে পর্যন্ত চলে গেছে। কিছু কিছু নায়িকারা ভারতে পাড়ি জমিয়েছে কোনোমতে মার্কেট ধরে রাখার স্বার্থে।

শওকত আলী
১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, সোমবার, ৯:৩২ অপরাহ্ন

এখন মানুষের পেটে ভাত নেই, সেটা জোগাড় করা দায়, এর মাঝে সিনেমা দেখার পয়সা পাবে কোথায় ?? অর্থনীতিতে এই অবস্থা বেশী দিন চলতে থাকলে, সিনেমা তো দূরের কথা, বেচেঁ থাকা দুর্ভেদ্য হয়ে যেতে পারে।

মুশফিক
১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, সোমবার, ৫:২৬ অপরাহ্ন

বিনোদন থেকে আরও পড়ুন

   

বিনোদন সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2024
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status