ঢাকা, ২৫ জুন ২০২২, শনিবার, ১১ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৪ জিলক্বদ ১৪৪৩ হিঃ

দেশ বিদেশ

জাকির গ্রুপের ডাকাতদের পরিবারের ভরণ-পোষণ করতো

স্টাফ রিপোর্টার
২২ জুন ২০২২, বুধবার

ঢাকার অদূরে টঙ্গি এলাকায় সংঘবদ্ধ হয়ে ডাকাতি করতো জাকিরের দল। তার দলে ১২ জন সদস্য ছিল। তারা প্রায় সবাই মাদকসেবী। কেউ মাদক সেবনের জন্য জেলেও গিয়েছে। ডাকাতি করা পণ্য ও টাকা দিয়ে জাকির তার দলের সদস্যদের পরিবারের ভরণ-পোষণ করতো। সবাইকে সমান করে ভাগ করে দিতো। এ কারণে তার গ্রুপের সদস্যরা জাকিরের প্রতি খুশি ছিল। এ চক্রের জাকিরসহ চারজনকে ধরেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। গ্রেপ্তারকৃতরা হলো: জাকির হোসেন, মো. সবুজ, মো. ওমর ও ওসমান গনি স্বপন। গত সোমবার রাতে গাজীপুরের টঙ্গী নোয়াগাঁও এলাকার তিস্তা গেটের আনোয়ার সিলিং এবং পপুলার ওষুধ ফ্যাক্টরির সামনে থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

বিজ্ঞাপন
ডিবি জানিয়েছে, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাত থেকে রক্ষার জন্য এ চক্রের ডাকাত সদস্যরা খুব বেশি একটি ইলেকট্রনিক্স ডিভাইস ব্যবহার করেন না। তাদের কাছ থেকে ১টি স্বর্ণের চেইন, নগদ ১৪ হাজার টাকা, ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত ১টি লোহার তৈরি চাপাতি, ২টি সেলাই রেঞ্জ, ১টি স্ক্রু ড্রাইভার ও ১?টি চাকু উদ্ধার করা হয়।  গতকাল দুপুরে রাজধানীর মিন্টো রোডে ডিএমপি’র মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়। সংবাদ সম্মেলনে ডিএমপি’র অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার এ কে এম হাফিজ আক্তার জানান, গত এপ্রিল মাসের ৫ তারিখ গভীর রাতে রাজধানীর উত্তরখানের ভাটুলিয়া এলাকার একটি বাসায় পাঁচজন ডাকাত গ্রিল কেটে ঢুকে পরিবারের সকলকে অস্ত্রের ভয়ে জিম্মি করে নগদ তিন লক্ষাধিক টাকা, স্বর্ণালংকারসহ মোট আট লক্ষাধিক টাকার মালামাল ডাকাতি করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় পরের দিন বাসার মালিকের অভিযোগের  প্রেক্ষিতে ডিএমপি’র উত্তরখান থানায় একটি ডাকাতির মামলা রুজু হয়। পরবর্তী সময়ে মামলাটি ডিবিতে আসে। তিনি আরও জানান, ডাকাতির এ ঘটনায় ডাকাতরা কোনো প্রযুক্তিগত ডিভাইস ব্যবহার না করায় ঘটনার রহস্য উদ্‌ঘাটন করতে প্রথম থেকে অনেকটা বেগ পেতে হয়। কিন্তু গোয়েন্দা তথ্য-উপাত্ত বিশ্লেষণ করে একপর্যায়ে ডাকাতির ঘটনার সঙ্গে একটি গ্রুপকে শনাক্ত করা হয়। পরবর্তী সময়ে গত সোমবার টঙ্গী এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে তাদের মধ্যে চারজনকে  গ্রেপ্তার করা হয়।  তিনি আরও জানান, গ্রেপ্তার হওয়া জাকির হোসেন ডাকাতদের লালন-পালনকারী। তার নির্দেশেই অন্যরা ডাকাতি করে থাকে। ডাকাতির পর সকল অর্থ ও মালামাল জাকির নিয়ে নেয়। বিনিময়ে সে তাদের পরিবারের দেখাশোনা ও মাদকের টাকা সরবরাহ করে থাকে। গ্রেপ্তারকৃতরা ডিবির কাছে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছে যে, তারা এর আগে অনেক ডাকাতি ও চুরির ঘটনা ঘটিয়েছে। এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি জানান, তারা টঙ্গি কেন্দ্রিক ডাকাতি করতো। এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ডিবি ডিসি (উত্তরা) কাজী শফিকুল আলম, এডিসি (উত্তরা) কায়সার রিজভী কোরায়েশী ও  এডিসি (উত্তরা) আছমা আরা জাহান।

দেশ বিদেশ থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

দেশ বিদেশ থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com