ঢাকা, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, বুধবার, ১৩ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিঃ

বিশ্বজমিন

স্কার্ফ ইস্যুতে বানচাল হাইপ্রোফাইল সাক্ষাৎকার

মানবজমিন ডেস্ক

(৪ দিন আগে) ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২, শুক্রবার, ১০:১৫ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ২:৪১ অপরাহ্ন

হেডস্কার্ফ ইস্যুতে বানচাল হয়ে গেল একটি হাইপ্রোফাইল সাক্ষাৎকার। বুধবার নিউ ইয়র্ক সিটিতে সিএনএনের উপস্থাপিকা, সাংবাদিক ক্রিস্টিন আমানপোরকে সাক্ষাৎকার দেয়ার কথা ছিল ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রইসির। সাক্ষাৎকার শুরুর আগে আমানপোরকে মাথায় স্কার্ফ পরতে বলেন রইসি। তাতে অস্বীকৃতি জানান আমানপোর। ফলে ভণ্ডুল হয়ে যায় ওই সাক্ষাৎকার। এ খবর দিয়েছে অনলাইন দ্য হিল। এ নিয়ে বৃহস্পতিবার সকালে ধারাবাহিক টুইট করতে থাকেন ক্রিস্টিন আমানপোর। তিনি বলেন, মাহশা আমিনি ‘হত্যা’র প্রতিবাদ হচ্ছে ইরানে। এ বিষয়ে নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘ সাধারণ অধিবেশনের পাশাপাশি সাক্ষাৎকার দেয়ার কথা ছিল রইসির। কিন্তু সেই সাক্ষাৎকারে অচলাবস্থা সৃষ্টি হয়।

বিজ্ঞাপন
আমানপোর লিখেছেন, গত সপ্তাহে মারা যান মাহশা আমিনি। তারপর থেকে ইরানজুড়ে প্রতিবাদ বিক্ষোভ হচ্ছে। তাতে নারীরা তাদের হিজাব পুড়িয়ে ফেলছেন। মানবাধিকার বিষয়ক গ্রুপগুলো বলছে, এতে এ পর্যন্ত কমপক্ষে ৮ জন নিহত হয়েছেন। এ নিয়ে মঙ্গলবার দিবাগত রাতে প্রেসিডেন্ট রইসিকে প্রশ্ন করতে চেয়েছিলাম। 

আমানপোর আরও বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের মাটিতে এটাই হতো কোনো ইরানি প্রেসিডেন্টের সাক্ষাৎকার। সাক্ষাৎকার শুরু হবে এমন সময়ের ৪০ মিনিট পরে ইব্রাহিম রইসির একজন সহকারী আমানপোরের কাছে যান এবং বলেন, আমানপোর যেন মাথায় স্কার্ফ পরেন। এমনটা দাবি করেছেন ইরানের প্রেসিডেন্ট। কারণ, এটা মহররম ও সফরের মাস। 

এর জবাবে আমানপোর টুইটে বলেছেন, আমি বিনীতভাবে তার সেই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করি। কারণ আমি নিউ ইয়র্কে বসবাস করি। এখানে মাথায় স্কার্ফ পরার কোনো আইন বা রীতি নেই। আমি তাদেরকে জানিয়ে দিই যে, এর আগে ইরানের কোনো প্রেসিডেন্টই এমন দাবি করেননি। ইরানের বাইরে তাদের সাক্ষাৎকার নিয়েছি। কিন্তু রইসির সহকারি আমাকে জানান যে, মাথায় স্কার্ফ না পরলে সাক্ষাৎকার দেয়া হবে না। কারণ বিষয়টি সম্মানের এবং ইরান পরিস্থিতিকে ফুটিয়ে তোলে। এর মধ্য দিয়ে ইরানে চলমান প্রতিবাদ বিক্ষোভের দিকে ইঙ্গিত করা হয়েছে। 

সেখানে মাহশা আমিনি নামের এক যুবতী চুল বের করে স্কার্ফ পরার কারণে দেশটির নীতি পুলিশ তাকে আটক করে। তাদের হেফাজতে থাকা অবস্থায় মারা যান আমিনি। তারপর থেকে মিডিয়া সয়লাব হয়ে গেছে ভিডিও এবং ছবিতে। তাতে দেখা যায় নারীরা তাদের হিজাব পুড়িয়ে ফেলছেন। কেউ কেউ চুল কেটে ফেলছেন। 

ওদিকে আমানপোর জানিয়ে দেন, তিনি ইরানের প্রেসিডেন্টের অপ্রত্যাশিত এবং অনাকাক্সিক্ষত শর্ত মেনে নিতে পারবেন না। আমানপোর এরপর তার টুইটের সমাপ্তিতে বলেন, তাই আমরা সাক্ষাৎকার নেয়া থেকে বেরিয়ে আসি। ওই সাক্ষাৎকার নিইনি।

পাঠকের মতামত

মুসলমানদের কোরআন ও হাদিসের বিরোধী কোন নীতির সাথে আপোষ করা ঠিক নয়। ধন্যবাদ ইরানি প্রেসিডেন্ট কে।

মোঃ আজিজুল হক
২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২, শুক্রবার, ৪:০৬ পূর্বাহ্ন

বিশ্বজমিন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

বিশ্বজমিন থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং স্কাইব্রীজ প্রিন্টিং এন্ড প্যাকেজিং লিমিটেড, ৭/এ/১ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status