ঢাকা, ১৮ জুন ২০২৪, মঙ্গলবার, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১১ জিলহজ্জ ১৪৪৫ হিঃ

অনলাইন

সহযোগীদের খবর

অনলাইন ডেস্ক

(৬ দিন আগে) ১১ জুন ২০২৪, মঙ্গলবার, ১০:২৮ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ১২:১৫ পূর্বাহ্ন

mzamin

‘লকডাউনেও সমান আপ্যায়ন ব্যয়’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ করেছে দেশ রূপান্তর। এতে বলা হয়েছে- করোনা মহামারীর সময় সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারীরাও বাসা-বাড়িতে ছিলেন। কিন্তু দেশের বিভিন্ন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) কার্যালয় ও জেলা প্রশাসকের (ডিসি) কার্যালয়ের হিসাব বিবরণীতে উঠে এসেছে, স্বাভাবিক সময়ের মতো লকডাউনকালেও তাদের অফিসে ‘যারা’ এসেছিলেন, তাদেরকে চা-কফি-বিস্কুট, কখনও কখনও খাসির মাংস দিয়ে রান্না করা বিরিয়ানি দিয়ে আপ্যায়ন করা হয়েছিলো।

 


জেলা ও উপজেলার বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, এসব বিল-ভাউচারের প্রায় সবই ভুয়া। কারণ মহামারীর সময় যারা এসব দপ্তরে বা কর্মকর্তাদের বাসায় যেতে বাধ্য হয়েছিলেন, তাদের মুখে ছিল মাস্ক। অনেকের হাত ছিল গ্লাভসে ঢাকা। চা-কফি পান তো দূরের কথা, তারা মুখই খুলতেন না।
শুধু বরাদ্দ টাকার খরচ দেখানোর জন্য আপ্যায়নের নামে মাস শেষে এই ধরনের বিল-ভাউচার-ক্যাশ মেমো বানানো হয়েছে বলে উঠে এসেছে অনুসন্ধানে।

‘নিজেদের প্রতিপক্ষ বানিয়ে সংঘাতে জড়ায় আ.লীগ’- এটি প্রথম আলোর প্রধান শিরোনাম। এর খবরে বলা হয়েছে,  সদ্য সমাপ্ত উপজেলা নির্বাচনে রাজনৈতিক কোনও প্রতিদ্বন্দ্বিতা ছিল না। ক্ষমতাসীন দলের নেতা-কর্মীরা নিজেরাই নিজেদের প্রতিপক্ষ বানিয়ে সংঘাতে জড়িয়েছেন। ফলে চার পর্বের এই উপজেলা নির্বাচনে প্রাণহানি হয়েছে সাতজনের। আহত হয়েছেন প্রায় এক হাজার।

 

স্থানীয় সরকারের এই নির্বাচনে এবার ছোট-খাটো সংঘাত হয়েছে প্রায় সব পর্বেই।

বিজ্ঞাপন
তবে প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে যশোর, কুষ্টিয়া, কক্সবাজার, গোপালগঞ্জ, নরসিংদী, ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও সিরাজগঞ্জে।

 

নয়াদিগন্ত পত্রিকার শিরোনাম- সর্বব্যাপী দুর্নীতি, অরক্ষিত ব্যাংক খাত। এতে বলা হয়, দেশে এখন সর্বব্যাপী দুর্নীতি, ব্যাংক খাত নিয়ন্ত্রণহীন ও অরক্ষিত। প্রশাসনের সব স্তর জবাবদিহিতার অভাব, অনিয়ম ও দুর্নীতিতে ভরা। এর ফলে সরকারি ব্যয় সাশ্রয়ের বদলে হচ্ছে ব্যাপক অপচয়। বিপুল ঋণ করে তৈরি করা হচ্ছে বাজেট। এ পরিস্থিতিতে বাজেট একটি ঋণের ফাঁদে পড়তে যাচ্ছে। এ কথাগুলো বলেছেন, বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ অধ্যাপক ওয়াহিদ উদ্দিন মাহমুদ। তিনি বলেছেন, সাবেক আইজিপির শত শত কোটি টাকা ব্যাংকে জমা হলো, আবার রাতারাতি উধাও হয়ে গেল। তা হলে এই টাকাগুলোর পদচিহ্ন কোথায় গেল। ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স বিভাগের কাজ এখানে কী ছিল।


গতকাল সোমবার নিউজপেপার ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (নোয়াব) ও সম্পাদক পরিষদ আয়োজিত ‘অর্থনীতির চালচিত্র ও প্রস্তাবিত বাজেট ২০২৪-২৫’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন। একই অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. সালেহ উদ্দিন আহমেদ বলেছেন, দেশে এখন বিজনেসের নতুন মডেল হয়েছে আর তা হচ্ছে ঋণখেলাপি মডেল। সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের বাণিজ্য উপদেষ্টা হোসেন জিল্লুর রহমান বলেছেন, দুর্নীতি এখন একটা প্রাতিষ্ঠানিক চরিত্রে রূপ নিয়েছে। সব দেশেই দুর্নীতি হয় কিন্তু এখানে যা হচ্ছে তাতে দুর্নীতি প্রাতিষ্ঠানিকতা পেয়ে গেছে।

 

বণিক বার্তার শিরোনাম- ‘বিশ্ববাজারের সঙ্গে মূল্য সমন্বয় হচ্ছে না জ্বালানি তেলের’। এতে বলা হয়, বিশ্ববাজারে অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের দাম কমছে। গত মাসেও বাজারে অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের ব্যারেলপ্রতি গড় মূল্য ছিল ৮১ ডলার ৪০ সেন্ট। আর আন্তর্জাতিক বাজারে গতকাল মার্কিন বাজার আদর্শ ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েটের (ডব্লিউটিআই) দাম ছিল ৭৬ ডলারের নিচে। মূল্যে পতন অব্যাহত রয়েছে অন্যান্য বাজার আদর্শেও। দেশে জ্বালানি তেলের ‘স্বয়ংক্রিয় মূল্য নির্ধারণ’ পদ্ধতি চালু রয়েছে গত মার্চ থেকে।

জ্বালানি বিভাগসংশ্লিষ্টদের দাবি, আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে সংগতি রেখে এ মূল্য নির্ধারণ হচ্ছে। কিন্তু বিশ্ববাজারে পণ্যটির দাম কমতির দিকে থাকলেও চলতি মাসে জ্বালানি বিভাগ ডিজেল-কেরোসিন, পেট্রল ও অকটেনের দাম বাড়িয়েছে।

আজকের পত্রিকা চট্টগ্রামের জাতীয় গৃহায়ণ কর্তৃপক্ষের একটি দুর্নীতির একটি খবর প্রকাশ করেছে। তারা শিরোনাম করেছে- ‘মিলেমিশে লোপাট করে ফাঁসছেন ঠিকাদার-প্রকৌশলী’। এতে বলা হয়, চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলার কিসমত জাফরাবাদ মৌজায় জাতীয় গৃহায়ণ কর্তৃপক্ষের (জাগৃক) একটি প্লট প্রকল্পে অর্ধেকেরও কম মাটি ভরাট করে প্রায় পৌনে দুই কোটি টাকা বিল তুলে নিয়েছেন ঠিকাদার। জাগৃক ও দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পৃথক তদন্তে এর সত্যতা মেলায় ফেঁসে যাচ্ছেন জাগৃকের চার প্রকৌশলী।

 

সম্প্রতি দুদক মহাপরিচালকের (তদন্ত-২) কাছে পাঠানো এক চিঠিতে এ প্রকল্পের ঠিকাদারসহ অনিয়মের সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের নামে তিনটি মামলা করার সুপারিশ করেছেন সংস্থাটির পরিচালক মো. সফিকুর রহমান ভূঁইয়া।

 

অনলাইন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

   

অনলাইন সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2024
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status