অনলাইন

শিফট শেষ হয়ে গেছে, তাই জরুরি অবতরণের পরে উড়তে রাজি নয় পাক পাইলট

২৩ জানুয়ারি ২০২২, রবিবার, ১০:৫৪ পূর্বাহ্ন

পাকিস্তান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্স (পিআইএ) এর একজন পাইলট রোববার জরুরি অবতরণ করার পরে আর কোনোভাবেই ফের উড়ানে রাজি হননি, কারণ তাঁর শিফট শেষ হয়ে গিয়েছিল। দ্য এক্সপ্রেস ট্রিবিউনের মতে, ফ্লাইট PK-9754 রিয়াদ থেকে উড্ডয়ন করেছিল এবং ইসলামাবাদ পর্যন্ত উড়ে যাওয়ার কথা ছিল। তবে খারাপ আবহাওয়া পাইলটকে সৌদি আরবের দাম্মামে অবতরণ করতে বাধ্য করে। সমস্যা দেখা দেয় যখন পাইলট জরুরি অবতরণের পরে আর উড়তে অস্বীকার করেন।

স্থানীয় মিডিয়া জানিয়েছে যে পাইলট (যার নাম প্রকাশ করা হয়নি) ফ্লাইট চালিয়ে যেতে অস্বীকার করেছেন, কারণ তার কাজের সময় শেষ হয়ে গিয়েছিল। এদিকে, বিমানের ভিতরের যাত্রীরা বিমান থেকে নামতে রাজি হননি এবং যাত্রা বিলম্বের বিরুদ্ধে তারাও প্রতিবাদ করতে শুরু করেন। পরিস্থিতি ক্রমশ উত্তেজনাপূর্ণ হয়ে উঠলে তা নিয়ন্ত্রণে আনতে দাম্মাম বিমানবন্দরের নিরাপত্তা বাহিনীকে আহ্বান করা হয়। অবশেষে, আটকে পড়া যাত্রীদের একটি হোটেলে থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছিল যতক্ষণ না তারা পাকিস্তানের ইসলামাবাদে পৌছাচ্ছেন।

পাকিস্তান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্সের একজন মুখপাত্র দ্য গালফ নিউজকে উদ্ধৃত করে বলেছেন। "একজন পাইলটকে বিশ্রাম দেয়া উচিত কারণ এটি বিমানের যাত্রীদের নিরাপত্তার জন্য প্রয়োজনীয়। তাই সমস্ত যাত্রীরা ইসলামাবাদ বিমানবন্দরে রাত ১১ টার দিকে পৌছাবেন, তার আগে পর্যন্ত তাদের হোটেলেই সবরকম ব্যবস্থা করা হয়েছে। '' পাকিস্তান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্স পাকিস্তানের জাতীয় বাহক। এটি গত বছরের নভেম্বরে সৌদি আরবে তাদের ফ্লাইট কার্যক্রম সম্প্রসারিত করে। জরুরি অবতরণের পর যাত্রীদের আটকা পড়ার ঘটনা এটাই প্রথম নয়। গত বছরের নভেম্বরে ইঞ্জিনের ব্যর্থতার কারণে আয়ারল্যান্ডের ডাবলিনে তাদের মার্কিন গামী ফ্লাইটটি জরুরি অবতরণ করার পরে কয়েক ডজন লোক ইউরোপে আটকা পড়েছিল।

সূত্র: এনডিটিভি
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com