ঢাকা, ২৫ জুন ২০২২, শনিবার, ১১ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৪ জিলক্বদ ১৪৪৩ হিঃ

বাংলারজমিন

লোহাগড়ায় ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে হত্যা

লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি
২৩ জুন ২০২২, বৃহস্পতিবার

নড়াইলের লোহাগড়ায় একজন বেকারি ব্যবসায়ীকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হাত-পা ভেঙে হত্যা করেছে একদল দুর্বৃত্ত।  গতকাল দুপুর ২টার দিকে উপজেলার রামকান্তপুর গ্রামের সবুর সরদারের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। নিহত আজিজুর বিশ্বাস (৪২) রামকান্তপুর গ্রামের মৃত গহর বিশ্বাসের ছেলে ও লোহাগড়া বাজারের বেকারির দোকানি। জানা গেছে, গ্রাম্য কোন্দল ও পূর্ব বিরোধকে কেন্দ্র করে একই গ্রামের মিঠু সরদারের সঙ্গে আজিজুরের দ্বন্দ্ব-সংঘাত চলে আসছিল। সৃষ্ট বিরোধের জের ধরে গত দুই মাস আগে নিহতের সঙ্গে মিঠুর মারপিটের ঘটনাও ঘটে। এ নিয়ে মিঠু বাদী হয়ে আজিজুর ও তার সহযোগীদের নামে লোহাগড়া থানায় মামলা করেন। ওই মামলায় আজিজুর এক সপ্তাহের হাজতবাস শেষে জামিনে মুক্ত হয়ে গ্রামে ফিরে আসেন। গতকাল দুপুর আনুমানিক ২টার দিকে আজিজুর পার্শ্ববর্তী শিয়রবর হাট থেকে ভ্যানযোগে বাড়ি ফেরার পথে রামকান্তপুর গ্রামের কাঁঠালতলা নামকস্থানে পৌঁছালে পূর্ব থেকে ওত পেতে থাকা মিঠু সরদারের নেতৃত্বে সিজান, রুবাইত, ইব্রাহিম, বক্কার ও ইমনসহ ৮-১০ জনের একদল দুর্বৃত্ত তার ভ্যানের গতিরোধ করে। এ সময় অবস্থা বেগতিক দেখে আজিজুর প্রাণ বাঁচাতে পাশের সবুর শিকদারের বাড়িতে আশ্রয় নিয়েও শেষ রক্ষা হয়নি। দুর্বৃত্তরা সবুর শিকদারের ঘরে প্রবেশ করে আজিজুরের মাথায় ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে হাতুড়ি-লাঠি দিয়ে বেধড়ক পিটিয়ে বাম হাত ও দুই পা ভেঙে গুরুতর আহত করে পালিয়ে যায়।

বিজ্ঞাপন
এলাকাবাসী  মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। লোহাগড়া থানার ওসি শেখ আবু হেনা মিলন হত্যার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, পূর্ব বিরোধের জের ধরে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নড়াইল সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের গ্রেপ্তারে পুলিশি অভিযান চলছে।  

বাংলারজমিন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

বাংলারজমিন থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com