ঢাকা, ১২ জুন ২০২৪, বুধবার, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৫ জিলহজ্জ ১৪৪৫ হিঃ

বিশ্বজমিন

রাই বেরেলি, আমেথিতে কংগ্রেসের প্রেস্টিজ ইমেজ

মানবজমিন ডেস্ক

(৩ সপ্তাহ আগে) ১৭ মে ২০২৪, শুক্রবার, ১০:৩৫ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ১২:২৩ পূর্বাহ্ন

mzamin

ভারতে চলমান লোকসভা নির্বাচনে সব চোখ এখন রাই বেরেলি এবং আমেথির দিকে। আগামী ২০শে মে উত্তর প্রদেশের এই দুটিসহ ১৪টি আসনে নির্বাচন। এ আসন দুটি ঐতিহ্যবাহী গান্ধী পরিবারের ইমেজের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে আছে। দলীয় প্রার্থীদের পক্ষে সমর্থন আদায়ের জন্য সারা ভারতের কংগ্রেস নেতারা সেখানে সমবেত হয়েছেন। তারা দলীয় প্রার্থীর পক্ষে প্রচারণা চালাচ্ছেন। পঞ্চম দফার নির্বাচনে এখানে ভোট হবে। এখানকার আসনগুলো হলো রাই বেরেলি, মোহনলালগঞ্জ, লক্ষ্ণৌ, আমেথি, হামিরপুর, জালাউন, ঝাঁসি, বান্দা, ফতেহপুর, কৌশাম্ভী, ফয়জাবাদ, বারাবাঙ্কি, কিশেরগঞ্জ এবং গোন্দা। এ খবর দিয়েছে অনলাইন দ্য হিন্দু।

এই আসনগুলোতে চোখ রেখেছে ক্ষমতাসীন ভারতীয় জনতা পার্টি। তারা ২০১৯ সালের নির্বাচনের মতো পারফরম করতে চায় এখানে। তখন ১৪টি আসনের মধ্যে ১৩টিতেই জিতেছিল বিজেপি।

বিজ্ঞাপন
মাত্র একটি আসন পেয়েছিল কংগ্রেস। তা হলো রাই বেরেলি। ২০১৯ সালে এক লাখ ৬৭ হাজার ভোট পেয়ে রাই বেরেলিতে নির্বাচিত হয়েছিলেন কংগ্রেসের সাবেক প্রধান সোনিয়া গান্ধী। এর মধ্য দিয়ে ভারতের রাজনীতিতে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ রাজ্যে তিনিই হন কংগ্রেসের লোকসভার একমাত্র এমপি। এবার সোনিয়া গান্ধী নন। তার ছেলে ও কংগ্রেসের সাবেক প্রেসিডেন্ট রাহুল গান্ধী রাই বেরেলিতে তার মায়ের উত্তরাধিকার ধরে রাখার চেষ্টা করছেন। আগের নির্বাচনে আমেথিতে তিনি বিজেপির স্মৃতি ইরানির কাছে হেরেছিলেন। রাহুল গান্ধীকে উপহাস করে বিজেপি এবার বলছে, তারা আমেথি থেকে এবার রাই বেরেলিতে প্রবেশ করবে। অর্থাৎ এই আসনেও তারা জিতবে। এখন পর্যন্ত ২০ বারের মধ্যে ১৭ বার ভারতের সবচেয়ে পুরনো দল কংগ্রেস এই রাজ্যে বিজয়ী হয়েছে। ফলে গান্ধী পরিবারের উত্তরাধিকার রাহুল গান্ধীর জন্য এই নির্বাচন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তাকে হারানো বিজেপির জন্য বিশাল এক জয় হবে। তাই তাকে উপহাস করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও বিজেপির শীর্ষ নেতা অমিত শাহ বলেছেন, আমেথি হোক বা রাই বেরেলি হোক, গান্ধী পরিবার সেখানে কোনোই উন্নয়ন করেনি। এই পরিবারটি মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দিতে পাকা। রাজ্যের মধ্যে রাই বেরেলিকে এক নম্বর জেলা বানাবে বিজেপি। বারা রাহুল, তিনি এখান থেকে ওখানে ছুটে বেড়াচ্ছেন। তিনি পরাজয়ের আতঙ্কে আছেন। রাই বেরেলিতে তিনি ভাল কিছু করতে যাচ্ছেন না। 

বিজেপি জোর প্রচারণা চালাচ্ছে যে, রাই বেরেলিতে রাহুল গান্ধী পরাজিত হতে চলেছেন। স্থানীয় সমাজবাদী পার্টির এমএলএ মনোজ পাণ্ডের বাসভবনে প্রায় আধা ঘন্টা অবস্থান করেন অমিত শাহ। তারপর তিনি রাহুল গান্ধী সম্পর্কে মন্তব্য করেন। মনোজ পান্ডে এ বছর ফেব্রুয়ারিতে দলের চিফ হুইপ পদ ত্যাগ করেন। রাজ্যসভার নির্বাচনে বিজেপির প্রার্থীর পক্ষে ভোট দেন। ওই জেলায় তাকে একজন প্রভাবশালী ব্রাহ্মণ হিসেবে দেখা হয়। কারণ, রাই বেরেলিতে এই সম্প্রদায়ের মানুষ আছেন শতকরা প্রায় ১১ ভাগ। তারা কংগ্রেসকে সমর্থন করেন। 

অন্যদিকে রাই বেরেলি এবং আমেথিতে রাহুল গান্ধীর বোন ও উত্তর প্রদেশ কংগ্রেসের সাবেক ইনচার্জ প্রিয়াংকা গান্ধী ভদ্র নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। তিনি কমপক্ষে ১০টি করে পথসভা করছেন। এক সপ্তাহের বেশি তিনি অবস্থান করছেন রাই বেরেলিতে। 

অন্যদিকে আমেথিতে গান্ধী পরিবারের খুব পুরোনা আস্থাভাজন সহযোগী কিশোর লাল শর্মা মুখোমুখি হয়েছেন বিজেপির স্মৃতি ইরানির। রাই বেরেলি এবং আমেথিতে শতাব্দীর প্রাচীন সম্পর্কের আবেগঘন বক্তব্যে তুলে ধরছেন রাহুল গান্ধী ও প্রিয়াংকা। তারা বলছেন, কংগ্রেসের সঙ্গে তাদের এই সম্পর্ক কোনোদিন শেষ হয়ে যাবে না। প্রিয়াংকা বলেছেন, গান্ধী পরিবারের সঙ্গে আমেথির জনগণের বন্ধন পবিত্র বন্ধন। এই সম্পর্ক পারস্পরিক শ্রদ্ধা, ভালবাসার ও রক্তের। যখন আমি রাই বেরেলি এবং আমেথির মানুষের সঙ্গে সাক্ষাৎ করি, গত চারদশকের স্মৃতি আমার মানসপটে ভেসে ওঠে। এই সম্পর্ক কখনো ভাঙবে না। তিনি বলেন, এখানে অন্য রাজনৈতিক দলের কেউ আপনাদের এমপি হলে আমাদের বিরুদ্ধে দুই হাজার মিথ্যা কথা বলবে। এমনকি আপনারা যদি তাদের বিশ্বাস করেন, তাহলেও আমাদের এই সম্পর্ক ভাঙবে না।

 

বিশ্বজমিন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

   

বিশ্বজমিন সর্বাধিক পঠিত

প্রেমের টানে যুক্তরাষ্ট্র থেকে ফেনীতে/ পঞ্চাশোর্ধ নারী ধর্মান্তরিত হয়ে বিয়ে করলেন ২৫ বছরের যুবককে

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2024
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status