ঢাকা, ১৬ আগস্ট ২০২২, মঙ্গলবার, ১ ভাদ্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৭ মহরম ১৪৪৪ হিঃ

বিশ্বজমিন

আলিগড় বিশ্ববিদ্যালয়ের সিলেবাস থেকে বাদ পড়লো মওদুদীর লেখা, যুক্ত হিন্দু ধর্মের অধ্যায়

মানবজমিন ডেস্ক

(১ সপ্তাহ আগে) ৬ আগস্ট ২০২২, শনিবার, ১০:১৩ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ১:৪২ অপরাহ্ন

ভারতের আলিগড় বিশ্ববিদ্যালয়ের সিলেবাস থেকে বাদ দেয়া হয়েছে দুই ইসলামিক লেখকের লেখা পাঠ। ইসলামিক লেখক আবুল আলা মওদুদী ও সৈয়দ কুতুবের লেখা আর থাকবে না বিশ্ববিদ্যালয়ের সিলেবাসে। ইসলামিক লেখক আবুল আলা মওদুদী মূলত একজন ভারতীয়। তবে দেশভাগের পরে তিনি পাকিস্তানে চলে যান। তিনিই রাজনৈতিক দল জামায়াত-ই-ইসলামির প্রতিষ্ঠাতা। গত সপ্তাহেই ভারতের বেশ কয়েকজন শিক্ষাবিদ দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে যৌথভাবে খোলা চিঠি লিখে দাবি জানিয়েছিলেন, ভারতের বেশ কয়েকটি প্রথম সারির পাবলিক ইউনিভার্সিটিতে ‘ইসলামিক স্টাডিজে’র নামে কার্যত জিহাদি কার্যক্রমের পাঠ দেয়া হচ্ছে। এগুলো অবিলম্বে বন্ধ করতে হবে। এরপরই আলিগড় মুসলিম ইউনিভার্সিটি তাদের পাঠক্রম সংশোধন করার কথা জানায়। 
তবে হিন্দুস্তান টাইমস জানিয়েছে, ইসলামি লেখকদের লেখা বাদ দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিলেবাসে যুক্ত হয়েছে হিন্দু ধর্মের অধ্যায়। এটি কেনো করা হলো তার ব্যাখ্যা দিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের মুখপাত্র উমর সেলিম পীরজাদা। তিনি বলেন, এখানে সব ধর্মের মানুষই পড়তে আসেন।

বিজ্ঞাপন
তাই এমএ’র ইসলামিক স্টাডি বিভাগে হিন্দুর ধর্মের উপরও একটি অধ্যায় যুক্ত হচ্ছে। ইসলামি লেখকদের লেখা বাদ দেয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এই টপিককে ঘিরে যাতে কোনও অপ্রয়োজনীয় বিতর্ক দানা না বাধে সেজন্য আমরা আগাম পদক্ষেপ নিয়েছি। কয়েকজন স্কলার এনিয়ে আপত্তি জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে চিঠিও লিখেছিলেন।

পাঠকের মতামত

জেহাদ শব্দটা নিষ্ঠুর ও খুনি শাসকদের কাছে খুবই অপছন্দের।

তৌহিদ
৭ আগস্ট ২০২২, রবিবার, ৭:৪৬ অপরাহ্ন

যথার্থ।

samsulislam
৬ আগস্ট ২০২২, শনিবার, ১১:১৮ অপরাহ্ন

Same demand from Modi & our Mouluvi (Some).

maruf
৬ আগস্ট ২০২২, শনিবার, ৭:৪৬ অপরাহ্ন

নরেন্দ্র মোদি একজন কট্টর হিন্দুত্ববাদী মুসলিম বিদ্বেষী শাসক। মুসলিম ভারতবর্ষের দ্বিতীয় সংখ্যাগরিষ্ঠ জনগণ। মুসলিমদের ধর্মীয় চেতনা নীতি নৈতিকতা শিক্ষাদানকে নির্বাসিত করতেই জগদ্বিখ্যাত ইসলামী গবেষক লেখক সাহিত্যিক ইসলামী রেনেঁসার পথপ্রদর্শক মাওলানা মওদুদী(র) ও সৈয়দ কুতুবের সাহিত্যাঞ্জলী বিশ্বখ্যাত আলীগড় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাদ দিয়ে হিন্দু সাহিত্যাদি উচ্চশিক্ষার সিলেবাস ভুক্ত করা হয়েছে। ভারতীয় মুসলিম সাহিত্যিক গবেষক শিক্ষাবিদদের এহেন কার্যের বিরুদ্ধে তীব্রতর প্রতিবাদ গড়ে উক্ত মুসলিম মনিষীদ্বয়ের লেখা পুনর্বহালে মোদি সরকারকে বাধ্য করা উচিত।

আলমগীর
৬ আগস্ট ২০২২, শনিবার, ১১:২৯ পূর্বাহ্ন

বিশ্বজমিন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

বিশ্বজমিন থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status