ঢাকা, ২৭ জুন ২০২২, সোমবার, ১৩ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৬ জিলক্বদ ১৪৪৩ হিঃ

প্রথম পাতা

পররাষ্ট্র বিষয়ক সংসদীয় কমিটির সফর

অবাধ নির্বাচন কীভাবে হবে জানতে চাইলো যুক্তরাষ্ট্র

মিজানুর রহমান
২২ মে ২০২২, রবিবার

পরবর্তী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে নির্বিঘ্ন করতে সরকারের পরিকল্পনা জানতে চেয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। ওয়াশিংটন সফররত পররাষ্ট্র বিষয়ক সংসদীয় কমিটির সদস্যদের প্রতি মার্কিন প্রশাসন এবং দেশটির নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিদের প্রায় অভিন্ন জিজ্ঞাসা ছিল। জবাবে সরকারদলীয় সংসদ সদস্যরা যুক্তরাষ্ট্রকে বলেছেন, বাংলাদেশের পরবর্তী জাতীয় নির্বাচনে সব দলের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে সম্ভাব্য সব কিছুই করছে সরকার। তাছাড়া নির্বাচনটি অবশ্যই সুষ্ঠু এবং নির্বিঘ্ন হবে এতে কারও কোনো সন্দেহ-সংশয় থাকা উচিত নয়। নির্বাচন নিয়ে গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রগুলোর উদ্বেগ নাকচ করে বলা হয়, এতে ক্ষমতাসীন দল বা জোটের কোনো ধরনের প্রভাব খাটানোর চিন্তা নেই বরং ভোটাররা যে রায় দিবে তা ক্ষমতাসীন দল হিসেবে আওয়ামী লীগ মাথা পেতে নেবে।

 ২০২৪ সালের প্রথমদিকে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন হবে- এমনটা জানিয়ে সংসদীয় কমিটির সদস্যরা বলেন, নির্বাচনকে অবাধ করতে সরকারের প্রচেষ্টার প্রতি বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোর আস্থা, সমর্থন ও সহযোগিতা একান্তভাবে আবশ্যক। কারণ ক্ষমতার শান্তিপূর্ণ হস্তান্তর নিশ্চিতে গণতান্ত্রিক মনোভাবাপন্ন রাজনৈতিক দলগুলোর ভূমিকা থাকা উচিত। ওয়াশিংটনের দায়িত্বশীল কূটনৈতিক সূত্র জানিয়েছে, ৪ সদস্যের সংসদীয় দলটি ৪ দিন ওয়াশিংটনে ব্যস্ত সময় কাটিয়েছেন। তারা স্টেট ডিপার্টমেন্ট, কংগ্রেসম্যান, প্রভাবশালী সিনেটর এবং থিঙ্ক ট্যাঙ্কের সঙ্গে সিরিজ বৈঠক করেছেন। সবখানেই মুখ্য আলোচ্য ছিল বাংলাদেশের আগামী সংসদ নির্বাচন।

ওয়াশিংটনস্থ বাংলাদেশ মিশন প্রচারিত গত দু’দিনের প্রেস রিলিজেও নির্বাচন নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আলোচনা এবং সংসদীয় কমিটির সরকারদলীয় সংসদ সদস্যদের জবাবের অনেক কিছু উল্লেখ করা হয়। কূটনৈতিক সূত্র এটা নিশ্চিত করেছে যে, বাংলাদেশ প্রতিনিধিদল যেখানেই সুযোগ পেয়েছে সেখানেই আসন্ন নির্বাচন প্রশ্নে গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রগুলো বিশেষত যুক্তরাষ্ট্রের উদ্বেগ নিরসনের চেষ্টা করেছে।

বিজ্ঞাপন
ওই নির্বাচনে মার্কিন পর্যবেক্ষকদের আগাম আমন্ত্রণ জানানো হয়। একই সঙ্গে যেকোনো গঠনমূলক সমালোচনাকে স্বাগত জানানো হয়। সংসদীয় প্রতিনিধিদলের কথাগুলো গুরুত্বের সঙ্গে নোটে নিয়েছেন মার্কিন আইনপ্রণেতা, বাইডেন প্রশাসন এবং নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিরা। সফররত প্রতিনিধিদলের প্রত্যেক সদস্য বিশেষত সভাপতি এবং তরুণ দু’জন সংসদ সদস্যের বক্তব্যের প্রশংসা করেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধিরা। সংসদীয় প্রতিনিধিদলের নেতৃত্বে রয়েছেন স্থায়ী কমিটির সভাপতি মুহাম্মদ ফারুক খান এমপি। দলের অন্য সদস্যরা হলেন- নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপি; নাহিম রাজ্জাক, এমপি এবং কাজী নাবিল আহমেদ এমপি।

সম্পর্ক নিবিড় করতে সহযোগিতার ওপর গুরুত্ব আরোপ: এদিকে বাংলাদেশ মিশনের শুক্রবারের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, সংসদীয় প্রতিনিধিদল বিদ্যমান দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক জোরদারে বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে আরও নিবিড় সহযোগিতার ওপর গুরুত্ব আরোপ করে। বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়া বিষয়ক অ্যাসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি অব স্টেট অ্যাম্বাসেডর ডোনাল্ড লু-এর সঙ্গে স্টেট ডিপার্টমেন্টে এবং কংগ্রেসম্যান ডোয়াইট ইভান্সের সঙ্গে ক্যাপিটল হিলে বৈঠকে প্রতিনিধিদলের সদস্যরা ওই অভিমত ব্যক্ত করেন। প্রতিনিধিদলটি যুক্তরাষ্ট্রের প্রখ্যাত থিঙ্ক ট্যাঙ্ক ইন্টারন্যাশনাল রিপাবলিকান ইনস্টিটিউট (আইআরআই)-এর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গেও এক গোলটেবিল বৈঠকে অংশ নেয়। এসব বৈঠকে যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. সহিদুল ইসলামসহ দূতাবাসের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

অ্যাসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি ডোনাল্ড লু’র সঙ্গে বৈঠক: সংবাদ বিজ্ঞপ্তি মতে দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়া বিষয়ক  অ্যাসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি অ্যাম্বাসেডর ডোনাল্ড লু-এর সঙ্গে সংসদীয় দলের বৈঠকে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের গুরুত্বপূর্ণ ইস্যুগুলো নিয়ে আলোচনা হয়। এতে উভয়েই সম্পর্ক আরও গভীর করার  প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। অ্যাম্বাসেডর লু কোভিড-১৯ মহামারি মোকাবিলায় বাংলাদেশ সরকারের ব্যবস্থাপনার ভূয়সী প্রশংসা করেন এবং এর ভ্যাকসিন বিতরণ ব্যবস্থাকে বিশ্বের অন্যতম সেরা বলে অভিহিত করেন। তিনি বাণিজ্য ও বিনিয়োগ, জলবায়ু পরিবর্তন এবং কোভিড-১৯ সহযোগিতাকে গুরুত্বপূর্ণ ক্ষেত্র হিসেবে মন্তব্য করে বলেন এসব খাতে পারস্পরিক সহযোগিতা বাড়তে পারে। আইসিটি খাতে বাংলাদেশের সম্ভাবনা নিয়ে বৈঠকে আলোচনা হয়। সিলিকন ভ্যালি ও বাংলাদেশ হাইটেক পার্কের মধ্যে সহযোগিতা সমপ্রসারণের ওপর জোর দেয়া হয়। সফররত প্রতিনিধিদল বঙ্গবন্ধুর আত্মস্বীকৃত খুনি রাশেদ চৌধুরীকে দ্রুত প্রত্যর্পণে বাইডেন প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করেন। তারা র‌্যাব ও এর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের ওপর সামপ্রতিক মার্কিন নিষেধাজ্ঞার বিষয়টিও তুলে ধরেন। প্রতিনিধিদলের নেতা ফারুক খান দু’দেশের জনগণের মধ্যে যোগাযোগ বৃদ্ধি এবং ব্যবসা-বাণিজ্য সম্পর্ক উন্নত করতে বাংলাদেশ বিমানের ঢাকা-নিউ ইয়র্ক সরাসরি ফ্লাইট পুনরায় চালুর ওপর জোর দেন।

 কংগ্রেসম্যান ইভান্সের সঙ্গে বৈঠক: বিজ্ঞপ্তি মতে, যুক্তরাষ্ট্র হাউস ওয়েজ অ্যান্ড মিনস কমিটির গুরুত্বপূর্ণ সদস্য কংগ্রেসম্যান ডোয়াইট ইভান্সের সঙ্গে বাংলাদেশের সংসদীয় প্রতিনিধিদলের বৈঠক হয়। বৈঠকে ২০১৯ সালে বাংলাদেশ সফরের কথা স্মরণ করে কংগ্রেসম্যান ইভান্স আশা প্রকাশ করেন যে, বাংলাদেশের সংসদীয় প্রতিনিধিদলের যুক্তরাষ্ট্রে সফর ওয়াশিংটন-ঢাকা সম্পর্ককে আরও জোরদার করবে। তিনি প্রবাসী বাংলাদেশিদের জন্য তার অব্যাহত সমর্থনের পাশাপাশি ঘনিষ্ঠ বাংলাদেশ-মার্কিন অংশীদারিত্বের আশ্বাস দেন। রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশকে যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তার প্রশংসা করা ছাড়াও ঢাকার প্রতিনিধিরা বলপূর্বক বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন নিশ্চিতে মিয়ানমারের ওপর মার্কিন চাপ অব্যাহত রাখার অনুরোধ জানান। উভয় পক্ষই ঢাকা-নিউ ইয়র্ক সরাসরি ফ্লাইট পুনরায় চালুর ব্যাপারে তাগিদ অনুভব করেন। এর ফলে বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে যোগাযোগ ও ব্যবসা-বাণিজ্য সম্পর্ক ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পাবে বলে আশা প্রকাশ করা হয়।

আইআরআই-এ গোলটেবিল বৈঠক: সংসদীয় দলটি যুক্তরাষ্ট্রের বিখ্যাত থিঙ্ক ট্যাঙ্ক ইন্টারন্যাশনাল রিপাবলিকান ইনস্টিটিউটের (আইআরআই) সঙ্গে গোলটেবিল আলোচনায় অংশ নেয়। সংস্থাটির প্রেসিডেন্ট ড. ড্যানিয়েল টুইনিং আইআরআই পক্ষের নেতৃত্ব দেন। বৈঠকে আইআরআই-এর এশিয়া বিভাগের পরিচালক জোহানা কাও, ডেপুটি ডিরেক্টর রোন্ডা মেস, সহযোগী পরিচালক ম্যাট কার্টার, সিনিয়র প্রোগ্রাম ম্যানেজার রোহুল্লাহ নিয়াজি, বাংলাদেশ প্রোগ্রাম ডিরেক্টর ড. জিওফ্রে ম্যাকডোনাল্ড এবং ওয়াশিংটন ডিসিতে বাংলাদেশ দূতাবাসের কূটনীতিকরা উপস্থিত ছিলেন। স্থায়ী কমিটির সদস্যরা জানান, বাংলাদেশ সরকার ২০২৪ সালের প্রথমদিকে অনুষ্ঠিতব্য সাধারণ নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও অংশগ্রহণমূলক নিশ্চিত করার জন্য সম্ভাব্য সব ব্যবস্থা নিচ্ছে।  সরকারের প্রচেষ্টায় সমস্ত রাজনৈতিক দলের সমর্থন ও সহায়তা দরকার। নির্বাচন কমিশনকে শক্তিশালী করার জন্য আইআরআই’র সহায়তাকে সংসদীয় প্রতিনিধিদল স্বাগত জানায়। উল্লেখ্য, আগের দিন, মার্কিন সিনেটর টেড ক্রুজ (রিপাবলিকান-টেক্সাস) এবং কংগ্রেসম্যান স্টিভ শ্যাবোট (রিপাবলিকান-ওহিও)-এর সঙ্গে বাংলাদেশের সংসদীয় দলের পৃথক বৈঠক হয়।

পাঠকের মতামত

গত সংসদ নির্বাচন তো রাতে করেছেন প্রশাসন ও পেটুয়া পুলিশ বাহিনী দিয়ে । আর এবার অবশ্যই নতুন ফঁাদ ইভিএম দিয়?? বাহ! কতটা সুন্দর আয়োজ!! নিকট অতীত বলে সুষ্ঠু নির্বাচন একমাত্র নিরপেক্ষ সরকারের মাধ্যমেই সম্ভব।তবে হাসিনা নতুন কিছু করবেন মনে হয়( রাতের মত)যা আমাদের চিন্তার বাইরে বাহে!!

ইসমাইল
২৪ মে ২০২২, মঙ্গলবার, ৮:০৫ অপরাহ্ন

আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় রেখে যদি BNP নির্বাচনে যায়, তাহলে জনগণ তাদেরও বয়কট করবে।

হাসান
২৩ মে ২০২২, সোমবার, ৯:৩২ অপরাহ্ন

আওয়ামীলীগই নিরপেক্ষ নির্বাচনের অন্তরায়। তাদেরকে ক্ষমতায় রেখে নিরপেক্ষ নির্বাচন সম্ভব নয়।

MD.shajalal Shajalal
২৩ মে ২০২২, সোমবার, ৬:১১ পূর্বাহ্ন

স্বাধীনতার পরবর্তী সময়ে আওয়ামী লীগ সুষ্ঠু নির্বাচন করতে পারে নি আর কোন দিন পারবেওনা। কারণ তারা জনতাকে বিশ্বাস করতে পারেনা। তাদের কর্মকান্ডে মানুষ অতিষ্ঠ তারা ও জানে ।

Message Karim
২২ মে ২০২২, রবিবার, ৯:১১ পূর্বাহ্ন

বর্তমান ক্ষমতাসীন সরকারের অধিনে সুষ্ঠনির্বাচন একেবারেই অবাস্তব চিন্তা।

মো হেদায়েত উল্লাহ
২২ মে ২০২২, রবিবার, ৪:৫৩ পূর্বাহ্ন

আমেরিকানদের প্রশ্নের জবাবে বাংলাদেশের প্রতিনিধীরা নতুন কিছুই জানাতে পারেননি। তারা গতানুগতিক যা বলেন তা-ই বলে এসেছেন। আমেরিকার প্রদিনিধিদের কাছে সরকারের বিগত নির্বাচনের সব তথ্য রয়েছে। তাছাড়া বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলে এই বিষয় শক্তভাবে হ্যান্ডল করতে পারেন এরকম কেউ ছিলনা বলেই আমার মনে হয়েছে। সরকার এখনো শুভংকরের ফাকি দিয়ে নির্বাচনে জিতে যাবার ধান্ধায় আছে। তবে উচ্চ পর্যায়ের ধৈর্য্যহীন কথাবার্তায় মনে হয় মানসিকভাবে তারা দুর্বল হয়ে যাচ্ছে। সাধারণ মানুষের অধিকার ছিনিয়ে তো অনন্তকাল ক্ষমতায় থাকা যায়না।

জামশেদ পাটোয়ারী
২২ মে ২০২২, রবিবার, ৪:৩৬ পূর্বাহ্ন

নির্বচন নির্দলীয় ও তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে হবে। এটা জন দাবী।

মোঃ জহিরুল ইসলাম
২২ মে ২০২২, রবিবার, ৩:৫১ পূর্বাহ্ন

নির্দলীয় ও নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকার সহ প্রশাসন ঢেলে সাজাতে হবেই - তা না হলে, নির্বাচন সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষ হওয়ার সম্ভাবনা নেই। *** আওয়ামীদের অধীনে নির্বাচন কিয়ামত পর্যন্ত সুষ্ঠু হবে না!!!

তোফায়েল
২২ মে ২০২২, রবিবার, ৩:৩১ পূর্বাহ্ন

GMT e job kori ta e chuti kom pai. election er din shudhu ghumabo. karon vote er kono value ei deshe nai.

maruf
২২ মে ২০২২, রবিবার, ২:৩৭ পূর্বাহ্ন

Our election is not USA's business.

Mohammed M Alam
২২ মে ২০২২, রবিবার, ১:৫৬ পূর্বাহ্ন

যে ভাষায় বা যে কায়দায় বিরোধী দলগুলোর সমালোচনা করেন , তাতে বিরোধী দলকে নির্বাচনে আনার যে প্রচেষ্টা নেবার প্রতিশ্রুতি বিশ্বাসযোগ্য কি?

Tabarak Hussain
২১ মে ২০২২, শনিবার, ১১:৩৪ অপরাহ্ন

এবারো ভোট ডাকাতি হবে এদের বিশ্বাস করলে

Millat
২১ মে ২০২২, শনিবার, ৫:২৩ অপরাহ্ন

আওয়ামী লীগ হাজার কিছু করুক, সুষ্ঠু নির্বাচন হলে আওয়ামী লীগের জয় অসম্ভব। কারণ, গনতন্ত্র, সাম্য, মানবিক মর্যাদা ও সামাজিক ন্যায় বিচার, এই বিষয় গুলোতে বাংলাদেশের মানুষ আর কোনোদিনও আওয়ামী লীগকে বিশ্বাস করবে না। কাজেই, কারচুপির আশ্রয় নেওয়া ছাড়া আওয়ামী লীগের বেঁচে থাকার আর কোন পথ খোলা নেই।

Mortuza Huq
২১ মে ২০২২, শনিবার, ৪:৪৫ অপরাহ্ন

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন বিএনপির নির্বাচন নিয়ে কথা বলার কোন অধিকার নাই।

জামশেদ পাটোয়ারী
২১ মে ২০২২, শনিবার, ৪:৩৪ অপরাহ্ন

একদম জায়গা মতো হাত দিয়েছে! অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন কিভাবে সম্ভব বুঝা যাচ্ছেনা। বিগত দুইটা নির্বাচনের চেয়ে বর্তমান পরিস্থিতি আরও জটিল।

আব্দুল জব্বার
২১ মে ২০২২, শনিবার, ২:৪৬ অপরাহ্ন

সরকারী মিষ্টি কথায় মার্কিনীরা বিশ্বাস করলেই আর একবার ব্যর্থ ছাড়া পথ নাই। এদেরকে সরে যেতে হবে ,এটাই একমাএ খোলা রাস্তা।

বাবুল
২১ মে ২০২২, শনিবার, ১:৪৪ অপরাহ্ন

"জবাবে সরকারদলীয় সংসদ সদস্যরা যুক্তরাষ্ট্রকে বলেছেন, বাংলাদেশের পরবর্তী জাতীয় নির্বাচনে সব দলের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে সম্ভাব্য সব কিছুই করছে সরকার। তাছাড়া নির্বাচনটি অবশ্যই সুষ্ঠু এবং নির্বিঘ্ন হবে এতে কারও কোনো সন্দেহ-সংশয় থাকা উচিত নয়। নির্বাচন নিয়ে গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রগুলোর উদ্বেগ নাকচ করে বলা হয়, এতে ক্ষমতাসীন দল বা জোটের কোনো ধরনের প্রভাব খাটানোর চিন্তা নেই বরং ভোটাররা যে রায় দিবে তা ক্ষমতাসীন দল হিসেবে আওয়ামী লীগ মাথা পেতে নেবে।" - Ha! ha!! hah!!! Everyone is not as fool as they think.

Nam Nai
২১ মে ২০২২, শনিবার, ১১:৪৯ পূর্বাহ্ন

আর যাই করেন ! অন্তত রাতে ভোটের ব্যবস্থা করিয়েন না । আমি খুবই ঘুম কাতুরে পারলে আমার ভোটটা দিয়ে দিয়েন। আগের নির্বাচনে যেমন দিয়েছেন।

মাহফুজ
২১ মে ২০২২, শনিবার, ১১:৪৬ পূর্বাহ্ন

প্রথম পাতা থেকে আরও পড়ুন

প্রথম পাতা থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com