ঢাকা, ২৬ জুন ২০২২, রবিবার, ১২ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৫ জিলক্বদ ১৪৪৩ হিঃ

দেশ বিদেশ

‘পূজামণ্ডপে হামলা’ নিয়ে প্রপাগান্ডা হয়: মোমেন

কূটনৈতিক রিপোর্টার
২৪ জুন ২০২২, শুক্রবার

বাংলাদেশে হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর নির্যাতন, মন্দির ভাঙচুর এবং পূজামণ্ডপে ‘কথিত হামলা’ নিয়ে প্রপাগান্ডা হয় বলে দিল্লিকে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন। দেশটির জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভালের সঙ্গে সাম্প্রতিক বৈঠকে এ নিয়ে আলোচনা হয়। ২০শে জুন নয়া দিল্লিতে অনুষ্ঠিত বৈঠকে দোভালকে মোমেন বলেন, সেই প্রোপাগান্ডা নিয়ে অনেকের মধ্যে ভুল ধারণা তৈরি হয়। বৈঠক সূত্র জানায়, পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিজে থেকেই কথাটি তোলেন এবং অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশে ধর্ম ও বিশ্বাসের চর্চার ক্ষেত্রে যে প্রতিবন্ধকতা বা রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতা নেই সেটি স্পষ্টভাবে তুলে ধরেন। তিনি বাংলাদেশের ধর্মীয় স্বাধীনতার বিস্তারিত তুলে ধরেন। মন্ত্রী দিল্লির নিরাপত্তা উপদেষ্টাকে খোলাসা করেই বলেন, সরকারি পৃষ্ঠপোষকতায় রাজধানীসহ সারা দেশে এ বছর প্রায় ৩৩ হাজার পূজামণ্ডপ তৈরি করা হয়েছে এবং এরমধ্যে একটি বা দু’টিতে সমস্যা হতে পারে। এছাড়া ছোট একটি দেশের মধ্যে এত লোক বাস করে এবং সে কারণে অনেক সময় অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটতে পারে। এটার স্বার্থান্বেষী মহলের কাজ। এর সঙ্গে ধর্মের কোনো সম্পর্ক নেই। বাংলাদেশে কাউকে সংখ্যাগুরু বা সংখ্যালঘু হিসেবে বিবেচনা করা হয় না বলেও জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

বিজ্ঞাপন
বলেন, এ বিষয়েও অনেকে মিথ্যা প্রচারণা করে এবং বিষয়টি নিয়ে যেন ভুল বোঝাবুঝির তৈরি করে। বৈঠকে অজিত দোভাল কী বলেছেন জানতে চাইলে বাংলাদেশ সরকারের এক কর্মকর্তা মানবজমিনকে  বলেন, তিনি বিষয়টি নোটে নিয়েছেন, একই সঙ্গে সরকারি পৃষ্ঠপোষকতায় পূজামণ্ডপ তৈরি এবং শান্তিপূর্ণভাবে পূজা-অর্চনা নিশ্চিতে সরকারি উদ্যোগের বিষয়গুলো আরও বেশি করে প্রচারের তাগিদ দেন। উল্লেখ্য, বাংলাদেশে সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে ‘জিরো টলারেন্সের’ কারণে উত্তর-পূর্ব ভারতে যে শান্তি এবং স্থিতিশীলতা এসেছে দিল্লির বৈঠকগুলোতে এ নিয়ে প্রশংসা পেয়েছে ঢাকা। উল্লেখ্য, বাংলাদেশ-ভারত পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের জয়েন্ট কনসালটেটিভ কমিশনের বৈঠকে যোগ দিতে গত ১৮ই জুন পররাষ্ট্রমন্ত্রী দিল্লি যান। সফরকালে বিদেশমন্ত্রী ড. এস জয়শঙ্কর এবং জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভালের সঙ্গে পৃথক ছাড়াও ভারতের উপ-রাষ্ট্রপতি, বাণিজ্যমন্ত্রী, জ্বালানিমন্ত্রীসহ বিভিন্ন পর্যায়ে আলোচনা হয় তার।

 

পাঠকের মতামত

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন সাহেব কে আমি জ্ঞেয়ানি মানুষ হিসেবে অনুমান করে থাকি তবে দোভালকে মন্দির ভাঙচুর এবং পূজামণ্ডপে ‘কথিত হামলা’ নিজে থেকে তুলে ধরাটা বুদ্দিমানের কাজ হবার নয়। ইহা নত জানু সনাক্ত করে। ইহাতে কোন প্রাপ্তি নাই। যদি দোভাল প্রশ্ন করে থাকতেন বাংলদেশের হিন্দুদের খবর কি ? তখন এমনটা বলার ধরকার পরে বা পরেনা।উত্তর হতে পারে ধর্ম চর্চা বাংলাদেশে সকল ধর্মে সাভাবিক উন্মুক্ত ও স্বাধীন ,সতন্ত।

SJ
২৩ জুন ২০২২, বৃহস্পতিবার, ৩:৩৬ অপরাহ্ন

দেশ বিদেশ থেকে আরও পড়ুন

দেশ বিদেশ থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com