ঢাকা, ৪ অক্টোবর ২০২২, মঙ্গলবার, ১৯ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিঃ

বাংলারজমিন

হাটহাজারীতে ইভটিজার আটকের জেরে ইউপি কার্যালয় ভাঙচুর, পুলিশ সদস্য আহত

হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি
১৭ আগস্ট ২০২২, বুধবার

চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে দুই ইভটিজারকে আটকের জেরে উপজেলার ২ নং ধলই ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয় ভাঙচুর করা হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন এক পুলিশ সদস্য। এবং হাটহাজারী-কাটিরহাট- খাগড়াছড়ি মহাসড়ক অবরোধ করে। এর সঙ্গে ওই ইউপি কার্যালয়ের চেয়ারম্যানকে অবরুদ্ধ করে রাখে ইভটিজারদের পক্ষে বিক্ষুব্ধরা। সোমবার দুপুর সাড়ে বারোটার দিকে উক্ত ইউপি কার্যালয়ে এই হামলা, ভাঙচুর ও মহাসড়ক অবরোধের ঘটনাটি ঘটে। পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, প্রেমিক-প্রেমিকা মনে করে আপন ভাই বোনের ওপর হামলা চালায় মেহেদী ও সাকিব নামের দুই বখাটে ইভটিজার। এ ঘটনার প্রতিবাদ করায় তাদের বাবা মো. খোরশেদ আলমকেও ইভটিজাররা মারধর করে। উক্ত ঘটনার খবর পেয়ে টহল পুলিশ সদস্যরা ওই ইভটিজারদেরকে আটক করে ২ নং ধলই ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে নিয়ে যায়। পরে ঘটনাটির জের ধরে ইভটিজারদের সঙ্গে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে পরাজিত প্রার্থীর সমর্থক ও কর্মীরা হামলা চালিয়ে ইউপি কার্যালয়ে ব্যাপক ভাঙচুর করে। এ ঘটনায় ওই সময় ইউপি চেয়ারম্যান মো. আবুল মনসুরকে আধা ঘণ্টা অবরুদ্ধ করে রাখে এবং তার ওপর হামলা চালানোর চেষ্টা করে।

বিজ্ঞাপন
ঘটনাটিতে মো. রুস্তম (৩৫) নামে এক পুলিশ সদস্য (কনস্টেবল) আহত হন। তাছাড়া, হামলাকারীরা চট্টগ্রাম-খাগড়াছড়ি মহাসড়ক পৌনে এক ঘণ্টা অবরোধ করে রাখে। খবর পেয়ে থানা পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে উদ্ভূত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ঘটনার বিবরণ দিয়ে ধলই ইউপি চেয়ারম্যান মো. আবুল মনসুর বলেন, ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে হামলা, বেআইনিভাবে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে ভাঙচুর ও আমাকে প্রাণনাশের হুমকি প্রদানের অভিযোগ এনে গতকাল রাতে হাটহাজারী মডেল থানায় সাত জনের নাম উল্লেখ করে একটি মামলা দায়ের করেছি। এ মামলায় অজ্ঞাতনামা আরও ৮০/৯০ জনকে আসামি করা হয়েছে। ঘটনাটি হচ্ছে, ইভটিজারদের সঙ্গে ধলই ৩ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আজিজের নেতৃত্বে মো. মোরশেদ, মো. ফরিদ ও সালাউদ্দিন মুন্নাসহ শতাধিক ব্যক্তি নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে হামলা চালিয়ে জানালার গ্লাসসহ অন্যান্য স্থাপনায় ভাঙচুর করে। হামলাকারীরা ইউপি নির্বাচনে পরাজিত প্রার্থী চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মো. শাহনেওয়াজ চৌধুরীর সমর্থক ও কর্মী। তবে চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য অভিযুক্ত মো. শাহনেওয়াজ চৌধুরী জানান, তার সমর্থক ও কর্মীরা এই হামলার সঙ্গে জড়িত নন। এ ছাড়া, তিনি এ বিষয়টিও অবগত নন। ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা (এসআই) মোহাম্মদ সোহেল আহমেদ বলেন, এ ঘটনায় চেয়ারম্যান বাদী হয়ে একটি মামলা করেছেন। ঘটনাটিতে যারা জড়িত তদন্তসাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

বাংলারজমিন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

বাংলারজমিন থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং স্কাইব্রীজ প্রিন্টিং এন্ড প্যাকেজিং লিমিটেড, ৭/এ/১ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status