অনলাইন

চিত্রনায়িকা শিমু হত্যা: স্বামীসহ আটক ২

কেরানীগঞ্জ প্রতিনিধি

১৮ জানুয়ারি ২০২২, মঙ্গলবার, ১০:২৮ পূর্বাহ্ন

চিত্রনায়িকা রাইমা ইসলাম শিমু হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় তার স্বামী নোবেল ও নোবেলের বন্ধু ফরহাদকে আটক করেছে কেরানীগঞ্জ থানা পুলিশ। গত রাতে তাদের আটক করা হয়। এসময় রক্ত মাখানো একটি প্রাইভেট কারও জব্দ করা হয়।

এর আগে সোমবার দুপুরে হজরতপুর ব্রিজের কাছে আলিয়াপুর এলাকা থেকে শিমুর বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করা হয়। স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে বস্তাবন্দি উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়। সোমবার রাতে শিমুর বড় ভাই শহিদুল ইসলাম খোকন ঢাকার মিটফোর্ড হাসপাতালের মর্গে গিয়ে মরদেহ শনাক্ত করেন।

স্বামী ও দুই সন্তানকে নিয়ে রাজধানীর গ্রিনরোড এলাকার বাসায় থাকতেন ৪০ বছর বয়সী শিমু। রোববার সকালে বাসা থেকে বেরিয়ে তিনি আর ফেরেননি।
অভিনেত্রী শিমুর বোন ফাতেমা জানান, রোববার সকাল ১০টায় বাসা থেকে বের হয় শিমু। সন্ধ্যা ৭টায় শিমুর এক বন্ধু শিমুকে ফোনে পাওয়া যাচ্ছে না বলে জানায়। পরে রাত ১১টায় কলাবাগান থানায় যায় জিডি করা হয়। সন্ধ্যায় মিটফোর্ড হাসপাতালে লাশ শনাক্ত করেন শিমুর ভাই শহিদুল ইসলাম খোকন।

আজ দুপুরে কেরানীগঞ্জ মডেল থানা চত্বরে নিহতের বোন ফাতেমা জানান, তার বোনকে কে বা কারা হত্যা করছে এ ব্যাপারে তাদের কাছে সঠিক কোনো তথ্য নেই। তবে তার বোনের ১৭ বছরের সংসার। এবং তার বোনের সংসারে একটি ছেলে ও একটি মেয়ে আছে। তিনি বোন জামাইকে হত্যাকারী হিসেবে এখনো নিশ্চিত করে বলতে পারেন না। তবে তিনি বলেন, তারা মামলা করবেন এবং সত্যিকার অপরাধী বিচার চান। কেরানীগঞ্জ মডেল থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

এদিকে পুলিশের একটি সূত্র জানিয়েছে, আটককৃত স্বামী সাখাওয়াত আলী নোবেল শিমুকে হত্যার দায় স্বীকার করেছে। এ বিষয়ে আজ দুপুরে ঢাকা পুলিশ সুপার সংবাদ সম্মেলন করে বিস্তারিত জানাবেন।
চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, ১৯৯৮ সাল থেকে ২০০৪ সাল পর্যন্ত প্রায় ২৫টি সিনেমায় অভিনয় করেন শিমু। তিনি কাজী হায়াতের ‘বর্তমান’ সিনেমায় প্রথম অভিনয় করেন।

দেলোয়ার জাহান ঝন্টু, চাষি নজরুল ইসলাম, শরিফ উদ্দিন খান দিপুসহ নামী ও দেশের শীর্ষ পরিচালকদের নির্দেশনায় আরও কিছু সিনেমায় তিনি কাজ করেন।
শিল্পী সমিতি কর্তৃক ১৮৪ জন ভোটাধিকার হারানো শিল্পীর মধ্যে তিনিও ছিলেন। ভোটাধিকার ফিরে পেতে চলমান আন্দোলনে সোচ্চার ছিলেন তিনি। একটি বেসরকারি টিভির মার্কেটিং বিভাগে কর্মরত ছিলেন শিমু। এছাড়াও তিনি মাঝেমাঝে নাটকে কাজ করতেন এবং তার নিজের নাটকের প্রোডাকশন হাউজ ছিল।
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com