বাংলারজমিন

অসহায় পরিবারকে মিথ্যায় হয়রানির অভিযোগ

সোনাইমুড়ী (নোয়াখালী) প্রতিনিধি

১৭ জানুয়ারি ২০২২, সোমবার, ১:৩১ অপরাহ্ন

নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীতে প্রতিহিংসা বশবর্তী হয়ে একটি অসহায় পরিবারকে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ উঠেছে কাজী খায়েজ আহমেদ এর ছেলে কাজী ফয়েজ আহমেদের বিরুদ্ধে।

মামলা ও স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, উপজেলার ৬নং নাটেশ্বর ইউপির মির্জানগর গ্রামের করিম উদ্দিন পাটোয়ারী বাড়ীর খায়েজ আহমেদ এর ছেলে ফয়েজ আহমেদ একই গ্রামের প্রতিবেশী তোফায়েল আহমেদ গংদের বিরুদ্ধে মোবাইল ও টাকা ছিনতাই সহ বেশ কয়েকটি অভিযোগ এনে বিজ্ঞ নোয়াখালী সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালতে গত ৩রা অক্টোবর একটি পিটিশন মামলা দায়ের করেন। ভুক্তভোগী ও স্থানীয়রা জানান, বিগত ৬/৭ মাস পুর্বে খায়েজ আহমেদ ছেলে শিব্বির আহমেদ বিয়ের জন্য মালামাল সহ একটি নসিমন গাড়ি বাড়িতে প্রবেশ করতে চায়। রাস্তাটি কাঁচা ও ফাটল ধরে ভেঙে যাওয়ায় তোফায়েল আহমেদ প্রবেশ করতে বাধা দেয়।

তাদেরকে বলে আপনারা মালামাল গুলো হাতে করে নিয়ে যান। এতে উভয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটি হলে ফয়েজ আহমেদ তোফায়েলদের দেখে নেওয়ার হুমকি দেয়। এই ঘটনার ৬/৭ মাস পর প্রতিহিংসাবশত ফয়েজ আহমেদ তোফায়েলদের বিরুদ্ধে একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করে বলে স্থানীয়রা জানায়। এ বিষয়ে মামলার ১নং স্বাক্ষী সহ ৮জনের সাথে আলাপকালে জানা যায়, বিগত ৬/৭ মাস পুর্বে নসিমন প্রবেশ নিয়ে কথা কাটাকাটি ছাড়া আর কোন ঘটনাই ঘটেনি। এগুলো একটা কাল্পনিক অভিযোগ। আমাদের কেনো স্বাক্ষী করা হলো তা আমরা জানি না।

মামলায় উল্লেখিত ৬নং স্বাক্ষী বাদীর পিতা খায়েজ আহমেদ, তিনি জানান, আমাকে একদিন মরতে হবে, আমি মিথ্যা বলতে পারবো না। মোবাইল ছিনতাই, টাকা নেওয়া বা চাঁদাদাবি করা সম্পূর্ণ মিথ্যা। আমি আমার ছেলেকে বলবো এই মামলাটি প্রত্যাহার করার জন্য।

ভুক্তভোগী তোফায়েল আহমেদ জানান, আমি একজন অসহায় মানুষ। দিন মজুরী করে কোন রকম আমার পরিবার চালাই। তার উপর মিথ্যা মামলা দিয়ে আমাকে হয়রানি করা হচ্ছে। আমি মানুষিক ও আর্থিকভাবে বিপর্যস্ত। আমি এই মিথ্যা মামলা থেকে পরিত্রাণ চাই।
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com