ঢাকা, ৪ অক্টোবর ২০২২, মঙ্গলবার, ১৯ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিঃ

বাংলারজমিন

বিদায়ী মতবিনিময় সভায় মানবাধিকার কমিশন চেয়ারম্যান

গুমের অভিযোগগুলো সরকারের খতিয়ে দেখা উচিত

স্টাফ রিপোর্টার
২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২, শুক্রবার

গুম ও নিখোঁজদের বিষয়ে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগগুলো সরকারের খতিয়ে দেখা উচিত বলে মনে করেন জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান নাছিমা বেগম। গতকাল রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে বর্তমান কমিশনের মেয়াদ পূর্তিতে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় এ মন্তব্য করেন চেয়ারম্যান। গুমের অভিযোগ ও দেশের সার্বিক মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে জাতিসংঘের মানবাধিকার কমিশনের উদ্বেগ জানানো নিয়ে এমন মন্তব্য করেন তিনি। নাছিমা বেগম বলেন, জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিলের চেয়ারপারসন যখন এসেছিলেন আমরা কমিশনের সদস্যরা তার সঙ্গে বসে আলোচনা করেছি। তিনি আমাদের কার্যক্রমগুলো দেখেছেন। আমাদের সঙ্গে তার কথোপকথন হয়েছে। আমরাও মনে করি যে, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগগুলো রয়েছে, সেগুলো সরকারকে খতিয়ে দেখা উচিত। কমিশনের বিদায়ী চেয়ারম্যান বলেন, কমিশনকে আরও শক্তিশালী করা হোক। কমিশন যদি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বিরুদ্ধে নিজে স্বপ্রণোদিত হয়ে তদন্ত করতে পারে, সেক্ষেত্রে মানবাধিকার পরিস্থিতির আরও উন্নতি হবে। এজন্য পৃথক কোনো কমিশন গঠনের প্রয়োজন নেই।

বিজ্ঞাপন
আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বিরুদ্ধে অভিযোগ এলে সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী নেয়নি।

 তাহলে তাকে খুঁজে বের করার দায়িত্ব রাষ্ট্রের। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী তাদের খুঁজে বের করে দেবে বলেও উল্লেখ করেন কমিশনের চেয়ারম্যান। বিএনপি’র রাজনৈতিক কর্মসূচিতে হামলা হচ্ছে। হামলায় দলটির নেতাকর্মীরা মারাও যাচ্ছেন। থানায় গেলে মামলা নিচ্ছে না। উল্টো বিএনপি’র নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা দেয়া হচ্ছে। এতে মানবাধিকারের লঙ্ঘন হচ্ছে কিনা, জানতে চাইলে নাছিমা বেগম বলেন, কোর্ট মামলা নিয়েছে। আমরা প্রতিবেদন চেয়েছি। প্রতিবেদন পাওয়ার পর এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত দেবো। ২০১২ থেকে এখন পর্যন্ত ১১৯ গুমের অভিযোগ এসেছে জানিয়ে মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান বলেন, আমাদের কাছে ১১৯টি গুমের অভিযোগ এসেছে। এরমধ্য থেকে ফেরত এসেছে ২৮ জন। ৩৩ জন গ্রেপ্তার হয়েছে। অভিযোগগুলোর মধ্যে ৬২টি অভিযোগ আমাদের কাছে সরাসরি করা হয়েছে। ৪৮টি অভিযোগ করেছে বিভিন্ন সংগঠন। আর আমরা নিজেরা গণমাধ্যমে দেখে ৯টি অভিযোগ নিয়েছি। তিনি বলেন, আমাদের কাছে সরাসরি ৬২টি অভিযোগ যারা করেছেন, তাদের অনেকেই পরে আর যোগাযোগ করেননি। আমাদের এখান থেকে যখন তারিখ দেয়া হয় এবং কথা বলা হয় তখন অনেকে বলেছে তারা ফেরত এসেছে। আবার অনেকের আগ্রহ নেই, অনেকে ফোনও ধরে না; এ রকম একটি অবস্থা। 

আইনের সীমাবদ্ধতা, সরকারি প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে প্রতিবেদন না পাওয়াকে নিজেদের কাজের বড় বাধা হিসেবে উল্লেখ করেন তিনি। কখনো এমন হয়েছে যে বিষয়টি নিয়ে কমিশন এগোতে পারেনি উল্লেখ করে চেয়ারম্যান বলেন, কেউ পত্রিকার কাটিং দিয়ে অভিযোগ দিচ্ছে। কার সঙ্গে তদন্ত করবো, তা সেখানে নেই। ফেরত এসেছে ও গ্রেপ্তার আছে, এভাবে আগের কমিশনের সময় কিছু নিষ্পত্তি হয়েছে। বর্তমান কমিশনের সময়ও কিছু নিষ্পত্তি হয়েছে। নিজের চাকরি জীবনের অভিজ্ঞতা তুলে ধরে নাছিমা বেগম বলেন, আমলা হওয়া যে এত অপরাধ আগে জানতাম না, আমলারা যে মানুষের কল্যাণে কাজ করতে পারে না, আমলা হলে আর কিছু করতে পারে না, মানুষের জনসেবা করতে পারবে না, এটা বুঝতে পারছি না।

বাংলারজমিন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

বাংলারজমিন থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং স্কাইব্রীজ প্রিন্টিং এন্ড প্যাকেজিং লিমিটেড, ৭/এ/১ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status