ঢাকা, ১৯ আগস্ট ২০২২, শুক্রবার, ৪ ভাদ্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২০ মহরম ১৪৪৪ হিঃ

অনলাইন

বিদ্যুৎ সংকটে উৎপাদন ব্যহত হচ্ছে-এফবিসিসিআই

স্টাফ রিপোর্টার

(২ সপ্তাহ আগে) ৪ আগস্ট ২০২২, বৃহস্পতিবার, ১০:০৪ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ১২:১২ অপরাহ্ন

দেশে চলমান বিদ্যুৎ সংকটে শিল্প কারখানায় উৎপাদন কমে গেছে। তাই নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ ও গ্যাস সরবারেহর দাবি জানিয়েছে ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই (দি ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার্স অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি)। ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ লোডশেডিং তুলে দেয়ারও দাবি জানিয়েছেন। বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক রাখার আহবান জানিয়েছেন।
এফবিসিসিআই’র অডিটরিয়ামে ‘টেকসই উন্নয়নের জন্য জ্বালানি নিরাপত্তা বিষয়ক’ শীর্ষক সেমিনারের ব্যবসায়ী নেতারা এসব কথা বলেন। সেমিনারটি  আয়োজন করে এফবিসিসিআই। 
সেমিনারে ব্যবসায়ী নেতারা বলেন, গত দুই সপ্তাহ ধরে গ্যাস ও বিদ্যুৎ সংকটে শিল্প কারখানাগুলো লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী উৎপাদন করতে পারছে না। দীর্ঘ মেয়াদি জ¦ালানি সংকট মোকাবিলায় কয়লা উত্তোলন বাড়ানো ও বিকল্প জ¦ালানির ওপর জোর দেন এফবিসিসিআই সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন। তিনি কয়লা দিয়ে বিদ্যুৎ উৎপাদনের কথা বলেন।  এফবিসিসিআই সভাপতি বলেন,  কম খরচের জ¦ালানি দিয়ে বিদ্যুৎ উৎপাদন করলে খরচও কম পড়বে। তিনি বলেন, বিশে^ যে প্রযুক্তি এসেছে তাতে কয়লা উত্তোলনে পরিবেশ টিক রাখা সম্ভব। এই ব্যবসায়ী নেতা  অভিয়োগ করে বলেন, লোডশেডিং হচ্ছে।

বিজ্ঞাপন
রেশনিং করা হচ্ছে না। এফবিসিসিআই’র পক্ষ থেকে রেশনিং করার কথা বলা হয়েছে। শিল্পকে প্রাধান্য দিতে হবে। তিনি বলেন, সমুদ্রে আরও বেশি গ্যাস অনুসন্ধান করতে হবে। উৎপাদন অব্যাহত রাখতে বিদ্যুৎ সরবরাহে শিল্প খাতকে প্রাধান্য দেয়ার দাবিও করেন তিনি। গ্যাস ক্ষেত্র অনুসন্ধান ও উত্তোলনে বাপেক্সকে আরো শক্তিশারী করতে হবে বলেও জানান এফবিসিসিআই সভাপতি। 
এফবিসিসিআই’র পরিচালক মো. আলী খোকন বলেন, গণশুনারির নামে বিইআরসি জনগণের সঙ্গে প্রহসন করে।  গণশুনানি আলোর মুখ দেখে না। তিনি জ¦ালানি ও বিদ্যুতকে আলাদাভাবে দেখার পরামর্শ দেন।  
বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতির সভাপতি মো. হেলাল উদ্দিন  চলমান লোডশেডিং তুলে দেয়ার দাবি জানিয়েছেন। একই সঙ্গে বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক রাখার আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, যাতে রাজনৈতিক পরিস্থিতি উত্তপ্ত না হয়। 
অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) ক্যামিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. ইজাজ হোসেন। এতে তিনি বলেছেন, গত ১০ বছরে আগেও  বিদ্যুৎ ব্যবহারে দিক থেকে শিল্প ও আবাসিক ( ডোমেস্টিক ) সমান ছিল। কিন্তু শিল্পকারখানা বিদ্যুৎ ব্যবহার তার জায়গায় রয়ে গেছে।  বেড়েছে বাসা বাড়িতে। তার প্রবন্ধের সুপারিশে বলেন, গ্যাস অনুসন্ধানের কোন বিকল্প নেই। শিল্পকারখার জন্য তেলের বিকল্প খুঁজতে হবে। কয়লা, এলপিজি,বায়ুগ্যাসের প্রতি গুরুত্বারোপ করেন তিনি। নিজদের কয়লায় বিদ্যুৎ উৎপাদন ও শিল্পকারখানায় ব্যবহারের কথা বলেন তিনি।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূতত্ত্ব বিভাগের অনারারি অধ্যাপক ড. বদরুল ইমাম সেমিনারে বলেন, দেশে গ্যাস অনুসন্ধান করা জরুরি। বিশে^র অন্যান্য দেশের তুলনায় অনুসন্ধান হার খুবই কম। গত ১০ বছরে আমাদের সাগরে আমরা কিছুই করতে পারিনি।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস বলেন. দোকানপাট শপিং শল খোলা রাখার বিষয়ে সরকার বব্ধ পরিকর।
সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিষয়ক উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী, বীর বিক্রম বলেন. বিদ্যুৎ সাশ্রয়ে আমাদের সচেতন হতে হবে। বিশ^ ক্রান্তিকাল অতিক্রম করছে। উন্নয়নশীল দেশের জন্য আরও বড় পরীক্ষা। কয়লা খুঁজতে গিয়ে উর্বর জমি ধ্বংস করা যাবে না। যদি প্রয়োজন হয় আমদানি করা হবে।
 

পাঠকের মতামত

ইউক্রেন যুদ্ধ আমাদের খুব সুবিধা করে দিয়েছে। বেশী বৃষ্টি হলেও ইউক্রেন যুদ্ধ,কম বৃষ্টি হলেও ইউক্রেন যুদ্ধ।পেট খারাপ হলেও ইউক্রেন যুদ্ধ, কোষ্ঠকাঠিন্য হলেও ইউক্রেন যুদ্ধ।বেশ ভাল তামাশা! স্বামী অর্থাৎ (বিদেশ মন্ত্রীর কথায়) ভারতের নিষেধাজ্ঞায় সাগরে গ্যাস অনুসন্ধান বন্ধ। LNGআমদানী করে ভালই পকেট ভরছিল।বলার সঙ্কটে আয় ইনকাম একটু কমেছে।IMFডলার দিলেই আবার ড্রীম লাইনার ৭৭৭ এ স্যুটকেস ভর্তি হয়ে ফিনল্যান্ডে বা অন্য দেশে উড়াল দেবে।

nasym
৪ আগস্ট ২০২২, বৃহস্পতিবার, ২:৩৫ অপরাহ্ন

অনলাইন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

অনলাইন থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status