দেশ বিদেশ

সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আনতে জেলা প্রশাসকদের সহায়তা চেয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার

২১ জানুয়ারি ২০২২, শুক্রবার, ৯:২৩ অপরাহ্ন

দেশে বেড়ে চলা করোনাভাইরাস সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আনতে জেলা প্রশাসকদের সহায়তা চেয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক। স্বাস্থ্যবিধি অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে ডিসিদের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। জেলা প্রশাসক সম্মেলনের তৃতীয় দিন গতকাল চতুর্থ অধিবেশন শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী।
জাহিদ মালেক বলেন, দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণ বেড়েই চলেছে। বুধবারও সাড়ে নয় হাজার মানুষ শনাক্ত হয়েছে। আক্রান্তের হার ২৫ শতাংশ ছাড়িয়েছে। এতে সরকার আতঙ্কিত না হলেও বিষয়টি আশঙ্কাজনক। স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, করোনাভাইরাস সংক্রমণ মোকাবিলায় জেলা প্রশাসকদের সহযোগিতা চাওয়া হয়েছে। আমরা জেলা প্রশাসকদের বলেছি, ‘আপনারা গতবার যেভাবে করোনা নিয়ন্ত্রণে সহযোগিতা করেছেন এবারও সেটা করতে হবে। আপনারা যেহেতু জেলার দায়িত্বে আছেন, সকলকে নিয়ে কাজ করেন। স্থানীয় প্রতিনিধি যারা আছে, তাদের নিয়েও কাজ করেন। তাদের নিয়ে কাজ করলে আপনাদের কাজ আরও ভালো হবে, সফল হবে’। স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, ওমিক্রনের কারণে ছড়িয়ে পড়া সংক্রমণের লাগাম টেনে ধরতে সরকার ১১ দফা বিধিনিষেধ আরোপ করেছে। এগুলো বাস্তবায়নের মূল হাতিয়ার জেলা প্রশাসন। বাসে, ট্রেনে, স্টিমারে যখন লোক চলবে স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে, মাস্ক পরতে হবে; সামাজিক দূরত্ব যতটুকু সম্ভব মানতে হবে। বিয়েসহ সামাজিক অনুষ্ঠান বন্ধ রাখতে হবে। এ বিষয়গুলো আমরা তুলে ধরেছি। আমরা বলেছি যে বিভিন্ন বন্দরে স্ক্রিনিং চলছে সেগুলো যেন তারা ঠিকমতো দেখেন। যারা কোয়ারেন্টিনে আছেন তারা অনেক সময় এটা ঠিক মতো মানেন না। এ বিষয়ে নজরদারি করতে বলেছি। যারা স্বাস্থ্যবিধি মানবে না তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে বলেছি। স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, জেলা পর্যায়ের হাসপাতালগুলোয় ১০টি করে আইসিইউ শয্যা এবং ১০টি ডায়ালাইসিস শয্যার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এটা এখন ইনস্টলেশনের পর্যায়ে আছে। এটা আগেই একনেকে পাস করা। ইনশাআল্লাহ অল্প সময়ের মধ্যেই সব জেলায় এগুলো বসে যাবে।
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com