ঢাকা, ২৫ জুন ২০২২, শনিবার, ১১ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৪ জিলক্বদ ১৪৪৩ হিঃ

দেশ বিদেশ

ইসি’র সঙ্গে বৈঠক : ইভিএমে সায় নেই জাপাসহ অধিকাংশ দলের

স্টাফ রিপোর্টার
২০ জুন ২০২২, সোমবার

ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট নেয়ার বিপক্ষে মত দিয়েছেন বেশ কয়েকটি রাজনৈতিক দল। রোববার ইভিএম যাচাইয়ে নির্বাচন কমিশন কর্তৃক আয়োজিত বৈঠকে ১০টি রাজনৈতিক দল অংশ নেয়। বৈঠকে অংশ নেয়া  বেশির ভাগ রাজনৈতিক দল ইভিএম ব্যবহারের বিপক্ষে মত দেয়। দলের নেতারা বলেন, ইভিএমে ভোট দিতে দেশের মানুষ এখনো প্রস্তুত নয়। ইভিএম সম্পর্কে মানুষের নেগেটিভ ধারণা রয়েছে। অনেক মানুষের আঙুলের ছাপ মেলে না। কুমিল্লা নির্বাচনে ইভিএমের ধীরগতি আমরা দেখতে পেয়েছি। এ ছাড়া ইভিএমে ত্রুটি আছে বলেই অনেক দেশ এটা থেকে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছে। এজন্য আমরা চাই না নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার করা হোক।  জাতীয় পার্টির মহাসচিব মো. মুজিবুল হক চুন্নু বলেন, ইভিএমে ভোট হোক এটা জাতীয় পার্টি (জাপা) চায় না।

বিজ্ঞাপন
দেশের মানুষ এখনো ইভিএমে ভোট দেয়ার জন্য প্রস্তুত নয়। মানুষ এখনো ইভিএম বিশ্বাস করে না। গ্রামগঞ্জের মানুষ এখনো মনে করেন ইভিএম মানেই কারসাজি। কেউ কেউ মনে করেন, কোনো একটি দলের স্বার্থে ইভিএমে ভোটগ্রহণ করা হয়। তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশনের কাজ হচ্ছে একটি সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন করতে কাজ করা। আর কোন পদ্ধতিতে নির্বাচন হবে তা যারা নির্বাচন করে সেই সকল রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে আলোচনা সাপেক্ষে নির্ধারণ করা উচিত। আবার কোনো কেন্দ্রে ব্যালট আর কোনো কেন্দ্রে ইভিএম এভাবে ভোটগ্রহণ হলে খুব খারাপ অবস্থা সৃষ্টি হবে। ইভিএমের দোষ নয়, আসলে আমাদের দেশ ইভিএমে ভোট দেয়ার জন্য প্রস্তুত নয়।  জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলনের (এনডিএম) যুগ্ম মহাসচিব মোমিনুল আমিন বলেন, ইভিএমে হার্ডওয়্যারের বিষয়টি আমাদের সামনে তুলে ধরা হয়েছে কিন্তু সফটওয়্যারের ব্যাপারে অনেক প্রশ্ন রয়েছে। ২০১৮ সালে ভোটে এনডিএম চেয়ারম্যান ববি হাজ্জাজ ঢাকা-৬ আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। আমি সেই নির্বাচনের কো-অর্ডিনেটর ছিলাম। আমাদের পোলিং এজেন্ট ভোটকেন্দ্রে ঢুকতে পারেনি।  যদি ৩০০ আসনে ইভিএম ব্যবহার করা হয় তাহলে ইভিএম পদ্ধতিতে রাজি আছি বলে জানিয়েছেন জাতীয় পার্টির (জেপি) সাধারণ সম্পাদক শেখ শহিদুল ইসলাম। তিনি বলেন, এক কেন্দ্রে ইভিএম আর অন্য কেন্দ্রে ব্যালট ব্যবহার করে নির্বাচন হবে- এটাতে আমরা রাজি না। যদি সব আসনে ইভিএম ব্যবহারের সক্ষমতা না থাকে তাহলে প্রয়োজনে ভারতের মতো ধাপে ধাপে নির্বাচন করুন।  মুসলিম লীগের নেতারা বলেন, অনেকে বলে ইভিএমের মাধ্যমে ডিজিটাল কারচুপি করা সম্ভব। এ জন্য অনেক দেশ এটা থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে। ইভিএমের কথা শুনে অনেক মানুষ নির্বাচনবিমুখ হয়ে যাচ্ছে। প্রযুক্তি দিয়ে মানুষকে নির্বাচনমুখী করা যাবে না।  জাকের পার্টির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব শামীম হায়দার ব্লকচেইন ও ই-ভোটিং প্রযুক্তি চালু করার দাবি জানান। এতে মানুষ ঘরে বসে ভোট দিতে পারবে বলে জানান তিনি।  রাজনৈতিক নেতাদের বক্তব্যের জবাবে বাংলাদেশ মিশন টুলস ফ্যাক্টরির ম্যানেজিং ডিরেক্টর মেজর জেনারেল সুলতানুজ্জামান মো. সালেহ উদ্দিন বলেন, ইভিএমে কারিগরি ত্রুটি থাকতে পারে। কিন্তু ইভিএমের ভোটের ফলাফল প্রকাশ নিয়ে কোনো প্রশ্ন নাই। পৃথিবীর কোনো প্রযুক্তিই শতভাগ সঠিক নয়। অনেকে উদাহরণ দিয়েছেন বিভিন্ন দেশ ইভিএম ব্যবহার করে না। কিন্তু তথ্যে একটু ভুল আছে। বেলজিয়ামে ইভিএম নিয়ে অনেকবার গিয়েছি। বেলজিয়াম ও অন্যান্য দেশেও বড় সমস্যা হচ্ছে গোপনীয়তার ইস্যু। তারা কাউকে ফিঙ্গার প্রিন্ট ও বায়োমেট্রিক ডাটা দিতে চায় না। আমি অনেক জায়গায় এই প্রশ্নের সম্মুখীন হয়েছি যে, আপনারা কীভাবে এই ডাটাবেজ বানালেন। আমরা বলেছি, দিস ইজ ইলেকশন কমিশন। দিস ইজ এ বডি ইজ নট আন্ডার এনিবডি। এদিকে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেন, ইভিএম নিয়ে আমরা এখনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিইনি। এই আলোচনায় আমন্ত্রণ জানানোর উদ্দেশ্য ইভিএম সম্পর্কে আপনাদের ধারণা দেয়া। এক্ষেত্রে আপনাদের মতামত থাকবে। আমরা কোনো মতামত চাপিয়ে দেবো না। নির্বাচন কমিশনের সে ধরনের কোনো ইচ্ছাও নেই। বৈঠকে অংশগ্রহণকারী দলগুলো হলো জাতীয় পার্টি (জাপা), জাতীয় পার্টি (জেপি), বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি, জাকের পার্টি, বাংলাদেশ মুসলিম লীগ, গণফ্রন্ট, বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি, বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্ট, জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলন ও বাংলাদেশ কংগ্রেস। এদিকে বৈঠকে আমন্ত্রণ জানানো হলেও অংশগ্রহণ করেনি কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ, বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি (বিজেপি) ও গণফোরাম।

পাঠকের মতামত

প্রত্যেকটা জিনিস পরিচালনা করার জন্য অবশ্যই একজন লোকের প্রয়োজন তাই নয় কি?তেমনি ইভিএম মেশিনের পিছনেও তো কেউ না কেউ সেটা পরিচালনা করার জন্য তাইনা?আর ঐ লোকটা নিশ্চয় ইভিএম সম্পর্কে অভিজ্ঞ তাই উনি ফল পাল্টাতে পারবেননা এটার‌ও বা গ্যারান্টি কি?

Muntasir
২০ জুন ২০২২, সোমবার, ২:১৬ পূর্বাহ্ন

ইভিএমে ফলাফল আসতে প্রায় মধ্যরাত লাগে আর এমনিতে সন্ধ্যায় ফলাফল দেয়া যায়।

তৌহিদ
১৯ জুন ২০২২, রবিবার, ৬:৫৬ অপরাহ্ন

EVM চালানোর মত দক্ষ কর্মকর্তা কর্মচারী ইসির নাই। অন্য কথায় দক্ষ জনবল ইসির নাই। তাই স্বপ্ন দেখা বন্ধ করতে হবে ।

Kazi
১৯ জুন ২০২২, রবিবার, ৩:৫৪ অপরাহ্ন

দেশ বিদেশ থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

দেশ বিদেশ থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com