ঢাকা, ১৯ আগস্ট ২০২২, শুক্রবার, ৪ ভাদ্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২০ মহরম ১৪৪৪ হিঃ

শেষের পাতা

নিকলীতে দলবদ্ধ ধর্ষণে গৃহবধূর মৃত্যু, স্বামীসহ গ্রেপ্তার ৪

স্টাফ রিপোর্টার, কিশোরগঞ্জ থেকে
৩০ জুন ২০২২, বৃহস্পতিবার

কিশোরগঞ্জের নিকলীতে গণধর্ষণের শিকার হয়ে এক গৃহবধূ (১৯) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে। গত সোমবার রাতে গণধর্ষণের ঘটনার পর মঙ্গলবার রাত ২টার দিকে কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গৃহবধূর মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় গতকাল ভোরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে স্বামী লাল চাঁন মিয়া (৩১)সহ মোট ৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে। গ্রেপ্তার হওয়া অন্য ৩ জন হচ্ছে- রন্টু চৌকিদার (৪০),  নাসিরুদ্দীন (৩৮) ও শরীফ মিয়া (৩২)। নিহত গৃহবধূ উপজেলার জারইতলা ইউনিয়নের হাফসরদিয়া গ্রামের লাল চাঁন মিয়ার স্ত্রী। তার বাবার বাড়ি রসুলপুর নয়াহাটি গ্রামে।   পুলিশ ও পারিবারিক সূত্র জানায়, প্রায় ৯ মাস আগে হাফসরদিয়া গ্রামের মৃত রাজু মিয়ার ছেলে লাল চাঁন মিয়ার সঙ্গে পিতৃহীন মেয়েটির বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে লাল চাঁন মিয়া তার স্ত্রীকে দিয়ে পতিতাবৃত্তি করানোর চেষ্টায় লিপ্ত ছিল। কিন্তু নানা কৌশলে গৃহবধূ নিজেকে রক্ষা করে আসছিল। 

এ পরিস্থিতিতে সোমবার রাত ৮টার দিকে গৃহবধূ বাবার বাড়ি উত্তর রসুলপুর গ্রাম থেকে স্বামীর বাড়ি হাফসরদিয়া গ্রামে যাওয়ার উদ্দেশে রওনা হয়। পথে শাহপুর রাস্তার মোড় থেকে তাকে তুলে নিয়ে পার্শ্ববর্তী পতিত জমিতে ৬-৭ জন মিলে রাতভর ধর্ষণ করে।

বিজ্ঞাপন
মঙ্গলবার সকালে বিবস্ত্র অবস্থায় গৃহবধূকে তারা রাস্তায় ফেলে যায়। স্থানীয়রা গৃহবধূকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় উদ্ধার করে নিকলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে রেফার্ড করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার রাত ২টার দিকে গৃহবধূর মৃত্যু হয়। 

এ ঘটনায় নিহত গৃহবধূর মামা জাহাঙ্গীর আলম বাদী হয়ে স্বামী লাল চাঁন মিয়াসহ ৭ জনের নামোল্লেখ ও অজ্ঞাত ৩/৪ জনকে আসামি করে গতকাল নিকলী থানায় মামলা (নং-৯) করেছেন। তাদের মধ্যে পুলিশ স্বামী লাল চাঁন মিয়া, রন্টু চৌকিদার, নাসিরুদ্দীন ও শরীফ মিয়াকে গ্রেপ্তার করেছে। এ ব্যাপারে নিকলী থানার ওসি মুহাম্মদ মনসুর আলী আরিফ জানান, গৃহবধূ মারা যাওয়ার আগে পুলিশের কাছে দেয়া জবানবন্দিতে গণধর্ষণের ঘটনায় জড়িত পাঁচজনের নাম জানিয়েছে। তাদের মধ্যে রনি মিয়া ছাড়া বাকি ৪ জনকে পুলিশ অভিযান চালিয়ে গ্রেপ্তার করেছে। রনি মিয়াসহ মামলার অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশ অভিযান অব্যাহত রেখেছে।

পাঠকের মতামত

হে আল্লাহ বোনটিকে জান্নাতুল ফিরদাউস দান কর আর বাকি সব বিপদ গ্রস্ত ও অমানবিক ভাবে নির্যাতিত মা বোনদের প্রতি সহায় হউন "আমীন "

rst
৩০ জুন ২০২২, বৃহস্পতিবার, ১০:৩১ অপরাহ্ন

In Arab countries their punishment is direct shoot. but we are so called democratic country where never have chance to get justice within 10 years. law is exists but no proper implement. So to whom I will ask for justice. Only to God oh God you know what happened with this innocent orphan. I am praying to you give punishment to those criminals.

Md. Nur Nobi
৩০ জুন ২০২২, বৃহস্পতিবার, ১০:২১ অপরাহ্ন

এই সব হায়েনাদের পক্ষে কোনো আইনজীবীর কোর্টে দাঁড়ানো উচিত নয়, এরা মানুষ নয় এরা পশুর চেয়েও নিকৃষ্ট প্রাণী, এদের ফাসিসহ আরো দৃষ্টান্ত মূলক কঠোর শাস্তি হওয়া উচিৎ যাতে হবু হায়েনারা এ ধরনের অপরাধ করার আগে শতবার ভাববে। জনসম্মুখে অতি দ্রুত এদের ফাসিতে ঝোলানো উচিত।

বদরুল আলম
৩০ জুন ২০২২, বৃহস্পতিবার, ৯:১১ অপরাহ্ন

এদের প্রকাশ্যে ফাঁসি চাই

মো:আমিনুল ইসলাম
৩০ জুন ২০২২, বৃহস্পতিবার, ৮:০৯ অপরাহ্ন

I agree punishment should be death penalty or minimum dick should be removed by operation. one of the African country follow this rule. after impose few of the punishment i guess crime rate will be less then 50%. So govt. should take step to protect women.

Shamim
৩০ জুন ২০২২, বৃহস্পতিবার, ২:৪২ অপরাহ্ন

Send them to Afghanistan or India. One Hell for them, later is Haven for them.

Sword for criminal
৩০ জুন ২০২২, বৃহস্পতিবার, ১:১৪ অপরাহ্ন

Send them to Afghanistan, or Saudi Arabia, Indonesia/Philippines, North Korea, or even China also has justice for this kind of henious crime. In BD, no justice. Or send them to India, sothat they can find their Haven of Raping over there. In USA and China, they can used for medical organ research and Bio therapy trials.

Sword Bullet
৩০ জুন ২০২২, বৃহস্পতিবার, ১:০৪ অপরাহ্ন

এদের যন্ত্রনাদায়ক মৃত্যু কাম্য ।

Quamrul
৩০ জুন ২০২২, বৃহস্পতিবার, ১০:২১ পূর্বাহ্ন

সংশ্লিষ্ট থানার পুলিশ কর্মকর্তাদের মানবিক এবং শরিয়তের দৃষ্টিকোন থেকে বিচার করলে,তাহলেই সঠিক বিচার হবে অন্যথায় কখনো সঠিক বিচার হবেনা,কারণ টাকা দিয়ে সবকিছুই করা যায়

Aziz
৩০ জুন ২০২২, বৃহস্পতিবার, ৯:১৩ পূর্বাহ্ন

জানোয়ারদের প্রকাশ‍্য ফাঁসি চাই ।

MILON K. CHOWDHURY.
৩০ জুন ২০২২, বৃহস্পতিবার, ৪:৫৯ পূর্বাহ্ন

এই হায়নাদের প্রকাশ্যে ঝুলিয়ে ফাঁসি দেয়া উচিৎ যাতে হবু হায়নাদের মনে একটু ভীতির সঞ্চার হয়।

আব্দুল জব্বার
৩০ জুন ২০২২, বৃহস্পতিবার, ২:২৪ পূর্বাহ্ন

এই হায়েনাদের পক্ষে কোনো আইনজীবী কোর্টে দাঁড়ানো উচিত না, এরা মানুষ নয় এরা পশুর চেয়েও নিকৃষ্ট প্রাণী, এদের দৃষ্টান্ত মূলক কঠোর শাস্তি অতি দ্রুত হ‌ওয়া উচিৎ।

নূর মোহাম্মদ এরফান
৩০ জুন ২০২২, বৃহস্পতিবার, ১:৪৩ পূর্বাহ্ন

জানোয়ারদের প্রকাশ‍্য ফাঁসি চাই ।

জামাল মজুমদার
৩০ জুন ২০২২, বৃহস্পতিবার, ১:২২ পূর্বাহ্ন

যতদিন ধর্ষণের শাস্তি খোঁজা বানানোর আইন হবে না ততদিন ধর্ষণ থামবে না । মৃত্যুদণ্ডে কাজ না হলেও খোঁজা করার আইন মন্ত্রের মত কাজ করবে ।

Kazi
৩০ জুন ২০২২, বৃহস্পতিবার, ১:১৫ পূর্বাহ্ন

এই নরপশু পুরুষ নামের কলংক নিজ স্ত্রীকে দিয়ে কিভাবে দেহব্যবসা করাতে চায়? এদেরকে নপুংসক করে দেওয়া উচিৎ যাতে আর কারো সাথে ওরা এনকম ঘৃণ্য অপরাধ করতে না পারে।

Ahmed Usmani
২৯ জুন ২০২২, বুধবার, ১১:৪৯ অপরাহ্ন

শেষের পাতা থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

শেষের পাতা থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status