ঢাকা, ১৬ আগস্ট ২০২২, মঙ্গলবার, ১ ভাদ্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৭ মহরম ১৪৪৪ হিঃ

দেশ বিদেশ

ডেবিট-ক্রেডিট কার্ড থেকে যেভাবে কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে চক্রটি

স্টাফ রিপোর্টার
২ আগস্ট ২০২২, মঙ্গলবার

চক্রটি টার্গেট করতো যাদের বিকাশ, নগদ ও রকেট অ্যাকাউন্টের পাশাপাশি ডেবিট-ক্রেডিট কার্ড আছে এমন ব্যক্তিদের। মূলত সমাজের বিত্তবানদের টার্গেট করতো। কারও বিকাশ অ্যাকাউন্ট থাকলে আর পরপর তিনবার ভুল পাসওয়ার্ড দিলে আ্যকাউন্টটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে সাসপেন্ড হয়ে যায়। এ সুযোগে প্রতারক চক্র ডেবিট-ক্রেডিট কার্ডের সিভিএন জেনে নিয়ে ভুক্তভোগীকে পাঠানো ওটিপি ব্যবহার করে কার্ডে থাকা সর্বোচ্চ টাকা প্রতারক ব্যক্তির অ্যাকাউন্টে ট্রান্সফার করে নেয়। এভাবে গত ৫/৬ বছর ধরে প্রতারণার মাধ্যমে একাধিক ভুক্তভোগীর ডেবিট-ক্রেডিট কার্ড থেকে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারক চক্র। পরে ভুক্তভোগীদের অভিযোগের ভিত্তিতে চক্রের মূলহোতা মো. খোকন ব্যাপারী ওরফে জুনায়েদকে (৩০) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। গতকাল দুপুরে মালিবাগ সিআইডি কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানিয়ে সংস্থাটির এলআইসি শাখার বিশেষ পুলিশ সুপার মুক্তা ধর বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে একটি প্রতারক চক্র বিকাশ, নগদ, রকেট অফিসের কর্মকর্তার পরিচয় দিয়ে আর্থিক লেনদেনের প্ল্যাটফরম ব্যবহার করে সাধারণ মানুষের ডেবিট-ক্রেডিট কার্ড থেকে প্রতারণার মাধ্যমে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়। এমন একজন ভুক্তভোগীর অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে সিআইডি অভিযান পরিচালনা করে গতকাল নারায়ণগঞ্জ এলাকা থেকে খোকন ব্যাপারী ওরফে জুনায়েদকে গ্রেপ্তার করে। খোকনের নেতৃত্বে ৩/৪ সদস্যের একটি সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্র মোবাইলে আর্থিক লেনদেনের প্ল্যাটফরম ব্যবহার করে ৫/৬ বছর ধরে প্রতারণা করে আসছিল। চক্রের সকল সদস্যের সম্মিলিত প্রয়াসে প্রতারণার কাজটি তারা  ৬টি ধাপে অত্যন্ত সুনিপুণভাবে করতো।

বিজ্ঞাপন
মুক্তা ধর  বলেন, প্রথম ধাপে, প্রতারকরা বিকাশ কর্মকর্তা হিসেবে ভুক্তভোগীকে ফোন দিয়ে অ্যাকাউন্ট আপডেট করার জন্য বলে। আর অ্যাকাউন্টটি আপডেট না করলে স্থায়ীভাবে বন্ধ হয়ে যাবে বলে জানায়। দ্বিতীয় ধাপে, প্রতারক ভিকটিমের ব্যবহৃত বিকাশ অ্যাকাউন্টটিতে ভুল পাসওয়ার্ড তিনবারের অধিক দিলে ভিকটিমের অ্যাকাউন্টটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে সাসপেন্ড হয়ে যায়। তৃতীয় ধাপে, প্রতারক ভিকটিমকে জানায়, তার অ্যাকাউন্টটি সাময়িকভাবে সাসপেন্ড করা হয়েছে এবং অ্যাকাউন্টে থাকা টাকা ব্লক হয়েছে। এই টাকা ডেবিট-ক্রেডিট কার্ডে ট্রান্সফার করা সম্ভব। চতুর্থ ধাপে প্রতারক ভিকটিমের ডেবিট-ক্রেডিট কার্ডের নম্বর এবং সিভিএন জানতে চায়। পঞ্চম ধাপে, ভিকটিম এসব তথ্য সরবরাহ করলে ডেবিট/ক্রেডিট কার্ডের সংশ্লিষ্ট ব্যাংককে যে মোবাইল নম্বর সরবরাহ করে সেই মোবাইল নম্বরে কোড সম্বলিত একটি ম্যাসেজ যায়। ষষ্ঠ ধাপে ভিকটিম ম্যাসেজটি রিসিভ করার পর সেই কোডটি প্রতারক জানতে চায়। কোডটি প্রতারক ভিকটিমের কাছ থেকে পাওয়ার পর ভিকটিমের ডেবিট/ ক্রেডিট কার্ড থেকে সর্বোচ্চ পরিমাণ টাকা প্রতারক তার নিজের বিকাশ অ্যাকাউন্টে ট্রান্সফার করে। ভুক্তভোগীর কাছ থেকে প্রতারণার মাধ্যমে অর্থ সংগ্রহের পরপরই তারা তাদের ব্যবহৃত সকল আইডেন্টিটি গোপন করে রাখে। বিশেষ পুলিশ সুপার মুক্তা ধর বলেন, গ্রেপ্তার খোকন দু’টি ফেসবুক পেজ খুলে বিভিন্ন ফেসবুক ব্যবহারকারীদের ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট পাঠিয়ে তাদেরকে তার ফ্রেন্ড লিস্টে অন্তর্ভুক্ত করতো। তারপর তাদের আর্থ-সামাজিক অবস্থা বুঝে মোবাইল নম্বর সংগ্রহ করে টার্গেটকৃত ব্যক্তিদের সঙ্গে সে তার প্রতারণার কার্যক্রম শুরু করে। ডেবিট-ক্রেডিট কার্ডধারী ব্যক্তিদেরকে সে মূলত তার শিকারে পরিণত করে।

 

দেশ বিদেশ থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

দেশ বিদেশ থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status