ঢাকা, ২৩ জুন ২০২৪, রবিবার, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৬ জিলহজ্জ ১৪৪৫ হিঃ

ভারত

'কংগ্রেস এই নির্বাচনে কোনও ছাপ ফেলতে পারবে না', মনোনয়ন জমা দিয়ে বললেন নরেন্দ্র মোদি

মানবজমিন ডিজিটাল

(১ মাস আগে) ১৪ মে ২০২৪, মঙ্গলবার, ৪:৪০ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ১০:১৯ পূর্বাহ্ন

mzamin

মঙ্গলবার বেলা ১১টা ৪০ নাগাদ বারাণসীর জেলাশাসকের দপ্তরে পৌঁছে যান ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তার আগে গঙ্গাস্নান সেরে পুজো দেন বারাণসীর দশাশ্বমেধ ঘাটে। মনোনয়ন পেশের আগে সোমবার বারাণসীতে বিরাট মাপের রোড শো করেন নরেন্দ্র মোদি। প্রতিবারের মতো এবারও কাশীর কোতওয়াল কালভৈরব দর্শন করলেন প্রধানমন্ত্রী। করলেন আরতিও। হাজার হাজার কিলো ফুল দিয়ে এদিন সেজে উঠেছিল বিশ্বনাথ ধাম। মোদির মনোনয়ন জমা দেয়ার সময়ে উপস্থিত ছিলেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। এছাড়াও  ছিলেন পণ্ডিত গণেশ্বর শাস্ত্রী, যিনি অযোধ্যার রামমন্দিরে প্রাণপ্রতিষ্ঠা করার দিনক্ষণ ঠিক করেছিলেন। পণ্ডিত গণেশ্বর মোদির মনোনয়নের চার প্রস্তাবকের মধ্যে অন্যতম। বাকি তিন জন প্রস্তাবক ছিলেন বৈজনাথ পটেল (ওবিসি সম্প্রদায়ভুক্ত এক জন আরএসএস স্বেচ্ছাসেবক), লালচাঁদ কুশওয়াহা (ওবিসি সম্প্রদায়ভুক্ত বিজেপি নেতা) এবং সঞ্জয় সোনকার (দলিত সম্প্রদায়ভুক্ত নেতা)।

বিজ্ঞাপন
মনোনয়ন জমা দেয়ার সময় প্রধানমন্ত্রীর চোখে-মুখে উচ্ছ্বাস দেখা যায়। মোদির পাশে ছিলেন ৬ এনডিএ শাসিত রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী, ১৮ জন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রী মোদি জেলা কালেক্টর এস রাজালিঙ্গমের কাছে তার মনোনয়নপত্র জমা দেন। এরপর তিনি রুদ্রাক্ষ কনভেনশন সেন্টারে শ্রমিকদের সঙ্গে বৈঠক করেন লোকসভা নির্বাচনের প্রস্তুতি ও রণকৌশল  নিয়ে। 

২০১৪, ২০১৯ বারাণসী খালি হাতে ফেরায়নি মোদিকে। এই নিয়ে টানা তিন বার বারাণসী লোকসভা কেন্দ্র থেকে তিনি প্রার্থী হয়েছেন। বারাণসী কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ ১ জুন, লোকসভা নির্বাচনের সপ্তম এবং চূড়ান্ত দফায়। বারাণসীতে দাঁড়িয়ে মোদির ভবিষ্যৎবাণী-'উত্তর প্রদেশে একটি আসনও জিততে পারবে না কংগ্রেস। আমরা ৪০০ আসন জয়ের লক্ষ্যে এগোচ্ছি। কংগ্রেস এই নির্বাচনে কোনও ছাপ ফেলতে পারবে না। ৪০ আসনও পাবে না তারা।'

পাশাপাশি রাহুল গান্ধীকে নিশানা করে মোদি বলেন, ‘ওয়েনাড় থেকে পালিয়েছেন। এরপর রায়বরেলি থেকে লড়াইয়ের সিদ্ধান্ত নিলেন। আর তারপরই কেরালার মানুষ ভোটে তাকে উচিত শিক্ষা দিল। এবার উত্তর প্রদেশের মানুষও তাকে ওয়েনাড় ছেড়ে পালিয়ে আসার কারণ নিয়ে প্রশ্ন করছেন।’

সূত্র : এনডিটিভি

ভারত থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

   

ভারত সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2024
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status