ঢাকা, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, শুক্রবার, ১৫ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিঃ

বিশ্বজমিন

পিতার হৃদয়ছোঁয়া নোট শেয়ার, টুইটারে ভাইরাল

মানবজমিন ডেস্ক

(১ মাস আগে) ১৭ আগস্ট ২০২২, বুধবার, ৭:০০ অপরাহ্ন

যদি আপনি টাকা হারান, তা আবার উপার্জন করতে পারবেন। যদি পিতামাতাকে হারান, সেই শূন্যতা পৃথিবীতে পূরণ করার কেউ নেই। যতই চেষ্টা করুন, কেউ তা পূরণ করতে পারবেনও না। তারা মারা যাওয়ার অনেক বছর পর যদি তাদের ব্যবহৃত বিশেষ কোনো কিছু আপনার হাতে আসে, তাহলে আনন্দিত হবেন না, খুশিতে চোখে অশ্রু আসবে না- হলফ করে বলা যায় না। এই আনন্দ প্রকাশের কোনো ভাষা থাকে না। এমন একটি পোস্ট সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যবহারকারীদের আবেগাপ্লুত করছে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন এনডিটিভি। 

একজন নারী তার পিতাকে হারানোর ৯ বছর পর তার ব্যবহৃত একটি নোট খুঁজে পেয়েছেন। তা তিনি টুইটারে শেয়ার করেছেন। তা নিয়েই অনলাইনে আবেগ প্রকাশ করছেন টুইটার ব্যবহারকারীরা। ওই নারীর নাম অ্যামি ক্লাকি।

বিজ্ঞাপন
তিনি যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব লুইসভিলের একজন প্রফেসর। প্রয়াত পিতা যেসব জিনিসপত্র রেখে গেছেন, তার মধ্যেই এক পর্যায়ে পিতার লেখা একটি নোট হিসেবে চিঠি পেয়ে যান। তা তিনি লিখেছিলেন ২০১২ সালের ২৭শে জুলাই। সন্তানরা তা সংরক্ষণ করবেন এমন উদ্দেশে তিনি ওই চিঠি লিখে গেছেন। 

তিনি লিখেছেন, আমার ব্যবহৃত জিনিসপত্র সংরক্ষণ করতে কৌতুহলী আমার ছেলেমেয়েদের মধ্যে কেউ একজন এই নোট পাবে বলে আমি আশা করি। ব্যবহৃত জিনিস সংরক্ষণ করা আসলেই অনেক সহজ। অনলাইনে শেখার জন্য সব কিছুই আছে। মৌমাছিরা মধু ছাড়াও অনেক প্রোডাক্ট তৈরি করে। শখ হিসেবে এটা হবে পারে বাড়তি আয়ের একটি উৎস। তাই ভীত হইও না, সাহসী হও। মঙ্গল হোক। 

লেখক হিসেবে স্বাক্ষর করেছেন ‘লাভ ড্যাড’। 
এই নোটটি মিস অ্যামি ক্লাকি মঙ্গলবার টুইটারে শেয়ার করেছেন। তিনি লিখেছেন, মারা যাওয়ার ৯ বছর পরে বাবার ব্যবহৃত জিনিসপত্র থেকে এই নোটটি খুঁজে পেয়েছি। তাকে মিস করি। তার লেখা এই পোস্টটিতে লাইক পড়েছে কমপক্ষে ৭.৩ লাখ। অসংখ্য কমেন্ট জমা হয়েছে। কমপক্ষে ৪১ হাজার মানুষ এই পোস্টে রি-টুইট করেছেন। 

পরে মোটরবাইকে পিতার সঙ্গে বসা একটি ছবি পোস্ট করেছেন অ্যামি ক্লাকি। তাতে লিখেছেন, এই পোস্টটি অতোটা মনোযোগ পাবে বলে আশা করি না। তবে মনে করি, আমার পিতার প্রশংসা করা হবে। প্লাগ করার জন্য আমার কাছে সাউন্ডক্লাউড নেই। তাই এখানে আমাদের একটি ছবি। এটা যে গ্রীষ্মে তিনি ওই নোট লিখেছিলেন, তখনকার তোলা। এই পোস্ট অনুযায়ী তার পিতার নাম রিক ক্লাকি। তিনি ২০১৩ সালে ৫৩ বছর বয়সে ফুসফুসের ক্যান্সারে মারা যান। তার ৬টি সন্তান আছে। তার মধ্যে সবার বড় মিস অ্যামি ক্লাকি। তার ছোট ভাই বসবাস করেন নিয়ামে। তিনিই পেয়েছেন এই নোট। 

মন্তব্য ঘরে একজন ব্যবহারকারী লিখেছেন, ও মাই গড! আমি তো কান্নায় ফেটে পড়বো।
জবাবে মিস অ্যামি ক্লাকি লিখেছেন- এখন আমি কফি শপে বসে কাঁদছি।

বিশ্বজমিন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

বিশ্বজমিন থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং স্কাইব্রীজ প্রিন্টিং এন্ড প্যাকেজিং লিমিটেড, ৭/এ/১ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status