ঢাকা, ১৬ আগস্ট ২০২২, মঙ্গলবার, ১ ভাদ্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৭ মহরম ১৪৪৪ হিঃ

খেলা

সাইফুদ্দিনকে ছাড়িয়ে খরুচে বোলার নাসুম

স্পোর্টস রিপোর্টার
৩ আগস্ট ২০২২, বুধবার

টি-টোয়েন্টিতে এক ওভারে ৩১ রান দিয়ে টাইগারদের সবচেয়ে খরুচে বোলারের নেতিবাচক রেকর্ডটি ছিল মোহাম্মদ সাইফুদ্দিনের। এবার তাকে ছাড়িয়ে লজ্জার এই রেকর্ডে যুক্ত হয়েছেন তরুণ স্পিনার নাসুম আহমেদ। গতকাল নাসুমের এক ওভারে ৩৪ রান নিয়ে জিম্বাবুয়েকে খেলায় ফেরান বাঁহাতি ব্যাটার রায়ান বার্ল। নিজের প্রথম বলে উইকেট পাওয়া নাসুমের জন্য যেন দুঃস্বপ্ন হয়ে আসে নিজে দ্বিতীয় ওভারটি।  প্রথম চার বল ছক্কায় ওড়ান বার্ল। পঞ্চম বল স্লগ করে মারেন চার। শেষ বলে আবার ছয় হাঁকান জিম্বাবুয়ের এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান। টি-টোয়েন্টিতে জিম্বাবুয়ের হয়ে এক ওভারে সবচেয়ে বেশি রান নেওয়ার রেকর্ডটি ছিল বার্লেরই। বোলারের নামটিও ছিল বাংলাদেশের।  সাকিব আল হাসানের এক ওভারে ৩০ রান নিয়েছিলেন তিনি।

বিজ্ঞাপন
সিরিজ জয়ের মিশনে নেমে টসে হারলেও স্পিনারদের দারুণ বোলিংয়ে শুরুতেই জিম্বাবুয়েকে চেপে ধরে বাংলাদেশ। ৬৭ রানে ৬ উইকেট তুলে নিয়ে স্বগতিকদের রীতিমতো ভড়কে দেয় সফরকারীরা। তবে রায়ান বার্লের ঝড়ে বদলে যায় দৃশ্যপট। বার্লের ৫৪ রানের ইনিংসে ভর করে ১৫৬ রানের পুঁজি পায় স্বাগতিকরা।  আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে এক ওভারে ৩৬ রান দিয়ে সবচেয়ে খরুচে বোলারের নাম স্টুয়ার্ড ব্রড। ২০০৭ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ইংলিশ এই বোলারের এক ওভারে ৬টি ছক্কা হাঁকিয়েছিলেন ভারতের যুবরাজ সিং। এত দিন তার পরে অবস্থান করছিলেন ভারতের শিবম দুবে। তিনি এক ওভারে দিয়েছিলেন ৩৪ রান। এবার দুবের পাশে বসলো নাসুমের নাম । একটা সময় সাইফুদ্দিন ডেভিড মিলারের নাম শুনলেই ক্ষেপে যেতেন। যে কোনো সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশের এই পেস বোলিং অলরাউন্ডারকে মিলারকে নিয়ে শুনতে হতো বিব্রতকর প্রশ্ন! এবার সেই অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হতে যাচ্ছেন নাসুম!  হারারে স্পোর্টস ক্লাব মাঠে টস জিতে ব্যাটিং করতে নেমে আক্রমণাত্মক শুরু করে জিম্বাবুয়ে। ইনিংসের তৃতীয় ওভারে মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের ওপর চড়াও হন জিম্বাবুয়ের দুই ওপেনার ক্রেইগ আরভিন এবং রেজিস চাকাভা। তাদের দুজনের শুরুর জুটি ভাঙেন নাসুম আহমেদ। বোলিংয়ে এসে নিজের প্রথম বলেই চাকাভাকে সাজঘরে ফেরান বাঁহাতি এই স্পিনার। নাসুমের অফ স্টাম্পের বাইরের শর্ট বল কভারের ওপর দিয়ে তুলে মারতে গিয়ে আফিফ হোসেন ধ্রুবর হাতে ক্যাচ দেন চাকাভা। ১০ বলে ১৭ রানের ইনিংস খেলে সাজঘরে ফেরেন জিম্বাবুয়ের এই ওপেনার। নাসুমের পর উইকেটের দেখা পান শেখ মেহেদী হাসান। ডানহাতি এই অফ স্পিনারের ইয়র্কার ডেলিভারিতে এগিয়ে এসে খেলতে গিয়ে বোল্ড হন ওয়েসলি মাধেভেরে। মাধেভেরে করেন ২ রান। পরের বলেই আউট হন সিকান্দার রাজা। মেহেদির লেংথ ডেলিভারিতে স্লগ করতে গিয়ে শর্ট ফাইন লেগে থাকা মোস্তাফিজুর রহমানের হাতে ক্যাচ দেন ডানহাতি এই ব্যাটার। প্রথম দুই ম্যাচে হাফ সেঞ্চুরি পাওয়া রাজা এদিন আউট হন শূন্য রানে। ক্রেইগ আরভিন ও শন উইলিয়ামস মিলে প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করলেও সেটা কাজে আসেনি জিম্বাবুয়ের। ইনিংসের নবম ওভারে বোলিংয়ে এসে উইলিয়ামসকে ফেরান মোসাদ্দেক। ডানহাতি এই অফ স্পিনারের লেংথ বল খেলতে গিয়ে ডিপ মিড উইকেটে ক্যাচ দিয়ে ২ রানে ফেরেন উইলিয়ামস। বাঁহাতি এই ব্যাটার ফেরার পর আউট হন আরভিন। মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের অফ স্টাম্পের বাইরের ফুলার লেংথ ডেলিভারিতে ডাউন দ্য ট্র্যাকে এসে খেলতে গিয়ে বলের লাইন মিস করেন জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক। আরভিনকে স্টাম্পিং করেন এনামুল হক বিজয়। যদিও প্রথম চেষ্টায় বল স্টাম্পে লাগাতে পারেননি উইকেটকিপার। থিতু হতে পারেননি মিল্টন শুম্বা। মোস্তাফিজুর রহমানের অফ স্টাম্পের বাইরের গুড লেংথ ডেলিভারি খেলতে গিয়ে বিজয়ের গ্লাভসে ক্যাচ দেন ডানহাতি এই ব্যাটার। লেগ সাইডে ঝাঁপিয়ে পড়ে এক হাতে দারুণ এক ক্যাচ নেন বিজয়। তবে এরপর নাসুমের ওপর চড়াও হন রায়ান বার্ল। ৫ ছক্কা ও এক চারে নাসুমের এক ওভারে ৩৪ রান নেন বাঁহাতি এই ব্যাটার। পরের ওভারের শেষ বলে মেহেদীর ফুলার লেংথ ডেলিভারিতে ছক্কা মেরে ২৪ বলে হাফ সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন বার্ল। তাকে দারুণভাবে সঙ্গ দেন লুক জংওয়ে। জংওয়েকে ফিরিয়ে বার্লের সঙ্গে ৭৯ রানের জুটি ভাঙেন হাসান মাহমুদ। দুই ছক্কা ও চারটি চারে ২০ বলে ৩৫ রানের ইনিংস খেলেন জংওয়ে। হাফ সেঞ্চুরির পর দ্রুতই ফেরেন বার্লও।  হাসানের অফ স্টাম্পের বাইরের বল খেলতে গিয়ে লিটন দাসের হাতে ক্যাচ বার্ল। ২৮ বলে ৫৪ রান করেন তিনি। এদিন বল হাতে উইকেট পান বাংলাদেশের ছয় বোলারই। দুটি করে উইকেট নেন শেখ মেহেদী ও হাসান মাহমুদ। আর মোসাদ্দেক, নাসুম, মাহমুদুল্লাহ ও মোস্তাফিজ পান একটি করে উইকেট।

খেলা থেকে আরও পড়ুন

খেলা থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status